হাওয়ার্ড জ্যাকবসন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হাওয়ার্ড জ্যাকবসন
জীবিকা ঔপন্যাসিক, কলমচী, উপস্থাপক
জাতীয়তা ব্রিটিশ
সময়কাল ১৯৮৩–বর্তমান
ধরণ রম্যরচনা
বিষয় Jewishness
উল্লেখযোগ্য পুরস্কার ম্যান বুকার পুরস্কার (২০১০)

হাওয়ার্ড জ্যাকবসন (ইংরেজি: Howard Jacobson) একজন ব্রিটিশ লেখক, কথাসাহিত্যিক, কলমচী এবং ব্রডকাস্টার যিনি বিশেষভাবে রম্যরচনার জন্য প্রসিদ্ধ। ২০১০ খ্রিস্টাব্দে তাঁকে দ্য ফিঙ্কলার কোশ্চেন শিরোনামীয় গ্রন্থের জন্য ম্যান বুকার পুরস্কার প্রদান করা হয়।[১] তাঁর কাহিনীগুলোর মূল প্রতিপাদ্য ইহুদী হওয়ার সুবিধা ও বিড়ম্বনা। এদিক দিয়ে ফিলিপ রথের সঙ্গে তাঁর বেশ সাযুজ্য আছে।[২] তবে নিজেকে তিনি ইহুদি জেইন অস্টিন ভাবতে পছন্দ করেন।

জীবন[সম্পাদনা]

তাঁর জন্ম ১৯৪২ খ্রিস্টাব্দে ২৫ আগস্ট ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টারে। হোয়াইটফিল্ডের স্ট্যান্ড গ্রামার স্কুলে পড়াশোনা করেন তিনি। পরবর্তী সময়ে ক্যামব্রিজের ডাউনিং কলেজে ইংরেজি ভাষার ওপর পড়াশোনা করেন। তিনি ইউনিভার্সিটি অব সিডনিতে ছাত্র পড়িয়েছেন প্রভাষক হিসেবে। এরপর ইংল্যান্ডে ফিরে ক্যামব্রিজের সেলউইন কলেজে শিক্ষকতা করেন। ১৯৭০-এর দশকে তিনি উইলবারহ্যাম্পটনে একটি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও শিক্ষকতা করেছেন।[৩]

লেখালিখি[সম্পাদনা]

তাঁর প্রথম উপন্যাস কামিং ফ্রম বিহাইন্ড প্রকাশিত হয় ১৯৮৩ খ্রিস্টাব্দে। এ উপন্যাসিটি তিনি লিখেছিলেন ওলভারহাম্পটনে কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করার সময়। এই প্রতিষ্ঠানের ফুটবল প্রশিক্ষণের একটি বাস্তব ঘটনা নিয়ে এ উপন্যাসের কাহিনীভাগ গঠিত। এটি রম্য-সরাত্মক আলেখ্য। ইন দ্য ল্যান্ড অব ওজ প্রচ্ছদনামে একটি ভ্রমণ কাহিনী প্রবাশ করেন ১৯৮৭ খ্রিস্টাব্দে। ১৯৮৭ খ্রিস্টাব্দে। সিডনিতে অবস্থারকালীন সময়কে ঘিরে এটি রচিত। পরবর্তীতে ১৯৯৮ খ্রিস্টাব্দ থেকে প্রকাশিত তাঁর পাঁচটি উপন্যাসই হাস্যরসাত্মক। নারী-পুরুষের সম্পর্ক আর মধ্যযুগ থেকে বিংশ শতাব্দী পর্যন্ত ইংল্যান্ডে ইহুদিদের জীবন-অভিজ্ঞতা এসব রচনার আখ্যানে অবধৃত। ১৯৯৯ খ্রিস্টাব্দে এক স্বল্পবয়স্ক টেবিলটেনিস চ্যাম্পিয়নকে নিয়ে লিখিত হয় উপন্যাস দ্য মাইটি ওয়ালজার। ১৯৫০-এর দশকের ম্যানচেস্টার এ উপিন্যাসের পরিপ্রেক্ষিত। লেখক নিজেও পিংপং খেলার ভক্ত। ২০০২ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত হয় হুজ সরি নাউ? এবং ২০০৬ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত হয় কালোকি নাইটস। লেখকের মতে, "এ যাবৎকালে যে কোনো স্থানে, যে কালো লেখার চেয়ে কালোকি নাইটস পূর্ণাঙ্গ অর্থে ইহুদি উপন্যাস।" জ্যাকবসন 'দ্য ইনডিপেনডেন্ট' সংবাদপত্রে মুক্ত লেখক হিসেবে সাপ্তাহিক কলামও লেখেন।[৪]

পুরস্কার ও স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

জ্যাকবসন বুকার বিজয়ী ঔপন্যাসিক। দ্য ফিঙ্কলার কোশ্চেন ব্রিটিশ ইহুদীর পরিচয় সংকট নিয়ে রিখিত একটি রম্যরচনা। এটি প্রথম রম্যরচনা গ্রন্থ যা ম্যান বুকার পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। প্রবর্তনের ৪২ বৎসরে[৫] কোন রম্যরচনা এই পুরস্কার লাভ করেনি।[৬] ১৯৯৯ খ্রিস্টাব্দে রচিত উপন্যাস দ্য মাইটি ওয়ালজার হাস্যরসাত্মক লেখার স্বীকৃতি হিসেবে "বলিঙ্কার এভরিম্যান ওডহাউজ" পুরস্কার লাভ করে।[৪]

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

কথাসাহিত্য[সম্পাদনা]

  • Coming From Behind, Chatto & Windus, 1983
  • Peeping Tom, Chatto & Windus, 1984
  • Redback, Bantam, 1986
  • The Very Model of a Man, Viking, 1992
  • No More Mister Nice Guy, Cape, 1998
  • The Mighty Walzer, Cape, 1999
  • Who's Sorry Now?, Cape, 2002
  • The Making of Henry, Cape, 2004
  • Kalooki Nights, Cape, 2006
  • The Act of Love, Cape, 2008
  • The Finkler Question, Bloomsbury, 2010 (Winner of the Man Booker Prize, 2010) ISBN 978-1-4088-0910-5

প্রবন্ধ-গবেষণা[সম্পাদনা]

  • Shakespeare's Magnanimity: Four Tragic Heroes, Their Friends and Families (co-author with Wilbur Sanders), Chatto & Windus, 1978
  • In the Land of Oz, Hamish Hamilton, 1987
  • Roots Schmoots: Journeys Among Jews, Viking, 1993
  • Seriously Funny: From the Ridiculous to the Sublime, Viking, 1997

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. দ্য হিন্দু পত্রিকায় প্রকাশিত নিবন্ধ
  2. ফিন্যান্সিয়াল টাইমস্‌ পত্রিকার নিবন্ধ
  3. কন্টেম্পোরারি রাইটার্স-এ প্রকাশিত নিবন্ধ
  4. ৪.০ ৪.১ ২২ অক্টোবর ২০১০ দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকায় প্রকাশিত নিবন্ধ
  5. ১৯৬৯ খ্রিস্টাব্দে কমনওয়েলথ দেশ ও আয়ারল্যান্ডের ইংরেজভাষী ঔপন্যাসিকদের জন্য এই সাহিত্য পুরস্কার প্রবর্তন করা হয়। শুরুতে এর নাম ছিল বুকার পুরস্কার
  6. বিযনেস উইক-এ প্রকাশিত নিবন্ধ

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পুরস্কার
পূর্বসূরী
হিলারি ম্যান্টেল
ম্যান বুকার পুরস্কার‎ বিজয়ী
২০১০


উত্তরসূরী
জুলিয়ান বার্নস