সুইজারল্যান্ডের অর্থনীতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সুইজারল্যান্ডের অর্থনীতি
মুদ্রা সুইস ফ্রাঁ (CHF)
অর্থবছর পঞ্জিকা বৎসর
বাণিজ্য সংস্থা OECD, WTO, EFTA, JEC
পরিসংখ্যান
জিডিপি র‌্যাঙ্কিং () 36th [১]
জিডিপি (২০০৭) ৫১২.১ সুইস ফ্রাঁ, ৪২৬.৭৫ মার্কিন ডলার current, পারচেজিং পাওয়ার প্যারেটি ৩০৯.৮ মার্কিন ডলার
  বিলিয়ন [২]
জিডিপি বৃদ্ধির হার (২০০৭) ৫.২% nominal, ৩.৩% প্রকৃত
মাথাপিছু জিডিপি (২০০৭) ৬৭,৮২৩ সুইস ফ্রাঁ, ৫৬,৫১৯ মার্কিন ডলার, পারচেজিং পাওয়ার প্যারেটি ৪১,০২৪ মার্কিন ডলার
খাতওয়ারী জিডিপি (২০০৭) কৃষি(১.১%), শিল্প (২২.৫%), নির্মাণ (৫.৫%), সেবা-পরিষেবা (৭০.৯%)
জিডিপি কাঠামো (২০০৭) বেসাকারী ব্যয় - ৫৭.৮%, সরকারী ব্যয় ১০.৮%, বিনিয়োগ ২২.২%, রপ্তানী ৫৫.৯%, আমদানী ৪৬.৭%।
মুদ্রাস্ফীতি হার ২০০৭ 0.৭%, জুলাই ২০০৮ ৩.১%
দারিদ্যসীমার নিচে জনসংখ্যা (২০০৫) ৩.৩%[৩]
শ্রমশক্তি (২০০৪) 3.8mio [৪]
পেশাওয়ারী শ্রমশক্তি (২০০২) কৃষি-৪.৬%, শিল্প-২৬.৩%, সেবা-পরিষেবা-৬৯.১%।
বেকারত্বের হার ২০০৭ ২.৫%, জুলাই ২০০৮ ২.৩%
প্রধান শিল্প ভারী যন্ত্রপাতী, রাসায়নিক, ঘড়ি, বস্ত্র, precision instruments
বাণিজ্য পার্টনার
মোট রপ্তানি 2007 $ ২৩৮।৫ বিলিয়ন(55.9% of GDP)
প্রধান অংশীদার (২০০৭) জার্মানি ২০.৮%, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৯.৩%, ইতালী ৮.৯%, ফ্রান্স ৮.৪%, যুক্তরাজ্ ৪.৮%
মোট আমদানি ২০০৭ ১৯৯.২ বিলিয়ন ডলার (জিডিপি-এর ৪৬.৭%)
প্রধান অংশীদার (২০০৭) Germany 33.9%, Italy 11.2%, France 9,71%, US 5.1%, Netherlands 4.8%, Austria 4.4%, UK 3.9%,
Current account balance $57.0 billion (13.3% of GDP) [৫]
Public Finances
Public Debt (2007) 43.7% of GDP [৬]
External Debt (2005 est) $NA
রাজস্ব (২০০৭) 37.6% of GDP [৭]
Expenses (2007) 35.5% of GDP [৮]
অর্থনৈতিক সহায়তা (দাপ্তরিক উন্নয়ন সহায়তা) (১৯৯৭) ১.১ বিলিয়ন ডলার

সুইজারল্যান্ডের অর্থনীতি পৃথিবীর অন্যতম স্থিতিশীল অর্থনীতি। দীর্ঘমেয়াদি মুদ্রা নিরাপত্তা ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা দেশটির অর্থনৈতিক নীতির অন্যতম প্রধান বৈশিষ্ট্য, যা সুইজারল্যান্ডকে বৈদেশিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে একটী আকর্ষণীয় স্থান হিসেবে বিনিয়োগকারীদের পরিচিত করে তুলেছে। বৈডেশিক বিনিয়োগের উপর সুইজারল্যান্ডের অর্থনীতির নির্ভরতা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। শিল্প ও বাণিজ্য সুইজারল্যান্ডের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি। বিশ্বের সর্বোচ্চ মাথা-পিছু আয়ের দেশগুলোর মধ্যে সুইজারল্যান্ড অন্যতম। সুইজারল্যান্ডে বেকারত্বের হার কম। এছাড়া দেশটির সেবা খাত ক্রমেই অর্থনীতির একটি বড় অংশ হিসেবে আবির্ভুত হচ্ছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "CIA GDP ranking"। সংগৃহীত 2008-01-09 
  2. "Gross domestic product - estimates"। State Secretariat for Economic Affairs SECO। 2008-07-03। সংগৃহীত 2008-07-04 
  3. see poverty in Switzerland
  4. CIA Factbook Swiss Economy
  5. "Monthly Statistical Bulletin July 2008"। Swiss National Bank। June 2008। সংগৃহীত 2008-07-04 
  6. "Monthly Statistical Bulletin July 2008"। Swiss National Bank। July 2008। সংগৃহীত 2008-07-17 
  7. "Monthly Statistical Bulletin July 2008"। Swiss National Bank। July 2008। সংগৃহীত 2008-07-17 
  8. "Monthly Statistical Bulletin July 2008"। Swiss National Bank। July 2008। সংগৃহীত 2008-07-17 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]