অমলেন্দু দাশগুপ্ত (সাংবাদিক)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

অমলেন্দু দাশগুপ্ত (১৯২৪ - ২০ আগস্ট, ২০০৮) একজন বাঙালি অধ্যাপক এবং সাংবাদিক। তিনি ভারতের বিখ্যাত ইংরেজি দৈনিক দ্য স্টেটসম্যান পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

অমলেন্দু দাশগুপ্ত ১৯২৪ সালে বিক্রমপুরে (বর্তমান মুন্সিগঞ্জ জেলা) জন্মগ্রহণ করেন। স্থানীয় স্কুল থেকে ১৯৪০ সালে প্রবেশিকা পরীক্ষা এবং ঢাকা কলেজ থেকে ১৯৪২ সালে আই.এ. পাস করেন। এরপর তিনি কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে ইংরেজি বিভাগে ভর্তি হন। অনার্সে তিনি প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে এম.এ তে ভর্তি হন এবং প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হন।

শিক্ষাজীবন শেষ করে তিনি পূর্ববঙ্গের (বর্তমান বাংলাদেশের) চট্টগ্রাম সরকারি কলেজে ইংরেজি বিষয়ে অধ্যাপনা শুরু করেন। তারপর তিনি সেখান থেকে দিল্লি কলেজে অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেন। এরপ তিনি দিল্লিতে ব্রিটিশ ইনফরমেশন সার্ভিসে যোগ দিন। কিছুদিন তিনি দিল্লির আকাশবাণীতে কাজ করার পর ১৯৫৮ সালে তিনি ভিয়েতনাম আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থায় প্রেস অফিসার হিসেবে যোগ দেন। ১৯৬৩ সালে তিনি দিল্লিতে ফিরে প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোতে ডিপুটি ডিরেক্টর হন। এরপর তিনি ১৯৬৪ সালে কলকাতায় এসে দ্য স্টেটসম্যান পত্রিকায় সহকারী সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। ইংরেজি সাহিত্যের ছাত্র হয়েও তিনি বিজ্ঞান বিষয়ে আগ্রহী ছিলেন। সহকারী সম্পাদক থাকার সময় তিনি বিজ্ঞান সংবাদদাতা হিসেবেও বেশ কৃতিত্ব অর্জন করেছিলেন। ১৯৮০ সালে তিনি পত্রিকাটির সম্পাদক পদ গ্রহণ করেন। ১৯৮৬ সালে তিনি এই পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেন।

অবসর গ্রহণের পরেও তিনি বিভিন্ন সংবাদপত্রে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে নিবন্ধ লিখেছেন। তার দু'টো গ্রন্থ রয়েছে। ১৯৫৭ সালে তার প্রথম গ্রন্থ দ্য অ্যাটম অ্যান্ড ইটস প্রকাশিত হয়। বইটি পরামানু শক্তি নামে বাংলা ভাষাতেও প্রকাশিত হয়। এই বইয়ের মুখবন্ধ লিখেছিলেন বিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বসু। ২০০৫ সালে তার দ্বিতীয় গ্রন্থ থিমস অ্যান্ড ভ্যারিয়েশনস প্রকাশিত হয়।

২০শে আগস্ট ২০০৮ সালে তিনি কলকাতায় এক নার্সিং হোমে মৃত্যুবরণ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]