লিটল পেঙ্গুইন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লিটল পেঙ্গুইন
Eudyptula minor Bruny 1.jpg
রাত্রি বেলায় নিজ গর্তে, ব্রুনি দ্বীপপুঞ্জ, তাসমানিয়া, অস্ট্রেলিয়া
সংরক্ষণ অবস্থা
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Animalia
পর্ব: Chordata
শ্রেণী: Aves
বর্গ: Sphenisciformes
পরিবার: Spheniscidae
গণ: Eudyptula
প্রজাতি: E. minor
দ্বিপদী নাম
Eudyptula minor
(J.R.Forster, 1781)

লিটল পেঙ্গুইন (ইংরেজি: Little Penguin) (Eudyptula minor) হল একধরনের পেঙ্গুইন যারা পেঙ্গুইন জাতির মধ্যে আকার ও আয়তনে সবথেকে ছোটো। এরা সাধারণত ৩৩ সেমি (১৩ ইঞ্চি) পর্যন্ত দৈর্ঘ্য এবং ৪৩ সেমি (১৭ ইঞ্চি) লম্বা হয়।[২][৩] এদেরকে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের উপকূলীয় অঞ্চলে দেখতে পাওয়া যায়। এছাড়াও চিলিতে কিছু কিছু জায়গায় এদের দেখা গেছে।

লিটল পেঙ্গুইন ছাড়াও এদের নানা রকমের প্রচলিত নামে ডাকা হয় যেগুলো হল:

  • অস্ট্রেলিয়াতে এদের ফেয়ারি পেঙ্গুইন নামে ডাকা হয় তাদের সব থেকে ছোট আয়তনের জন্য,
  • নিউজিল্যান্ডে এদেরকে লিটল ব্লু পেঙ্গুইন বা ব্লু পেঙ্গুইন নামে ডাকা হয়, তাদের নীল রঙের শরীরের জন্য।
  • এছড়াও মায়োরি ভাষায় এদের করোরা নামে ডাকা হয়।

শ্রেণীবিন্যাস[সম্পাদনা]

লিটল পেঙ্গুইন নিয়ে প্রথম গবেষণা করেছিলেন জার্মান ন্যাচারালিস্ট জোহান রেইনহোল্ড ফস্টার ১৭৮১ সালে। এদের এখন পর্যন্ত বিভিন্ন উপজাতি আছে কিন্তু এর মধ্যে একটি সুনির্দিষ্ট শ্রেণীবিভাগ এখনও বিতর্কের ব্যাপার। এদের উপজাতিগুলো হল Eudyptula minor variabilis[৪] এবং Eudyptula minor chathamensis[৫] নিউজিল্যান্ডের মিউজিয়ামে সংরক্ষণ করা হয়েছে। হোয়াইট ফ্লিপার্ড পেঙ্গুইন আগে এই প্রজাতির উপজাতি বলে ধরা হত। অস্ট্রেলিয়া এবং ওটাগো দ্বীপপুঞ্জে এদেরকে স্বতন্ত্র প্রজাতি হিসেবে ধরা হয়।[৬] হোয়াইট ফ্লিপার্ড পেঙ্গুইন এদের থেকে অনেক আলাদা এবং এদেরকে স্বতন্ত্র প্রজাতি হিসেবে এখন ধরা হয়।

বর্ণনা[সম্পাদনা]

মেলবোর্ন চিড়িয়াখানাতে লিটল পেঙ্গুইন

সব পেঙ্গুইনদের মতোই এরাও উড়তে পারে না। এদের শরীর হয় মসৃণ, ছোটো ছোটো পাখনাগুলো চ্যাপ্টা এবং বলিষ্ঠ ফ্লিপারে পরিণত হয়েছে সামুদ্রিক আবহাওয়ার সাথে মানিয়ে নেওয়ার জন্য। এই পেঙ্গুইনরা, পেঙ্গুইন জাতির মধ্যে আকার ও আয়তনে সবথেকে ছোটো। এরা সাধারণত ৩৩ সেমি (১৩ ইঞ্চি) পর্যন্ত দৈর্ঘ্য এবং ৪৩ সেমি (১৭ ইঞ্চি) লম্বা হয়। এবং এদের ওজন হয় মাত্র ১.৫ কেজি (৩.৩ পাউন্ড)।[২][৩] এদের মাথা এবং ওপরের অংশ স্লেট নীল রঙের হয় এবং আস্তে আস্তে নীচের দিকে ফ্যাকাসে হতে থাকে গাল থেকে পেট পর্যন্ত। এদের ফ্লিপারগুলো নীল রঙের হয়। এদের ৩-৪ সেমি লম্বা কালো ঠোঁট আছে। চোখের পাতাগুলো রূপালি-বা নীলাভ ধূসর বা লালচে ম্লান রঙের হয় এবং এদের পা হয় গোলাপী রঙের এবং পায়ের পাতার নীচের অংশ কালো হয়। একজন অপ্রাপ্তবয়স্ক পেঙ্গুইনের ঠোঁট হয় ছোট এবং এদের গায়ের রঙ আরোও হাল্কা হয়।[৭]

অন্যান্য সামুদ্রিক পাখির মতোন এদেরও আয়ু অনেক। গড়ে তারা ৬.৫ বছর বাঁচতে পারে। এছড়াও কিছু কিছু ক্ষেত্রে গবেষণা করে দেখা গেছে যে এরা ২৫ বছরেরও বেশি বাঁচতে পারে কিছু কিছু সময়ে।[৮]


এই ফাইলটি শুনতে অসুবিধা? মিডিয়া সাহায্য দেখুন।

এই ফাইলটি শুনতে অসুবিধা? মিডিয়া সাহায্য দেখুন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. BirdLife International (2012)। "Eudyptula minor"IUCN Red List of Threatened Species. Version 2013.2International Union for Conservation of Nature। সংগৃহীত 26 November 2013 
  2. ২.০ ২.১ Grabski, Valerie (2009)। "Little Penguin - Penguin Project"। Penguin Sentinels/University of Washington। সংগৃহীত 2011-11-25 
  3. ৩.০ ৩.১ Dann, Peter। "Penguins: Little (Blue) Penguins - Eudyptula minor"। International Penguin Conservation Work Group। সংগৃহীত 2011-11-25 
  4. "Eudyptula minor variabilis; holotype"Collections Online। Museum of New Zealand Te Papa Tongarewa। সংগৃহীত 17 July 2010 
  5. "Eudyptula minor chathamensis; holotype"Collections Online। Museum of New Zealand Te Papa Tongarewa। সংগৃহীত 17 July 2010 
  6. Banks, Jonathan C.; Mitchell, Anthony D.; Waas, Joseph R. & Paterson, Adrian M. (2002): An unexpected pattern of molecular divergence within the blue penguin (Eudyptula minor) complex. Notornis 49(1): 29–38. PDF fulltext
  7. Williams (The Penguins) p. 230
  8. Dann, Peter (2005)। "Longevity in Little Penguins" (PDF)। Marine Ornithology (33): 71–72। সংগৃহীত 17 September 2012 

এছাড়াও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহির্সংযোগ[সম্পাদনা]