অনিতা কুপ্পুসামি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অনিতা কপ্পুসামি
জন্ম নামঅনিতা
ধরনতামিল লোকশিল্প, কর্ণাটিক
পেশাসঙ্গীতশিল্পী, সুরকার এবং লেখক
ওয়েবসাইটpushpavanamkuppusamy.com

অনিতা কুপ্পুসামি হলেন একজন ভারতীয় (তামিল) সঙ্গীতশিল্পী। তিনি মূলত একজন তামিল লোক সঙ্গীত এবং কর্ণাটিক সংগীতশিল্পী। তিনি একই সাথে একজন টিভি হোস্ট।তিনি নাতুপুরা পট্টুর দ্বারা বিখ্যাত হয়েছেন, যা তামিল লোকসঙ্গীত বা লোকসংস্কৃতির একটি বিশেষ শাখা। অল্প বয়স থেকেই তিনি গায়ক হতে আগ্রহী ছিলেন।গান গাওয়া ছাড়াও তিনি বেশ কয়েকটি টিভি রিয়েলিটি শোতে বিচারক হিসাবে কাজ করেছেন। তিনি রান্নার উপরে কয়েকটি বই লিখেছেন এবং টিভিতে বিভিন্ন রান্নার অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছেন।

জীবনী[সম্পাদনা]

তিনি বেঙ্গালুরুতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন এবং মেট্টুপলায়মে বড়ো হয়েছেন। শৈশবকাল থেকেই তিনি সঙ্গীতে আগ্রহী ছিলেন। তাই তিনি সংগীতকে পেশা হিসেবে বেছে নেয়ার ব্যাপারে তাঁর পরিবারকে রাজি করান। তিনি কয়ম্বাটোরের অবিনাশী লিঙ্গম কলেজ থেকে সংগীতে বি.এ. ডিগ্রি অর্জন করেন। তারপর তিনি চেন্নাইয়ের ইউনিভার্সিটি অব মাদ্রাজে যোগদান করেন। সেখান থেকে তিনি কর্ণাটিক সঙ্গীতের উপর এম.এ. ডিগ্রি লাভ করেন।[১]

এখানেই পুষ্পবনাম কুপ্পুসামির সাথে তাঁর পরিচয় হয়। তাদের মধ্যে খুব ভাল সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাঁরা বিভিন্ন প্রতিযোগিতা এবং কনসার্টে একসাথে গান গাইতেন। একসময় তাঁদের সম্পর্ক এতই গভীর হয় যে তাঁরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তিনি তাঁর স্বামী পুষ্পবনামের কাছ থেকে তিনি একটি তামিল লোকশিল্প "নাতুপুরা পট্টু" শিখেছিলেন।[২]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তাঁর স্বামী হলেন পুষ্পবনাম কুপ্পুসামি। তিনিও একজন গায়ক। এই দম্পতির দুজন কন্যা সন্তান রয়েছে।একজন হলেন পল্লবী আগরওয়াল, যিনি একজন চিকিৎসক এবং অন্যজন হলেন মেহা। [২] অনিতা কুপ্পুসামি ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে সর্বভারতীয় আন্না দ্রাবিড় মুনেত্র কড়গম বা এআইডিএমকে রাজনৈতিক দলে যোগ দেন।[৩]

ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

অনিতার মূল দৃষ্টি ছিল তামিল লোকশিল্প, "নাতুপুরা পট্টু" তে। তাঁর স্বামী পুষ্পবনম কুপ্পুসামির সাথে তিনি যৌথভাবে ভারতে এবং বিদেশে প্রায় ৩,০০০ কনসার্টে গান গেয়েছেন।[৪]

তিনি তাঁর গানের মাধ্যমে এইডস, যৌতুক, ধূমপান, মদ্যপান ইত্যাদির কুফল; নারী-শিশু হত্যা, শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে সচেতনতা; এবং নারী শিক্ষা এবং শিশুদের বুকের দুধ খাওয়ানোর গুরুত্বের বিষয়ে সচেতনতা সহ সার্বিক সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করেছেন।

প্রথমদিকে তাঁর লক্ষ্য ছিল মূলধারার নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী (প্লে-ব্যাক গায়ক) হয়ে ওঠা। তবে কনসার্টের জন্য তার ঘন ঘন ভ্রমণের কারণে তিনি নেপথ্য সঙ্গীতে (প্লে-ব্যাক গানে) মনোনিবেশ করতে পারেননি। [৪]

অবদান[সম্পাদনা]

বিভিন্ন কনসার্ট ছাড়া তিনি মূলত লোকসঙ্গীত এবং নেপথ্য সঙ্গীত (প্লেব্যাক গান) গেয়েছেন।

লোকসঙ্গীতের অ্যালবাম[সম্পাদনা]

  • মান্নু মানক্কধু
  • মন ভাসম
  • মান ওসাই
  • কারিশাল মান
  • সোলাম বেধাইকাইলে
  • মেহাম কারুক্কুধাদি
  • কালথু মেদু
  • উরক্কুরুভি
  • গ্রামাথু গীতম
  • কাট্টুমল্ল
  • আদিয়াথি ডান্স ডান্স
  • ওথাইয়াদিপ্পাধাইয়িলে
  • থানজভুরু মান্নেদুথু
  • নট্টুপ্পুরা মনাম

নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে[সম্পাদনা]

ফিল্ম গান সংগীত পরিচালক সহ শিল্পী
ভাল্লি ভারা পোড়া পন্নু রোম্বা জোরুথান কে. এস মণি অলি পুষ্পবনাম কপ্পুসামি
আরসিয়াল আরসিয়াল আরসিয়াল বিদ্যাসাগর পুষ্পবনাম কপ্পুসামি
কারিশাকত্তু পুভে কুচানোরু ইলাইয়ারাজা পুষ্পবনাম কপ্পুসামি

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "AIADMK gets six popular faces"The New Indian Express। ২০২০-০২-০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-০৩ 
  2. "Transcending boundaries"The Hindu। ২০২০-০২-০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-০৩ 
  3. "AIADMK welcomes newcomers"The Hindu। ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩। ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৫-১৭ 
  4. "My First Break – Anitha Kuppusamy"The Hindu। ২০২০-০২-০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-০৩