অতিরিক্ত জনসংখ্যা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
10000 খ্রিস্টপূর্বাব্দ থেকে 2000 খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত মানব জনসংখ্যার গ্রাফ। এটি সতেরো শতকের শেষের দিক থেকে সংঘটিত বিশ্ব জনসংখ্যার মধ্যে সূচকীয় বৃদ্ধি দেখায়।

অত্যধিক জনসংখ্যা (বা জনসংখ্যা বৃদ্ধি) হলো যখন অনেক জনসংখ্যার জন্য পিরিবেশের ভারসাম্য ব্যাহত হয়ে থাকে (খাদ্য, সুপেয় পানি, বিশুদ্ধ বায়ূ ইত্যাদি)। আরও বৈজ্ঞানিক ভাবে, যখন জনসংখ্যা কোনো ভৌগলিক সীমারধারন ক্ষমতার তুলনায় বেশি হয়ে যায় এবং প্রাকৃতিক ভাবে পরিবেশের ক্ষতিপূরণের চেয়ে দ্রুত পরিবেশের ক্ষতি সাধন করে, ধিরে ধিরে পরিবেশগত ও সামাজিক পতনের দিকে পরিচালিত করে। অতিরিক্ত জনসংখ্যা একটি নির্দিষ্ট জাতি বা পুরো বিশ্বের জন্য প্রযোজ্য হতে পারে [১]

জনসংখ্যার বৃদ্ধি, মৃত্যুহার হ্রাস, অভিবাসন বৃদ্ধি বা অস্থিতিশীল বায়োম এবং সম্পদ হ্রাসের ফলে জনসংখ্যা বৃদ্ধি হতে পারে। একটি জনবিরল এলাকা জনবহুল হবে না , যদি এটা অনুর্বর ও মানুষের বসবাসের অনুপযোগী হয়( যেমন, মরুভূমি)।

পৃথিবীর ধারন ক্ষমতা, বিশ্বব্যাপী উষ্ণায়ন, সম্ভাব্য বা আসন্ন পরিবেশগত বিপর্যয়, জীবনযাপনের উপর প্রভাব এবং জনসংখ্যা হ্রাসের পক্ষে তর্ক করার ভিত্তিতে জনসাধারণের ক্ষুধা বা এমনকি বিলুপ্তির ঝুঁকি অতিক্রমকারী জনসংখ্যার সংশোধনীর

বিশ্ব জনসংখ্যা v3

পক্ষে মতামতগুলি উদ্ধৃত করে।

পল এরলিক দ্বারা সমর্থিত, অত্যধিক জনসংখ্যার আরেকটি সংজ্ঞা, জনসংখ্যা এমন একটি পরিস্থিতি যা নবায়নযোগ্য সম্পদের হ্রাস প্রক্রিয়া শুরু করে।এই সংজ্ঞা অনুসারে, জীবনধারা পরিবর্তনের মাধ্যমে জনসংখ্যার যে কোনও হ্রাস ছাড়াই ,জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রনে আনা যাবে।[২][৩][৪]

বিজ্ঞানীরা পরামর্শ দিয়েছেন যে পরিবেশে সামগ্রিক মানুষের প্রভাব, অত্যধিক জনসংখ্যা, অত্যধিক সংকোচনের, দূষণ, এবং প্রযুক্তির বিস্তারের কারণে, গ্রহটি একটি নতুন ভূতাত্ত্বিক যুগে পরিনত হচ্অ্যাছে যা এন্থ্রোপোসিন হিসাবে পরিচিত ।[৫][৬][৭]

বর্তমান জনসংখ্যা গতিবিধি, এবং উদ্বেগের কারণ[সম্পাদনা]

১৯ জুলাই, ২০১৯ সাল নাগাদ বিশ্বের মানুষের জনসংখ্যা ৭.৭২ বিলিয়ন [৮]। অথবা, ৭,৬২২,১০৬,০৬৪ মে ১৪, ২০১৮ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সেন্সাস ব্যুরো একই তারিখে ৭,৪৭২,৯৮৫,২৬৯ গণনা করে[৯] এবং জাতিসংঘের হিসাব মতে ৭ বিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে[১০][১১][১২]। এমতাবস্থায় , বর্তমান প্রেক্ষিতে পৃথিবীর ধারন ক্ষমতা ৪ থেকে ১৬ বিলিয়ন মধ্যে অনুমান করা হচ্ছে। এসব অনুমানের উপর ভিত্তি করে ধারনা করা হচ্ছে ,অতিরিক্ত জনসংখ্যা বৃদ্ধি শুরু হচ্ছে বা হয়ে গেছে।

মানুষের জনসংখ্যার দ্রুত বৃদ্ধি সম্প্রতি উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে। ২040[১৩][১৪] থেকে ২050[১৫] সালের মধ্যে জনসংখ্যা 8 থেকে ১) ১০.৫ বিলিয়নের মধ্যে পৌঁছাবে বলে আশা করা হচ্ছে।২017 সালে জাতিসংঘ মাঝামাঝি ধরনের গনণা করে, ২০৫০ সালে ৯.৮ বিলিয়ন এবং ২১০০ সালে 11.2 বিলিয়ন হতে পারে।[১৬]

হানস রোজলিংয়ের এর মতে, জনসংখ্যা শুধু "বেড়ে উঠছে" নয়, বরং বৃদ্ধির অনুপাত তার শিখরে পৌঁছেছে এবং মোট জনসংখ্যা এখন অনেক ধীরে ধীরে বাড়ছে[১৭]।২০১৭ সালের জাতিসংঘের জনসংখ্যা পূর্বাভাস অনুযায়ি বিশ্বব্যাপী "উচ্চ জন্মহার " এবং ভবিষ্যদ্বাণী করে যে ২০৩০ সাল নাগাদ বিশ্বের দুই তৃতীয়াংশ জনসংখ্যা, উচ্চ প্রজননশীল দেশগুলিতে বসবাস করবে[১৮]।এবং বিশ্ব জনসংখ্যা ২১০০ সাল নাগাদ ১০-১২ বিলিয়ন মানুষের মধ্যে স্থিতিশীল করা হবে[১৯]

গত তিন শতাব্দীতে বিশ্ব জনসংখ্যার দ্রুত বর্ধনশীলতার কারনে উদ্বঙ্গের প্রধান কারন হচ্ছে যে গ্রহটি ভবিষ্যতে বা এমনকি তার বাসিন্দাদের বর্তমান অবস্থা বজায় রাখতে পারবে কিনা। ইন্টার এক্যাডেমি প্যানেল স্টেটমেন্ট অন পপুলেশন গ্রোথ, ১৯৯৪ সালের দিকে, উল্লেখ করেছে যে পরিবেশগত কার্বন ডাই অক্সাইড, গ্লোবাল ওয়ার্মিং, এবং দূষণের ক্রমবর্ধমান মাত্রাগুলি অতিরিক্ত জনসংখ্যার জন্য বৃদ্ধি পেয়েছে[২০]

অতিরিক্ত জনসংখ্যার সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য সমস্যাগুলির মধ্যে বিশুদ্ধ জল এবং খাদ্য, অনাহার ও অপুষ্টি, প্রাকৃতিক সম্পদের পুনরুদ্ধারের হারের চেয়ে প্রাকৃতিক সম্পদ (যেমন জীবাশ্ম জ্বালানি) দ্রুততর ক্ষয় হওয়া ,জীবনযাত্রার অবস্থার অবনতি এবং সম্পদগুলির চাহিদা বৃদ্ধি। ধনী কিন্তু অত্যন্ত জনবহুল দেশ বৃটেন ,বিদেশ থেকে খাদ্য আমদানির উপর নির্ভর করে[২১]।বিশ্ব যুদ্ধের সময় খারাপ , যখন "জয়ের জন্য খনন" এবং খাদ্যশস্যের খাদ্যের পর্যাপ্ততা থাকা সত্ত্বেও, ব্রিটেনকে আমদানির পথগুলি নিরাপদ করার জন্য যুদ্ধ করতে হয়েছিল। তবে অনেকেই বিশ্বাস করেন যে, বিশেষ করে ধনী দেশগুলির দ্বারা সৃষ্ট বর্জ্য এবং অতিরিক্ত খরচ, অত্যধিক জনসংখ্যার চেয়ে পরিবেশে আরও বেশি চাপ সৃষ্টি করছে[২২]

দেশ অনুযায়ী জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গ কিলোমিটার।(দেখুন List of countries by population density.)

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তালিকা
তথ্যচিত্র এবং ছায়াছবি
কথাশিল্প
  • অতিরিক্ত জনসংখ্যা কল্পনা (বিভাগ)
অন্যান্য
  • গৃহপালিত পোষা প্রানির জনসংখ্যা বৃদ্ধি
  • রাজনৈতিক জনসংখ্যা

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Global food crisis looms as climate change and population growth strip fertile land ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৯ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে". Guardian.co.uk (2007-08-31).
  2. Ehrlich, Paul R. Ehrlich & Anne H. (১৯৯০)। The population explosion। London: Hutchinson। পৃষ্ঠা 39–40। আইএসবিএন 978-0091745516। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪When is an area overpopulated? When its population cannot be maintained without rapidly depleting nonrenewable resources [39] (or converting renewable resources into nonrenewable ones) and without decreasing the capacity of the environment to support the population. In short, if the long-term carrying capacity of an area is clearly being degraded by its current human occupants, that area is overpopulated. 
  3. Ehrlich, Paul R; Ehrlich, Anne H (২০০৪), One with Nineveh: Politics, Consumption, and the Human Future, Island Press/Shearwater Books, পৃষ্ঠা 76–180, 256 
  4. Ehrlich, Paul R; Ehrlich, Anne H (১৯৯১), Healing the Planet: Strategies for Resolving the Environmental Crisis, Addison-Wesley Books, পৃষ্ঠা 6–8, 12, 75, 96, 241 
  5. "Coping with the Anthropocene"Phys.org। ১৭ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ 
  6. Vaughan, Adam (৭ জানুয়ারি ২০১৬)। "Human impact has pushed Earth into the Anthropocene, scientists say"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ 
  7. Dimick, Dennis (২১ সেপ্টেম্বর ২০১৪)। "As World's Population Booms, Will Its Resources Be Enough for Us?"National Geographic। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ 
  8. "World Population Clock: 7.7 Billion People (2019) - Worldometers"www.worldometers.info (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২৮ 
  9. "U.S. and World Population Clock"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৩-০৫ 
  10. "Population seven billion: UN sets out challenges"। BBC। ২০১১-১০-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১০-২৭ 
  11. Coleman, Jasmine (২০১১-১০-৩১)। "World's 'seven billionth baby' is born"The Guardian। London। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১০-৩১ 
  12. "7 billion people is a 'serious challenge'" 
  13. "World Population Clock – Worldometers"। Worldometers.info। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১০ 
  14. "International Data Base (IDB) – World Population"। Census.gov। ২৮ জুন ২০১০। ৭ জুলাই ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১০ 
  15. "World Population Prospects:The 2008 Revision" (PDF)Population Division of the Department of Economic and Social Affairs of the United Nations Secretariat। জুন ২০০৯। 
  16. "World population projected to reach 9.8 billion in 2050, and 11.2 billion in 2100"Population Division of the Department of Economic and Social Affairs of the United Nations Secretariat। জুন ২০১৭। 
  17. Rosling, Hans (২০১৮)। Factfulness: Ten Reasons We're Wrong About the World – and Why Things Are Better Than You Think। Sceptre। আইএসবিএন 9781473637467 
  18. "The end of high fertility is near" (PDF)population.un.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১২-০৯ 
  19. "World Population Prospects" (PDF)population.un.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১২-০৯ 
  20. "joint statement by fifty-eight of the world's scientific academies"। ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  21. WRIGHT, OLIVER। "Britain's food self-sufficiency at risk from reliance on overseas imports of fruit and vegetables that could be produced at home"independent.co.uk। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৪ 
  22. Fred Pearce (২০০৯-০৪-১৩)। "Consumption Dwarfs Population as Main Environmental Threat"। Yale University। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১১-১২ 
  23. Urbanization: An Environmental Force to Be Reckoned With