রবিনা মুকিমার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রবিনা মুকিমার
ব্যক্তিগত তথ্য
জাতীয়তা আফগানিস্তান
জন্ম (১৯৮৬-০৭-০৩) ৩ জুলাই ১৯৮৬ (বয়স ২৭)
ক্রীড়া
ক্রীড়া দৌড়বাজী

রবিনা জালালি, বা রবিনা মুকিমার (জন্ম ৩রা জুলাই, ১৯৮৬ কাবুল, আফগানিস্তানে) একজন প্রাক্তন অলিম্পিক প্রতিযোগী যিনি ২০০৪ ও ২০০৮ অলিম্পিক গেমস ছাড়াও আরও ৩০টি আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় ১০০মিটার দৌড়ে আফগানিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করেন।[১] [২] খেলো্য়াড় জীবনে তিনি মুকিমার পদবী ব্যবহার করতেন। তবে তিনি আফগান সংসদের নিম্নকক্ষ উলেসি জিরগাতে সদস্য আসনের জন্য নির্বাচন লড়েছেন তাঁর পারিবারিক পদবী জালালি নিয়ে।[১]

মুসলিম মহিলাদের চিরাচরিত মস্তকআবরণী হিজাব পরে তিনি দৌড়ে অংশনিতেন, যা আন্তর্জাতিক ঔৎসুক্যের কারণ হয়।[১] আরও একটি কারণ হল তিনি প্রথম দুজন আফগান মহিলার একজন যিনি অলিম্পিক গেমসে আফগানিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি জুডোকা ফ্রিবা রাজাই-এর সাথে এথেন্সে অনুষ্ঠিত ২০০৪ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করেন।

জালালিরা নয় ভাইবোন ( সাত বোন ও দুই ভাই)। তাঁর পিতা কম্পিউটার ব্যবসায়ী ছিলেন। এখন তিনি আফগান মহিলাদের সেলাই শেখানোর অলাভজনক সংস্থা চালান।[১] তালিবান জমানায় জালালি বাড়িতেই পড়াশোনা করেন, কারণ সে সময় মেয়েদের বিদ্যালয় যাওয়া নিষিদ্ধ ছিল। ২০০১ সালের পর তিনি বিদ্যালয়ে ভর্তি হন।[১] তালিবান শাসনকালের সম্পর্কে তিনি বলেন: "তালিবান শাসনে মহিলাদের কিছুই করার ছিলনা। বিদ্যালয়ে যাওয়া যেত না। খেলা যেত না, কিছুই করা করা যেত না। সর্বদা শুধু বাড়িতে থাকতে হত।"[৩]

২০০৪ অলিম্পিকস[সম্পাদনা]

মুকিমার মহিলাদের ১০০মিটারে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।[৪] হিটে আটজনের মধ্যে সপ্তম হয়ে তিনি প্রতিযোগিতা শেষ করেন ১৪.১৪সেকেন্ড সময়ে সোমালিয়াফার্তুন আবুকর ওমরের থেকে ০.১৫ সেকেন্ড আগে। প্রতিযোগিতাটিতে ১১.১৭সেকেন্ড সময়ে জয়ী হন জামাইকাভেরোনিকা ক্যাম্পবেল[৫] এই সময় মুকিমারের বয়স ছিল মাত্র ১৭ বছর।[৬] বাকি প্রতিযোগীদের মত এরোডাইনামিক পোষাকের বদলে তিনি "টি-শার্ট ও লম্বা সবুজ রঙের ট্র্যাক প্যান্ট" পরে দৌড়েছিলেন।[৭]

২০০৮ অলিম্পিক[সম্পাদনা]

বেইজিং-এ অনুষ্ঠিত ২০০৮ অলিম্পিকে প্রথমে তাঁর অংশগ্রহণ করার কথা ছিল না,[৮] কিন্তু জুন মাসে মেহবুবা আদিয়ার অনুশীলন কেন্দ্র ছেড়ে নরওয়েতে রাজনৈতিক আশ্রয় চাইলে[৯], মুকিমার আফগান দলে[১০] সদস্যপদ গ্রহণ করেন। ২০০৮ অলিম্পিকে তিনি ১০০মিটার দৌড়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন, ও প্রথম রাউন্ডে ১৪.৮০সেকেন্ড সময়ে অষ্টম স্থান অধিকার করেন। ফলে আর অগ্রসর হতে পারেননি।[২]

গার্ডিয়ান তাঁকে অলিম্পিক আদর্শের সত্যিকারের প্রতিভূ বলে বর্ণনা করে বলে:

"The অলিম্পিক বলয়গুলি এই গ্রহের সবচেয়ে পরিচিত চিহ্ন এবং সমস্ত ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান একে নরম পানীয় ও ক্রেডিট কার্ডের বিজ্ঞাপন করে তুলতে বধ্যপরিকর। উপরন্তু ড্রাগ কেলেঙ্কারি ও চুড়ান্ত বাহুল্য থাকা সত্বেও এখনো কিছু প্রতিযোগী আছেন যাঁরা অলিম্পিক আদর্শের সত্যিকারের প্রতিভূ। যেমন এই আফগান প্রতিযোগী যাকে তালিবানদের থেকে লুকিয়ে থাকতে হত, যেমন এই [[দাইয়ান গার্সিয়া দোস স্যান্টোস|বস্তি থেকে উঠে আসা ব্রাজিলীয় জিমন্যাস্ট, যেমন এই ইকুয়েডোরিয়ান ওয়াকার যিনি প্রথম স্বর্ণপদক জয়ের পর ৪৫৯কিমি হেঁটে তীর্থ করতে গেছিলেন। এঁরা হয়ত জিতবেন না, কিন্তু এঁরা সবাই আমাদের প্রশংসার যোগ্য।"[৩]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

তিনি যুব ও মহিলা সমাজের অধিকারের দাবীতে নির্দল হিসাবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।[১][১১] তাঁর প্রতিশ্রুতি ছিল নির্বাচনে জিতলে আফগানিস্তানে বিদ্যালয়স্তরে খেলাধুলার উন্নতিসাধন।[১১] যদিও তিনি নির্বাচনে পরাজিত হন।[১২]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ ১.২ ১.৩ ১.৪ ১.৫ David Nakamura (১১ই সেপ্টেম্বর, ২০১০)। "One of Afghanistan's rare female Olympians now running for parliament"। The Washington Post। 
  2. ২.০ ২.১ Athlete biography: Robina Muqimyar, beijing2008.cn, ret: ২৭শে আগস্ট ২০০৮
  3. ৩.০ ৩.১ "True Olympians", The Guardian, ১লা আগস্ট, ২০০৪
  4. "Afghan women's Olympic dream", BBC, June 22, 2004
  5. "The first Afghan women to participate in Track & Field: Robina Muqimyar 7th out of 8 in 100 meter sprint", National Olympic Committee of the Islamic Republic of Afghanistan
  6. "Afghan women making Olympic history", USA Today, ১৭ আগস্ট, ২০০৪
  7. "Afghan Woman Runs Toward Olympics Despite Jeers, Potential Danger", Associated Press, ১৬ই মার্চ, ২০০৮
  8. "Afghan Athletes Train for Beijing Olympic ", Afghan embassy to the United States, ২৯শে এপ্রিল, ২০০৮
  9. Fears ease after missing Afghan athlete found, Times of London, ১০ই জুলাই
  10. "Olympics-Against all odds, Afghans try their luck in Beijing", Reuters, ৯ই আগস্ট, ২০০৮
  11. ১১.০ ১১.১ "Topic Running for Women's Rights in Afghanistan"। The NATO Channel। সংগৃহীত September 11, 2010 
  12. "Jalali, Robina Muqimyar Mrs"। Whos Who in Afghanistan?। সংগৃহীত December 6, 2011 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]