অনল চট্টোপাধ্যায়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
অনল চট্টোপাধ্যায়
Replace this image male bn.svg
জন্ম (১৯২৭-১০-২৪)অক্টোবর ২৪, ১৯২৭
মৃত্যু এপ্রিল ১৭, ২০১৪(২০১৪-০৪-১৭) (৮৬ বছর)
জাতীয়তা ভারত ভারতীয়
পেশা গীতিকার ও সুরকার

অনল চট্টোপাধ্যায় (জন্ম: ২৪ অক্টোবর, ১৯২৭[১] - ১৭ এপ্রিল, ২০১৪) বাংলা গানের একজন গীতিকার।[২] ১৯৪৬-এ 'দেব সাহিত্য কুটির' হতে তাঁর লেখা বই ‘রত্নতৃষ্ণা কাহিনী’ বের হয়। ১৯৪৩ সালের দুর্ভিক্ষকে কেন্দ্র করে লেখা তার একটি বিখ্যাত গান হচ্ছে 'আজ বাংলার বুকে দারুণ হাহাকার'।

জীবন ও কর্ম[সম্পাদনা]

সাহিত্যপ্রেমী এই ব্যক্তি ১৯৪৬ সনে ভারতীয় গণনাট্য সংঘের সাথে যুক্ত হন। সেখানেই সলিল চৌধুরীর সহযোগী হিসেবে কাজ করেন।[৩] ১৯৫৪ সালে তার প্রথম রেকর্ড বের হয় হিজ মাস্টার্স ভয়েস থেকে। ১৯৫৫ সালে মৃণাল সেনের রাতভোর চলচ্চিত্রে সঙ্গীত পরিচালনা করেন।[১] তাঁর লেখা গান ‘কত গান হারালাম’, ‘কৃষ্ণনগর থেকে আমি’ গেয়েছিলেন গীতা দত্ত; ‘মধুমতী যায় বয়ে যায়’ গেয়েছিলেন তরুণ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ‘মনের দুয়ারে দাঁড়িয়ে থেকো না’, ‘জানি এ ভুল’ ইত্যাদি গেয়েছিলেন আরতি মুখোপাধ্যায়৷‌ আর লোকগীতি ও ঠুংরির মিশেলে তাঁর দেয়া সুরে সুরে প্রতিমা বন্দ্যোপাধ্যায় গেয়েছিলেন ‘ছলকে পড়ে কলকে ফুলে’ গানটি এবং এই গান শুনে সুরকারের উচ্ছসিত প্রশংসা করেছিলেন পণ্ডিত রবিশঙ্কর৷‌ যাত্রাপালা এবং চলচ্চিত্রের গানেও তিনি সুরারোপ করেছিলেন।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "অনল চট্টোপাধ্যায়"। Milan Sengupta। সংগৃহীত ১৭ এপ্রিল ২০১৪ 
  2. সুধীর চক্রবর্তী, বাংলা গানের সন্ধানে; অরুণা প্রকাশনী, কলকাতা; ২৫ বৈশাখ, ১৩৯৭; পৃষ্ঠা- ১৮৪।
  3. "সুরকার অনল চট্টোপাধ্যায়ের জীবনাবসান"। Aajkaal Publishers Limited। সংগৃহীত ১৮ এপ্রিল ২০১৪