রেল বোর্ড (ভারত)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

রেল বোর্ড ভারতীয় রেলের সর্বোচ্চ পরিচালন পরিষদ। এই সংস্থা ভারতীয় রেল মন্ত্রকের নিকট রিপোর্ট পেশ করে। বর্তমানে রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান এস. এস. খুরানা।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯০৫ সালে লর্ড কার্জন প্রথম ভারত সরকারে রেলওয়ে বোর্ড নিযুক্ত করেন। এই বোর্ডের সদস্যরা ছিলেন একজন সরকারি রেলওয়ে আধিকারিক, ইংল্যান্ডের একজন রেলওয়ে ম্যানেজার এবং কোম্পানি রেলওয়ের একজন এজেন্ট। এর মধ্যে সরকারি রেলওয়ে আধিকারিক ছিলেন বোর্ডের চেয়ারম্যান। এই বোর্ডটি ব্রিটিশ ভারত সরকারের বাণিজ্য ও শিল্প দফতরের অধীনস্থ ছিল। ১৯২২ সালে রেল বোর্ডের সাংগাঠনিক পরিবর্তন সাধিত হয়। রেলওয়ের একজন মুখ্য কমিশনার নিযুক্ত হন। ইনি প্রযুক্তির ক্ষেত্রে সরকারি সিদ্ধান্ত এবং নীতিনির্ধারণের ক্ষেত্রে সরকারকে উপদেশ দানের দায়িত্বে ছিলেন। ১৯২৪ সালের ১ এপ্রিল এই পুনর্গঠিত রেল বোর্ড কার্যকর হয়। পুনর্গঠিত রেল বোর্ডের সদস্যরা ছিলেন মুখ্য কমিশনার, একজন অর্থ কমিশনার ও দুই জন সদস্যকে নিয়ে। এই দুই সদস্যের একজন থাকতেন রেলপথ, কাজ ও স্টোরের দায়িত্বে; অপর জন ছিলেন সাধারণ প্রশাসনের দায়িত্বে। ১৯২৯ সালে কর্মচারী-সংক্রান্ত বিষয়গুলির তত্ত্বাবধানের জন্য অপর এক সদস্যের পদ সৃষ্টি করা হয় যাতে ট্রাফিকের দায়িত্বে নিযুক্ত সদস্য ঐকান্তিকভাবে পরিবহণ ও বাণিজ্যিক বিষয়গুলিতে মনোনিবেশ করতে পারেন। ১৯৫১ সালের এপ্রিল মাসে মুখ্য কমিশনারের পদটি নিযুক্ত হয়। এই সময় থেকে বোর্ডের বয়োজ্যেষ্ঠ কার্যকর সদস্য বোর্ডের চেয়ারম্যান নিযুক্ত হতে থাকেন। ফলে বোর্ডের সদস্য সংখ্যা কমে হয় চার। ১৯৫৪ সালের অক্টোবরে বোর্ডের চেয়ারম্যানকে প্রযুক্তিগত ও নীতিসংক্রান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের দায়িত্ব দেওয়া হয়। বোর্ড চেয়ারম্যানের পদমর্যাদা হয় ভারতীয় রেল মন্ত্রকের সচিবের তুল্য। এর সঙ্গে একজন অতিরিক্ত সদস্য নিযুক্তও হন। ফলে বোর্ডের সদস্য সংখ্যা হয় পাঁচ।[১]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. Rao, M.A. (1988). Indian Railways, New Delhi: National Book Trust, pp.49-54