শয়তানী ধর্মীয় নির্যাতন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
যিশু বিরুদ্ধে রক্ত অপবিত্র করার অভিযোগ হলো ঐতিহাসিকভাবে নৈতিক আতঙ্ক সৃষ্টির পূর্ব সূচনা

শয়তানী ধর্মীয় নির্যাতন মানে একধরনের নৈতিক আতঙ্ক জাগানো মানুষের মাঝে যা ৮০-এর দশকের দিকে আমেরিকাতে শুরু হয়, পরে তা সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে এবং পর্যায়ক্রমে সারা বিশ্বে । তবে ৯০-এর দশকের শেষের দিকে তা একেবারে কমে যায়। শয়তানী ধর্মীয় নির্যাতন জাতীয় কর্মকান্ডে একজন মানুষকে শারীরিকভাবে এবং যৌন হয়রানি করা হয় গুপ্তবিদ্যা বা শয়তানের উপাসনার নামে।চূড়ান্ত মাত্রার সংজ্ঞায় বলা যায় এটা এক ধরনের ষড়যন্ত্র যেখানে সারা বিশ্বের অভিজাত পরিবারের সন্তানদের অপহরণ করা হয় এবনগ তাদের লালন করা হয় উৎসর্গ করার জন্য,পর্ণোগ্রাফি এবং পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করার জন্য।

আন্তর্জাতিক বিস্তার[সম্পাদনা]

১৯৮৭ সালে একটি সূচকের তালিকা প্রকাশিত হয় ক্যাথেরিন গোল্ড যেখানে তিনি বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরেন যে কিভাবে শয়তানী ধর্মীয় নির্যাতন করা হয়েছে ছোট বাচ্চাদের সাথে। [১] ৮০-এর দশকের শেষের দিকে সারা বিশ্বে এটা ছড়িয়ে পড়ে যেমন-স্ক্যান্ডিনেভিয়া, হল্যান্ড, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া,ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ডে। শয়তানী ধর্মীয় বিকৃতির প্রতি বিশ্বাস দ্রুত গড়ে ওঠে মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মধ্যেও যেখানে বিভিন্ন শিক্ষা সেমিনারের মাধ্যমে তারা বিশ্বাস করেন যে শয়তানী ধর্মের উপস্থিতি সম্পর্কে এবং এতে আক্রান্ত ব্যাক্তিদের অদ্ভুত হারানো স্মৃতিশক্তি সম্পর্কে। এখানে প্রমাণ হিসেবে হাজির করা হয় হেভি মেটাল ব্যান্ডের অ্যালবামের কাভার, রোগী কর্তৃক আঁকা ছবি এবং অঙ্গহানি করা পশুর ছবি প্রদর্শন করে। সেমিনারে রোগীরা তাদের অভিজ্ঞটা সম্পর্কে প্রশংসাপত্র দেন এবং উপস্থাপকরা তাদের স্মৃতিশক্তি উদ্ধার সম্পর্কে জোর দেন তাদের সুস্থ হওয়ার জন্য। [২]

  • ১৯৮৬ সালে সবচেয়ে বড় শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে অস্ট্রেলিয়াতে যেখানে শয়তানী ধর্মীয় নির্যাতন করা হয়।[৩]
  • ১৯৮৭ সালে ইংল্যান্ডে এ জাতীয় অনেক ঘটনা ঘটে । [৪]
  • ১৯৮৯ সালে স্যান্ডি গ্যালান্ড নামের একজন পুলিশ ডিটেক্টিভ এব্যাপারে সাক্ষাৎকার দেন [৫] এবং প্রায় একই সময়ে অনেক থেরাপিস্ট সারা ইংল্যান্ড ভ্রমণ করেন শয়তানী ধর্মীয় নির্যাতন সম্পর্কে তাদের মন্তব্য তুলে ধরতে। [৬]
  • ১৯৯২ সালে মার্টেন্সভাইল্লির শয়তানী যৌন গুজবের ভিত্তিতে একটা মামলা হয় , কিন্তু শিশুদের সাক্ষাৎকারে অনেক তারতম্য থাকার কারণে এই মামলা প্রমাণে অভাবে ১৯৯৫ সালে স্তিমিত হয়ে যায়।[৭]
  • শয়তানী ধর্মীয় নির্যাতনের একটা ঢেউ আছড়ে পড়ে নিউজিল্যান্ডে ১৯৯১ সালে এবং নরওয়েতে ১৯৯২ সালে। [৮]

ধর্মীয় নির্যাতন[সম্পাদনা]

শয়তানী ধর্মীয় নির্যাতনের সবচেয়ে খারাপ ব্যাপার হলো ধর্মীয় আচারে নির্যাতন। [৯] বলা হয়ে ৮০-এর দশকের শুরুর দিকে একটা শয়তান উপাসকের দল তাদের গোপন উপাসনার জন্য এসব করত এবং তাদের অপরাধী কর্মকান্ডের মধ্যে ছিল জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করা , মাদকবন্টন এবং পর্ণোগ্রাফি।এটাও ধারণা করা হয় যে শিশুদের যৌন নির্যাতন এবং অত্যাচার করা হত শয়তানের দাস হিসেবে সারা জীবন কাজ করার জন্য। [১০] আরো মনে করা হয় তারা জোর করে মানুষের মাংস খাওয়াতো, অকালে গর্ভপাত করে সন্তানকে ভক্ষণ করাতো,জোর করে রক্ত, মল এবং বীর্যকে ব্যবহার করাতো, মানুষকে শয়তানের উদ্দেশ্য বলি দিত এবং কিছু শয়তান পুলিশ অফিসারও ছিল যারা এসব কর্মকান্ডের প্রমাণকে লুকিয়ে ফেলতে সাহায্য করত এবং ক্রিস্টানদের কবরের পবিত্রতা নষ্ট করত। [১১] এসব ঘটনার কোন প্রমাণ পাওয়া যায় নাই।যেসব প্রমাণ হাজির করা হয়েছে সেগুলো হয়ত কোন ব্যাক্তির শিশুকালে স্মৃতি [১২], অত্যন্ত বিতর্কিত স্বীকারোক্তি বা কোন শিশুর প্রশংসাপত্র।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Gould, C (1987). "Satanic ritual abuse: child victims, adult survivors, system response". California Psychologist 22 (3): 9–14
  2. McNally, 2005, p. 244.
  3. Guillatt, R. (1996). Talk of the Devil: Repressed Memory & the Ritual Abuse Witch-Hunt. Melburne: The Text Publishing Company. pp. 31. ISBN 1-875847-29-4
  4. Jenkins P (1992). Intimate enemies: moral panics in contemporary Great Britain. New York: Aldine de Gruyter. pp. 151–76. ISBN 0-202-30435-3.
  5. Lafontaine, 1998, p. 165
  6. Nathan & Snedeker, 1995, p 230
  7. "Satanic Sex Scandal". CBC News. February 12, 2003http://www.cbc.ca/fifth/martin/scandal.html. Retrieved 2007-10-31
  8. Nathan & Snedeker, 1995, p. 231
  9. Edge, 2001, p. 362-363
  10. Victor, 1993, p. 3-4
  11. Frankfurter, 2006, p. 127
  12. Hammond, Brown & Scheflin, 1998, p. 55

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]