লিওনার্ড ব্লুমফিল্ড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

লিওনার্ড ব্লুমফিল্ড (১৮৮৭-১৯৪৯) একজন মার্কিন ভাষাবিজ্ঞানী। এডওয়ার্ড সাপির-এর সাথে তিনি বিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে প্রভাবশালী দুই মার্কিন ভাষাবিজ্ঞানীর একজন ছিলেন। তাঁর রচিত Language (১৯৩৩) গ্রন্থটি প্রকাশের পর প্রায় তিন দশক ধরে ভাষাবিজ্ঞানের আদর্শ পাঠ্যপুস্তক হিসেবে পরিগণিত হত। ব্লুমফিল্ড ও তাঁর খ্যাতিমান ছাত্রবৃন্দ বার্নার্ড ব্লক, জেলিগ হ্যারিস ও চার্লস হকেট মার্কিন সংগঠনবাদী ভাষাবিজ্ঞানের ধারা প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৬০-এর দশকে সঞ্জননী ব্যাকরণের আবির্ভাবের আগ পর্যন্ত এটিই ছিল ভাষাবিজ্ঞানের গবেষণার প্রধান ধারা।

ব্লুমফিল্ড ভাষার একটি সাধারণ ও অনুপুঙ্খ তত্ত্ব নির্মাণে আগ্রহী ছিলেন। ১৯১৪ সালে ভাষা নিয়ে তাঁর প্রথম গ্রন্থে তিনি ভিলহেল্ম ভুন্টের ধারণাগত কাঠামোর অভ্যন্তরে থেকে ভাষার তত্ত্ব নির্মাণের প্রয়াস নেন। কিন্তু ১৯২০-এর দশকে তিনি ঐ কাঠামোটি বর্জন করে ভাষাবিজ্ঞানকে আচরণবাদের মূল কেন্দ্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করেন। তিনি বক্তার মানসিক সংগঠনের অস্তিত্ত্ব সম্পূর্ণ উপেক্ষা করেন এবং বলেন যে মানুষের মুখের উচ্চারিত ভাষার বিভিন্ন ধ্বনি, শব্দ ও বাক্যের কাঠামো উদ্ঘাটনই ভাষাবিজ্ঞানের গবেষণার একমাত্র বিষয়। মনের সাথে ভাষার কোন সম্পর্ক নেই।

ব্লুমফিল্ড মনে করতেন যে সমস্ত ভাষিক সংগঠন নির্ণয় করার জন্য ধ্বনি ও অর্থকে সংযোজনকারী ক্ষুদ্রতম একক তথা রূপমূল পর্যায়ে বিশ্লেষণ শুরু করতে হয়। রূপমূল থেকে কিভাবে ধ্বনির ক্ষুদ্রতম একক ধ্বনিমূল এবং বৃহত্তর ভাষিক একক যেমন শব্দ, পদগুচ্ছ, বাক্য, ইত্যাদি নির্ণয় করা যায়, ব্লুমফিল্ড তা দেখান। ব্লুমফিল্ড রূপমূলতত্ত্ব ও বাক্যতত্ত্ব শাখায় সমৃদ্ধ তত্ত্ব নির্মাণ করতে সক্ষম হয়েছিলেন। তাঁর তত্ত্বগুলি প্রায় অবিকৃতভাবেই পরবর্তীতে সঞ্জননী ব্যাকরণে গৃহীত হয়। রূপমূলতত্ত্বে ব্লুমফিল্ড বিভিন্ন ধরনের ধ্বনিতাত্ত্বিক পরিবর্তনের উপর সচেতনভাবে মনোযোগ দেন, যার ফলশ্রুতিতে আধুনিক রূপধ্বনিমূলতত্ত্ব প্রতিষ্ঠা হয়। বাক্যতত্ত্বে ব্লুমফিল্ড উপাদান কাঠামো (constituent structure)-এর তত্ত্বের ভিত্তি স্থাপন করেন।

ব্লুমফিল্ডের প্রকাশিত কিছু গুরুত্বপূর্ণ রচনা ও গ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • 1911: "The Indo-European Palatals in Sanskrit". in: The American Journal of Philology 32/1, pp. 36–57.
  • 1914: Introduction to the Study of Language. New York: Henery Holt and Co. ISBN 90-272-1892-7.
  • 1914: "Sentence and Word". in: Transactions and Proceedings of the American Philological Association 45, pp. 65–75.
  • 1916: "Subject and Predicate". in: Transactions and Proceedings of the American Philological Association 47, pp. 13–22.
  • 1917: (with Alfredo Viola Santiago) Tagalog texts with grammatical analysis. University of Illinois studies in language and literature, 3.2-4. Urbana, Illinois.
  • 1924: "Notes on the Fox language". in: International Journal of American Linguistics 3, pp. 219–232.
  • 1926: "A set of postulates for the science of language". in: Language 2, pp. 153–164 (reprinted in: Martin Joos (ed.), Readings in Linguistics I, Chicago and London: The University of Chicago Press 1957, pp. 26–31).
  • 1927: "Literate and illiterate speech". in: American Speech 2, pp. 432–441.
  • 1927: "On Some Rules of Pāṇini". in: Journal of the American Oriental Society 47, pp. 61–70.
  • 1928: Menomini Texts. American Ethnological Society Publications 12. New York. ISBN 0-404-58162-5.
  • 1930: Sacred stories of the Sweet Grass Cree. National Museum of Canada Bulletin, 60 (Anthropological Series 11). Ottawa. ISBN 0-404-11821-6.
  • 1933: Language. New York: Henry Holt and Co. ISBN 0-226-06067-5, ISBN 90-272-1892-7. [His magnum opus]
  • 1935: "Linguistic aspects of science". in: Philosophy of Science 2/4, pp. 499–517.
  • 1939: "Menomini morphophonemics". in: Travaux du Cercle Linguistique de Prague 8, pp. 105–115.
  • 1939: Linguistic aspects of science. Chicago: University of Chicago Press.
  • 1942: Outline guide for the practical study of foreign languages. Baltimore.
  • 1956: Eastern Ojibwa. Ann Arbor: University of Michigan Press. [posthumous; Charles F. Hockett (ed.)]
  • 1962: The Menomini language. New Haven: Yale University Press. [posthumous; Charles F. Hockett (ed.)]
  • 1970: Charles F. Hockett (ed.), A Leonard Bloomfield Anthology. Indiana University Press.ISBN 0-226-06071-3.