হাবিব ওয়াহিদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হাবিব ওয়াহিদ
Habib's picture for wikipedia.JPG
জাতীয়তা বাংলাদেশী
বংশোদ্ভূত বাঙালি
নাগরিকত্ব  বাংলাদেশ
যে জন্য পরিচিত সংগীত শিল্পী
ধর্ম মুসলিম

হাবিব ওয়াহিদ, যিনি হাবিব নামেই শ্রোতাদের কাছে বেশি পরিচিত। তিনি একজন বাংলাদেশী সুরকার এবং সঙ্গীতশিল্পী। তিনি বাংলা লোকগীতির ফিউশনের সাথে টেকনো এবং শহুরে বিটের সমন্বয়ের জন্যে সমধিক পরিচিত। স্বল্প পরিচিত লোকগীতিকে আরো ভাল সুর দিয়ে, রিমিক্স করে সাধারণ শ্রোতাদের কাছে জনপ্রিয় গ্রহণযোগ্য করে তুলছেন তিনি। তিনি মূলত হাসন রাজা, শাহ আবদুল করিম, আমির উদ্দীন প্রমূখ মরমী সঙ্গীত শিল্পীদের গানকে কিছুটা পরিবর্তনের মাধ্যমে জনপ্রিয় করে তুলেছেন। এ কারণে অনেকের কাছেই তিনি যেমন সমালোচিত হয়েছেন, ঠিক তেমনি তরুণ প্রজন্মের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে খ্যাত হয়েছেন।

জীবন[সম্পাদনা]

হাবিবের পিতা ফেরদৌস ওয়াহিদ আধুনিক বাংলা পপ সঙ্গীতের পথদ্রষ্টা ছিলেন। ১৯৭০ ও ১৯৮০’র দশকে ফেরদৌস ওয়াহিদ বাংলা পপ সঙ্গীতকে সম্মানজনক স্থানে নিয়ে গিয়েছিলেন। হাবিব তাই ছোটবেলাতেই তার পিতার কী-বোর্ড থেকে সুর করতে শিখেন। পরে তিনি স্কুল অব অডিও ইঞ্জিনিয়ারিং, (লন্ডনে) অডিও ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অধ্যয়ন করেন। এসময় তিনি এশিয়ান আন্ডারগ্রাউন্ডের নিতিনের সাথে কাজ করার সুযোগ পান। হাবিব এর প্রথম সন্তান আলীম ওয়াহিদ ২০১২ সালের ২৪ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করে। [১]

সঙ্গীত ভুবনে আবির্ভাব[সম্পাদনা]

হাবিবের প্রথম লোকসঙ্গীতের রিমিক্স অ্যালবাম কৃষ্ণ। লন্ডনে ছাত্রাবস্থায় থাকাকালীন সময়ে এটি প্রকাশিত হয়। এ অ্যালবামের কনসেপ্ট ও সুর অনেক পূর্বেই তৈরি করেছিলেন এবং শুধু একজন গায়কের জন্য অপেক্ষা করছিলেন বলে জানা যায়। লন্ডনে একজন সিলেটী রেস্তোঁরার মালিক কায়া ছিলেন একজন অপরিনত গায়ক, যার মত কন্ঠই হাবিবের দরকার ছিল। তাদের মিলিত গানগুলো লন্ডনে প্রচণ্ড জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল। যখন এই অ্যালবাম কৃষ্ণ শিরোনামে প্রথমবারের মত বাংলাদেশে মুক্তি পায় তখন সেটি অসম্ভব জনপ্রিয়তা অর্জন করে। এতে ছিল পুরোনো স্বাদের লোকসঙ্গীত এবং পাশ্চাত্যের ইলেকট্রনিকা এর মিশ্রণ যা বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো প্রচলিত হয়।

প্রকাশিত অ্যালবামসমূহ[সম্পাদনা]

এরপর থেকে হাবিব আরও দু’টি অ্যালবাম মুক্তি দেন - মায়া (২০০৪) এবং ময়না গো (২০০৫)। দু’টোই বিক্রির তালিকায় একনম্বর ছিল। হাবিব এই অ্যালবামগুলোতে নতুন কন্ঠের আগমন ঘটান। কায়া’র পাশাপাশি এতে হেলাল’কে আনেন যার কন্ঠে অনেক অনুভুতি ছিল। জুলি, কনিকা, নির্ঝর ইত্যাদি নতুন মুখ ময়না গো অ্যালবামে হাবিবের সাথে কাজ করেন। হাবিব নিজেও ময়না গো অ্যালবামের মাধ্যমে গায়ক হিসেবে নিজেকে আত্মপ্রকাশ করেন। হাবিবের পিতা ফেরদৌস ওয়াহিদমিলন মাহমুদ ময়না গো অ্যালবামে গান গেয়েছেন। হাবিবের গানগুলোতে হিপহপ, রেপ, ইত্যাদিতে কন্ঠ দেন কুনলে। হাবিব নিজেকে অন্যতম জনপ্রিয় তরুণ সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

ময়না গো[সম্পাদনা]

ময়না গো হাবিব ওয়াহিদের ২০০৫ সালে প্রকাশিত একটি বাংলা পপ সঙ্গীত অ্যালবাম।

গানের বিবরণ[সম্পাদনা]

গানের নাম সময় শিল্পীর নাম
ময়না গো ৪.১৩ জুলি
আমি এক পাহারাদার ৫.১৭ ফেরদৌস ওয়াহিদ
দেশলাই ৫.০০ নির্ঝর
দিন গেল ৫.৪১ হাবিব
তারে ভাবলে কি আর ৫.৩০ মিলন মাহমুদ
এসো বৃষ্টি নামাই ৪.৫১ হাবিব
যা রে ৪.৩৮ জুলি
কবিতায় ৬.০৯ কনিকা
ময়না গো (রিমিক্স) ৩.৪৭ জুলি
বাংলা লিঙ্ক থীম ১.০০ যন্ত্র (হাবিব)
শোনো
বলছি তোমাকে

মায়া[সম্পাদনা]

মায়া হাবিব ওয়াহিদের ২০০৪ সালে প্রকাশিত সঙ্গীত অ্যালবাম।

গানের বিবরণ[সম্পাদনা]

  • আসি বলে গেল বন্ধু
  • বাউলা
  • বন্ধুয়া
  • দয়া
  • কানাই
  • কুহু সুরে মনের আগুন
  • লোকে বলে
  • মায়া
  • মন মজায়া
  • অচিন দেশের
  • সোনা বন্ধে
  • Where's My Baby Gone.

কৃষ্ণ[সম্পাদনা]

কৃষ্ণ হাবিব ওয়াহিদের ২০০3 সালে প্রকাশিত সঙ্গীত অ্যালবাম।

গানের বিবরণ[সম্পাদনা]

  • কৃষ্ণ - কায়া
  • দয়াল বাবা - কায়া
  • আমি কূল হারা কলঙ্কিনী - কায়া
  • কেমনে ভুলিব আমি - কায়া
  • গান গাই আমার - কায়া
  • কালা - কায়া
  • আজ পাশা - কায়া
  • দিন গেলে দিন - কায়া
  • কৃষ্ণ (রিমিক্স) - কায়া
  • আজ পাশা (Instrumental)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Habib Wahid"। short-bio। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]