অনাদিশ পাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অনাদিশ কুমার পাল
Anadish.jpg
জন্ম১৯৬৩
দিল্লি
বাসস্থানদিল্লি
নাগরিকত্বভারত
জাতীয়তাভারতীয়
পরিচিতির কারণঅনুসন্ধান, দিল্লিতে গাছ সংরক্ষণ

অনাদিশ কুমার পাল (জন্ম ১৯৬৩) একজন ভারতীয় আবিষ্কারক,[১] কবি,[২] এবং পরিবেশবিদ।[৩] তিনি একটি বাঙালি পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। অনাদিশ পাল দশটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পেটেন্ট পেয়েছেন। তার মধ্যে ২০০৯ সালে একটি গুরুত্বপূর্ণ পেটেন্ট পান যেটি ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ভাবে নিয়ন্ত্রিত, জ্বালানী-দক্ষ অন্তর্দহন ইঞ্জিনের জন্য, "রিলেয়িং পিস্টন মাল্টিইউস ভালভ-লেস ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিকালি কন্ট্রোলড এনার্জি কনভার্সান ডিভাইসেস" শিরোনামে। ২০০৯ সালে তাকে একটি অসাধারণ গ্যাস চালিত পুনরায় লোডিং বন্দুকের জন্য আরও দুটি পেটেন্ট প্রদান করা হয়। পেটেন্ট দুটি "ম্যাগনেটিক জাইরো-প্রজেক্টাইল ডিভাইস উইথ ইলেকট্রনিক কমবাসসান, টার্বোজেনারেশন এন্ড জাইরো স্টেবিলিলাইজেশন" এবং রেলগান নামে আনুমোদন করা হয়েছে। ২০০৭ সালে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নৌবাহিনীর নৌবাহিনী গবেষণা অফিস তার রেলগান প্রযুক্তির জন্য আগ্রহ দেখিয়েছে।[৪] ২০০৭ সালে একটি ৩ডি কম্পিউটার মাউসের জন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ পেটেন্ট তার নামে জারি হয়। তার নামে একটি উচ্চ ঘূর্ণন সঁচারক বল বৈদ্যুতিক মোটরের জন্য পেটেন্ট আছে। তার শেষ পেটেন্ট, ২০১৩ সালে পাওয়া মহাকর্ষ মড্যুলেশন এবং তার গ্রহণ যেখানে তিনি একটি মহাকর্ষীয় তরঙ্গ ভিত্তিক যোগাযোগের লিংক প্রদর্শিত আছে বলে দাবি করেছেন।[৫] তিনি স্ব-শিক্ষিত ইলেকট্রনিক্স ডিজাইনার হিসেবে শুরু করেন এবং তিনি মারুতি উদ্যোগ, হোন্ডা, দেরাদুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর দা ভিসুয়ালি হ্যান্ডিক্যাপড এবং ডুরাসেল-এর (এখন গ্লোবাল জিলেট একটি অংশ) মতো সংস্থাগুলির জন্য ফ্রিল্যান্স প্রকল্পগুলি ব্যবহার করতেন। পরে, তিনি উদ্ভাবনের দিকে মনোনিবেশ করেন। সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত গতিশীল গাড়ী, একটি দ্বিচক্র-যান, তার ধারণার প্রোটোটাইপ উন্নয়নের পর্যায় অতিক্রম করতে পারেনি কারন তার এই ধারনা নিয়ে কোন  কোম্পানী আগ্রহ দেখায়নি।[৬]

অনাদিশ পাল একজন যোগ্যতাসম্পন্ন ডিজাইনার বা ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন না। ১৯৮২ সালে কলেজ ছাড়ার পর, তিনি ইলেক্ট্রনিক্সের প্রোটোটাইপ করা শুরু করেন, যা তার শখ ছিল, যখন তিনি গোরখপুরের বাসিন্দা ছিলেন। ১৯৮২ সালে তার মায়ের মৃত্যুর ঘটে। তিনি একটি ডিজিং রেডিও রিসিভার তৈরির পরিকল্পনা করেন যখন তার বয়স ১৪ বছর, যা কখনও কাজ করেনি; তবে তিনি নিজে সার্কিট ডিজাইন করেছেন এবং সব পিসিবি নিজেই তৈরি করেছেন। তিনি মারুতি এবং হোন্ডা পাওয়ারের জন্য ফ্রিল্যান্স প্রকল্প করেছেন। তিনি ২০০০ সালে, উত্তরাখণ্ডে হন্ডা বিদ্যুত্ প্রকৌশল বিভাগের একটি কারিগরি ত্রুটি নিয়ে একটি চার্জিং জেনারেটর ডিজাইন করেন। সুতরাং, ভারতীয় সেনাবাহিনী জেনেসেট ক্লিয়ারেন্স প্রদান করেনি। পরে জেনেসেটের জন্য একটি এসএমপিএস ভিত্তিক ভোল্টেজ নিয়ন্ত্রক ডিজাইন করে, যা পরে সেনা কর্তৃক গৃহীত হয়।

অনাদিশ পাল দিল্লির গাছের সমস্যা নিয়ে পরিবেশবাদী হিসেবেও অবস্থান নিয়েছেন এবং এর জন্য  গাছ-বিরোধী লবি থেকে বিভিন্ন হুমকি আসে তার কাছে।

পেটেন্টস[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Mukherjee, Subrata; Anirban Das Mahapatra (২৪ জুলাই ২০০৬)। "Peddling a two-wheeled dream"The Telegraph। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০০৯ 
  2. "Bad Dreams Good Dreams"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০০৯Internet Archive-এর মাধ্যমে। 
  3. Chopra, Deeksha (২ মে ২০০৮)। "Bid to kill Pitampura peepul, no one is owning up"The Times of India। ১৭ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০০৯ 
  4. "Green crusader alleges frame up fears for his life"The Times of India। ৩১ জুলাই ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৭ জানুয়ারি ২০১১ 
  5. Sharma, Manoj (১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩)। "US patent for Delhi scientist's work on gravitation"Hindustan Times। সংগ্রহের তারিখ ২১ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  6. "Genius inventor waiting for his big break"Gulf News। ৭ মে ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]