অন্ননালী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অন্ননালী
Illu01 head neck.jpg
গলবিল ও মুখের সাথে অন্ননালীর সম্পর্ক
Abdomal organs.svg
পরিপাক অঙ্গ (অন্ননালী #1)
বিস্তারিত
অগ্রদূতForegut
পদ্ধতিPart of the Digestive system
ধমনীEsophageal arteries
শিরাEsophageal veins
স্নায়ুসিলিয়াক গ্যাংলিয়া, ভেগাস স্নায়ু[১]
শনাক্তকারী
লাতিনEsophagus
MeSHA03.556.875.500
দোরল্যান্ড
/এলসভিয়ার
Esophagus
টিএA05.4.01.001
এফএমএFMA:7131
অ্যানাটমিকল পরিভাষা

অন্ননালী বা ইসোফেগাস গলবিলকে পাকস্থলী অবধি সংযোগকারী পেশীবহুল নালী যার মধ্য দিয়ে পেরিস্ট্যালসিসের মাধ্যমে খাবার অতিক্রম করে।মানুষের অন্ননালীর দৈর্ঘ্য হচ্ছে ১৮-২৫ সে.মি.।এটি শ্বাসনালী এবং হৃৎপিণ্ড এর পিছন দিয়ে যায়,ডায়াফ্রামকে অতিক্রম করে পাকস্থলীর কার্ডিয়াক প্রান্তে উন্মুক্ত হয়।

অন্ননালীর উপরে এবং নীচে দুটি স্ফিংক্টার রয়েছে।নিচের স্ফিংক্টার পাকস্থলি থেকে খাদ্য ফিরে আসাকে রোধ করে।অন্ননালীর উচ্চ রক্ত সরবরাহ আছে।

অন্ননালীর ক্যান্সার,রক্তপাত,সংকুচিত হওয়া ইত্যাদি হতে পারে।এক্স রে,এন্ডোস্কপি,সিটি স্ক্যান ইত্যাদি পরীক্ষা অন্ননালীতে করা হয়।

গঠন[সম্পাদনা]

অবস্থান[সম্পাদনা]

অন্ননালীর উপরিভাগ ট্রাকিয়ার পিছনে মিডিয়াস্টিনাম এ থাকে এবং ইরেক্টর স্পাইনি পেশী ও মেরুদণ্ডের সামনে থাকে।নিম্নভাগ হৃৎপিণ্ডের পিছনে থাকে।ট্রাকিয়ার বিভাজন থেকে এটি ডান পালমোনারি ধমনী,বাম প্রধান ব্রঙ্কাস ও বাম অলিন্দের পিছন দিয়ে ডায়াফ্রামে প্রবেশ করে।

থোরাসিক ডাক্ট অন্ননালীর নিম্নভাগে ডান পাশে থাকলেও উপরিভাগে বাম পাশে পিছনে থাকে।এটি ডান পাশে হেমিঅ্যাজাইগাস শিরা ও ইন্টারকোস্টাল শিরার সামনে থাকে।ভেগাস স্নায়ু অন্ননালীকে আবৃত করে রাখে।

সংকোচন[সম্পাদনা]

অন্ননালী চার জায়গায় সংকুচিত থাকে।

যখন কঠিন বস্তু খাওয়া হয়,তখন এটি এসব জায়গায় আটকে থাকার এবং ক্ষতি করার আশঙ্কা থাকে।কিছু কাঠামো অন্ননালীকে চেপে রাখে বলে এসব জায়গা সংকুচিত থাকে। সংকুচিত জায়গাগুলি হল

  • অন্ননালীর শুরুতে,ক্রিকয়েড তরুণাস্থির পিছনে যেখানে গলবিল অন্ননালীর সাথে যুক্ত হয়।
  • অ্যাওর্টিক আর্চ ও বাম প্রধান ব্রংকাসের সামনে যখন অতিক্রম করে।
  • যখন ডায়াফ্রাম অতিক্রম করে।
চারটি জায়গায় অন্ননালী সংকুচিত

কলাতত্ত্ব[সম্পাদনা]

স্বাভাবিক অন্ননালীর বায়োপ্সি,যা আইশাকার এপিথেলিয়াম প্রদর্শন করছে

কাজ[সম্পাদনা]

খাদ্য ও বায়ুর পরিবহনে সাহায্য করে।

ক্লিনিক্যাল গুরুত্ব[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]