অমি ত্রিবেদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অমি ত্রিবেদী
On the sets of Bajega Band Baaja.jpg
অ্মি ত্রিবেদী (বাঁদিকে) বাজেগা ব্যান্ড বাজা, ২০০৯ এর সেটে
জন্ম (1982-07-15) ১৫ জুলাই ১৯৮২ (বয়স ৪০)[১]
পেশাটেলিভিশন অভিনেত্রী, কণ্ঠশিল্পী ও অভিনেত্রী
দাম্পত্য সঙ্গীনীরজ সাঙ্গাই
আত্মীয়করণ ত্রিবেদী (ভাই)

অমি ত্রিবেদী (জন্ম: ১৫ জুলাই ১৯৮২)[১] হলেন একজন ভারতীয় টেলিভিশন এবং থিয়েটার অভিনেত্রী[২] ২০০৫–০৬ সালে, তিনি কিট্টু সব জানতি হ্যায়তে কিট্টু এবং ২০১০-১১ সালে জনপ্রিয় কৌতুক সিটকমপাপড় পোলএ কোকিলা চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে সর্বাধিক পরিচিতি অর্জন করেছেন।[৩]

ত্রিবেদী বেশ কয়েক বছর ধরে গুজরাটি থিয়েটারে অভিনয় করছেন এবং বেশ কয়েকটি হিন্দি ধারাবাহিকেও অভিনয় করেছেন। তাঁর বাবা প্রখ্যাত থিয়েটার অভিনেতা তুষার ত্রিবেদী, যিনি ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে গুজরাটি ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন। তাঁর ছোট ভাই, করণ ত্রিবেদীও একজন থিয়েটার অভিনেতা এবং কণ্ঠশিল্পী।

পেশা[সম্পাদনা]

ত্রিবেদী বেশ কম বয়সেই অভিনয় শুরু করে দিয়েছিলেন। তিনি শিশুশিল্পী হিসাবে হামরাহি এবং জি হরর শো-এর মতো হিন্দি ধারাবাহিকের বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। ১৯৯৪ সালে, তিনি প্রকাশ ঝায়ের টেলিচলচ্চিত্র দিদি-তে অভিনয় করেছিলেন, যেটি গ্রামাঞ্চলে মেয়েদের লেখাপড়াকে কেন্দ্র করে নির্মাণ করা হয়েছিল। দশম ও দ্বাদশ শ্রেণিতে অধ্যয়নের পর, ত্রিবেদী কিশোরী অভিনেত্রী হিসাবে অভিনয়ে ফিরে এসেছিলেন এবং গুজরাটি থিয়েটারে বেশ কয়েক বছর ধরে অভিনয় করেছিলেন। তিনি [[গুজরাতি মানুষ|গুজরাটি দর্শকদের কাছ থেকে তাঁর অভিনয়ের দক্ষতার জন্য প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন।

ত্রিবেদীর থিয়েটারে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা তাঁকে বেশ কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেলের কাছ থেকে অভিনয়ের প্রস্তাব পেতে সহায়তা করেছিল। তিনি জি টিভিতে প্রচারিত ধারাবাহিক বাবুল কি দুয়ায়েঁ লেতি যাতে একটি ছোট্ট ভূমিকায় অভিনয়ের মাধ্যমে টেলিভিশন জগতে পদার্পণ করেছিলেন। এরপরে, তিনি দিল চাহতা হ্যায় এবং কুমকুম - এক প্যায়ারা সা বন্ধন-এর মতো বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে ক্ষুদ্র চরিত্র এবং পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি জনপ্রিয় কৌতুক সিটকম খিচড়িতেও অভিনয় করেছিলেন, যা হ্যাটস অফ প্রোডাকশনের প্রযোজনায় নির্মিত প্রথম অনুষ্ঠান ছিল। এই ধারাবাহিকের জনপ্রিয়তা থাকা সত্ত্বেও ত্রিবেদী এর দ্বিতীয় ভাগ ইনস্ট্যান্ট খিচড়িতে আর অভিনয় করেননি; কারণ তিনি অন্যান্য প্রকল্পের জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিলেন।

তারপরে, তিনি জারা-পেয়ার কি সৌগত, জানে ক্যা বাত হুই এবং বাজেগা ব্যান্ড বাজার মতো অনুষ্ঠানে অভিনয় করেছিলেন।[৪]

২০১০ সালে, ত্রিবেদী সব টিভির কমেডি সিটকম পাপড় পোল এ অভিনয় করেছিলেন; যেখানে তাঁর বিপরীতে স্বপ্নিল জোশী অভিনয় করেছিলেন। তিনি উক্ত অনুষ্ঠানে কোকিলা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন।[৫] এই অনুষ্ঠানে তার চরিত্রের জন্য তিনি "সেরা কৌতুক অভিনেত্রী" বিভাগে ইন্ডিয়ান টেলি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিলেন।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Birthday wishes for Sooraj, Ami and Amrin"Tellychakkar Dot Com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৫-০৭-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-২৬ 
  2. "Profile: Ami Trivedi"The Indian Express। ১৯ ডিসেম্বর ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১০ [অকার্যকর সংযোগ]
  3. Elina Priyadarshini Nayak (১৪ জানুয়ারি ২০১১)। "I regret taking breaks: Ami Trivedi"The Times of India। ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  4. "Ami Trivedi cries foul"। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  5. "My long choti in Papad Pol is already the talk of the town : Ami Trivedi" 
  6. "IPL made Papad Pol go off air, opines Ami Trivedi"। ২৪ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]