রাইবোজোম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
চিত্র:Animal ribosome diagram bn.svg
মানুষের রাইবোজোম

রাইবোজোম জীব কোষে অবস্থিত রাইবোনিউক্লিওপ্রোটিন দ্বারা গঠিত ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা।

আবিস্কার[সম্পাদনা]

১৯৪৩ সালে ক্লড প্রথম কোষের মধ্যে রাইবোজোম আবিস্কার করেন।১৯৫৫ সালে প্যালডে এর নামকরণ করেন।তাই একে ক্লডের দানা বা প্যালডের দানা বলা হয়।

অবস্থান[সম্পাদনা]

প্রাক-কেন্দ্রিক ও সু-কেন্দ্রিক উভয় প্রকার কোষে এদের পাওয়া যায়।এগুলো সাইটোপ্লাজমে মুক্ত অবস্থায় এবং নিউক্লিয়ার মেমব্রেন এবং এন্ডোপ্লাজমিক রেটিকুলামের গাত্রে যুক্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

গঠন[সম্পাদনা]

রাইবোজোম নিউক্লিক অ্যাসিড ও প্রোটিনের সমন্বয়ে গঠিত। ইহা দুটি অধঃএককের সমন্বয়ে গঠিত। অধঃএককদুটি ম্যাগনেশিয়াম ও ক্যালশিয়াম দ্বারা যুক্ত।

প্রকারভেদ[সম্পাদনা]

ক. ৫৫S-মাইটোকন্ড্রিয়ায় উপস্থিত রাইবোজোম।

খ. ৬০S-ছত্রাকে উপস্থিত রাইবোজোম।

গ. ৭০S-প্রোক্যারিওটিক কোশে উপস্থিত রাইবোজোম।

ঘ. ৮০S-ইউক্যারিওটিক কোশে উপস্থিত রাইবোজোম।

কাজ[সম্পাদনা]

ক. প্রোটিন সংশ্লেষণের কাজ করে।

খ. সংশ্লেষিত প্রোটিনকে গলজিদ্রব্যে প্রেরণ করে।

গ. অনেক সময় স্নেহ জাতীয় পদার্থ গঠনে সাহায্য করে।