শ্রবণসীমা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

শ্রবণসীমা (ইংরেজি: Hearing range) বলতে মানুষ ও অন্য কোন প্রাণীর শ্রবণেন্দ্রিয় যে কম্পাংকসীমার শব্দ শুনতে সক্ষম, তাকে বোঝায়। মানুষের শ্রবণসীমা ১৬ হার্জ থেকে ১৬,৩৮৪ হার্জ কম্পাংক পর্যন্ত বিস্তৃত, তবে ব্যক্তিভেদে এর ব্যাপক বৈচিত্র্য দেখা যায়।

সাধারণ সাউন্ড সিস্টেম স্পিকারগুলিতে উৎপন্ন শব্দের কম্পাংক সীমা ২০ হার্জ থেকে ২০ কিলোহার্জ।

নিচের সারণিতে বিভিন্ন প্রাণীর শ্রবণসীমা দেওয়া হল। [১]

প্রাণী সীমা (হার্জ)
কচ্ছপ ২০-১,০০০
গোল্ডফিশ ১০০-২,০০০
ব্যাঙ ১০০-৩,০০০
কবুতর ২০০-১০,০০০
চড়ুই ২৫০-১২,০০০
মানুষ ১৬-১৬,০০০ (আসন্ন)
শিম্পাঞ্জি ১০০-২০,০০০
খরগোশ ৩০০-৪৫,০০০
কুকুর ৫০-৪৬,০০০
বিড়াল ৩০-৫০,০০০
গিনিপিগ ১৫০-৫০,০০০
বড় ইঁদুর ১,০০০-৬০,০০০
ছোট ইঁদুর ১,০০০-১,০০,০০০
বাদুড় ৩,০০০-১,২০,০০০
ডলফিন ১,০০০-১,৩০,০০

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. R. Fay, Hearing in Vertebrates. A Psychophysics Databook. Hill-Fay Associates, Winnetka, Illinois, 1988.