সুন্দরবন জাতীয় উদ্যান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সুন্দরবন জাতীয় উদ্যান
Sundarban mangrove.jpg
সুন্দরবনে ম্যানগ্রোভ গাছ
মানচিত্রে সুন্দরবন জাতীয় উদ্যান এর অবস্থান দেখাচ্ছে-এ অবস্থিত
ভারতের পশ্চিমবঙ্গ এর অবস্থান
অবস্থান দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
নিকটবর্তী শহর কলকাতা
স্থানাঙ্ক ২১°৫৬′৪২″ উত্তর ৮৮°৫৩′৪৫″ পূর্ব / ২১.৯৪৫০০° উত্তর ৮৮.৮৯৫৮৩° পূর্ব / 21.94500; 88.89583স্থানাঙ্ক: ২১°৫৬′৪২″ উত্তর ৮৮°৫৩′৪৫″ পূর্ব / ২১.৯৪৫০০° উত্তর ৮৮.৮৯৫৮৩° পূর্ব / 21.94500; 88.89583
আয়তন ১,৩৩০.১২ কিমি (৩,২৮,৬৮০ একর)
স্থাপিত ১৯৮৪
পরিচালকবর্গ ভারত সরকার
ধরন: প্রাকৃতিক
মানদণ্ড: ix, x
মনোনীত: ১৯৮৭ (১১তম সেশন)
সূত্র নং. 452
রাষ্ট্রীয় দল: ভারত
অঞ্চল: এশিয়া-প্যাসিফিক

সুন্দরবন জাতীয় উদ্যান ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের একটি জাতীয় উদ্যান, ব্যাঘ্র প্রকল্পবায়োস্ফিয়ার রিজার্ভ। বৃহত্তর সুন্দরবন সমুদ্র উপকূলবর্তী নোনা পরিবেশের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বনভূমি হিসেবে অখন্ড বন যা বিশ্বে সর্ববৃহৎ[১]। অববাহিকার সমুদ্রমূখী সীমানা এই বনভূমি গঙ্গাব্রহ্মপুত্রের মোহনায় অবস্থিত এবং বাংলাদেশভারতের পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে বিস্তৃত । ১০,০০০ বর্গ কিলোমিটার জুড়ে গড়ে ওঠা সুন্দরবনের প্রায় ৬,০০০ বর্গ কিলোমিটার রয়েছে বাংলাদেশে[২]। সুন্দরবন ১৯৯৭ সালে ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে স্বীকৃতি পায়। এর বাংলাদেশ ও ভারতীয় অংশ একই নিরবচ্ছিন্ন ভূমিরূপের অংশ হলেও ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের সূচিতে ভিন্ন ভিন্ন নামে সূচিবদ্ধ হয়েছে যথাক্রমে সুন্দরবন ও সুন্দরবন জাতীয় উদ্যান নামে। সুন্দরবনকে জালের মত জড়িয়ে রয়েছে সামুদ্রিক স্রোতধারা, কাদা চর এবং ম্যানগ্রোভ বনভূমির লবণাক্ততাসহ ছোট ছোট দ্বীপ । বনভূমিটি, স্বনামে বিখ্যাত রয়েল বেঙ্গল টাইগার ছাড়াও নানান ধরণের পাখি, চিত্রা হরিণ, কুমির ও সাপ সহ অসংখ্য প্রজাতির প্রাণীর আবাসস্থল হিসেবে পরিচিত। জরিপ মোতাবেক ৫০০ বাঘ ও ৩০,০০০ চিত্রা হরিণ রয়েছে এখন সুন্দরবন এলাকায়। ১৯৯২ সালের ২১শে মে সুন্দরবন রামসার স্থান হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Pasha, Mostafa Kamal; Siddiqui, Neaz Ahmad (2003), "Sundarbans", in Islam, Sirajul, Banglapedia: national encyclopedia of Bangladesh, Dhaka: Asiatic Society of Bangladesh, আইএসবিএন 9843205766 
  2. Sundarbans Tiger Project

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]