মিয়ামোতো মুসাশি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মিয়ামোতো মুসাশি
宮本 武蔵

মিয়ামোতো মুসাশি
জন্ম শীনম্যান মুসাশী-নো-কামাই ফুজিওয়ারা নো জেনশীন
সি. ১৫৮৪
হারিমা প্রদেশ, জাপান
মৃত্যু জুন ১৩, ১৬৪৫(১৬৪৫-০৬-১৩) (বয়স ৬০-৬১
হিগু প্রদেশ, জাপান
প্রাকৃতিক কারন (সম্ভবত পাকস্থলী ক্যন্সার)
অন্য নাম শীনম্যান তাকেজু; মিয়ামোতো বেন্নুসুকো; নিতেন দুরাকো
বাসস্থান জাপান
ধরন কেনজুশু
শিক্ষক নিশ্চিত নয়
উল্লেখযোগ্য ছাত্র তেরাও; মোতোমেনুসুকো; ফুরুহাশি

মিয়ামোতো মুসাশি (宮本 武蔵?, সি. ১৫৮৪-জুন ১৩, ১৬৪৫) (শীনম্যান তাকেজু, মিয়ামোতো বেন্নুসুকো বা তার বুদ্ধ নাম নিতেন দুরাকো[১] নামেও পরিচিত) ছিলেন একজন জাপানি অসিযোদ্ধা ও রোনিন (একজন মাস্টার বিহীন সামুরাই)। মুসাশি তার যুবক বয়স থেকেই তার অসাধারন তরোবারি চালোনা ও দ্বৈত লড়ার গল্পের জন্য বিখ্যাত। তিনি হাওহু নিতেন ইচি রেউ বা নিতেন রেই স্টাইল প্রতিষ্ঠাতা এবং দ্য বুক অফ ফাইভ রিংস এর লেখক যাতে তরবারি সংক্রান্ত বিভিন্ন কৌশল বা দর্শন সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ননা রয়েছে। বইটি বর্তমানেও তরবারি চালানো বিদ্যায় বহুলভাবে পঠিত হয়।

জন্ম[সম্পাদনা]

মিয়ামোতোর প্রারম্ভিক জীবন সম্পর্কে বিস্তারিত যাচাই করা অত্যন্ত কঠিন। মুসাশি নিজে গোরিন নো স্যুতে শুধু বর্ননা করেছেন তিনি হারিমা প্রদেশে জন্মগ্রহন করেন।[২] তার জীবনী নিয়ে লেখা প্রাথমিক একটি বই নিতেন কাই থেকে জানা যায় মুসাশি ১৫৮৪ সালে তেনসুর বানসুতে জন্মগ্রহন করেন।[৩] ঔতিহাসিক কামিকো তাদাশী মুসাশির লেখায় মন্তব্য করেন, তার পিতার নাম মুনিসাই ও তিনি মিমাসাকা প্রদেশের ইয়োসিনো জেলার মিয়ামোতো গ্রামে বাস করতেন এবং খুব সম্ভবত মিয়ামোতো এখানেই জন্মগ্রহন করেন।[৪] তার শৈশবের নাম ছিলো বেন্নুসুকো (弁之助)।

মুসাশি গোরিন নো স্যুতে তার পূর্ণ নাম শীনম্যান মুসাশী-নো-কামাই ফুজিওয়ারা নো জেনশীন (新免武蔵守藤原玄信)[৫] ও তার পিতার নাম শীনম্যান মুনিসাই (新免無二斎) বলে উল্লেখ করেন। তিনি আরো লেখন তার পিতা ছিলেন একজন মার্শাল শিল্পী ও তরবারি এবং জুটের মাস্টার।[৬] মুনিসাইয়ের পিতা ছিলেন হিরাতা সোজেন (平田将監) ও তিনি ছিলেন মিমাসাকা প্রদেশের[৭] ইয়োশীনো জেলার তাকাআমা ক্যসলের লর্ড শীনম্যানের অধীন একজন কর্মকর্তা। হিরাত শীনম্যানের উপর নির্ভরশীল ছিলেন বলে তিনি শীনম্যান উপাধি ব্যবহারে অনুমতিপ্রাপ্ত ছিলেন।

মুনিসাই ও মুসাশীর জন্ম তারিখ[সম্পাদনা]

মুনিসাইয়ের সমাধিতে তার মৃত্যুর তারিখ রয়েছে ১৫৮০ যা মুসাশীর সর্বজনজ্ঞত জন্ম তারিখ ১৫৮৪-এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। পরবর্তীতে বিস্তৃত গবেষণায় বংশপরম্পরায় মিয়ামোতো পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে জানা যায় তিনি ১৫৮২ সালে জন্মগ্রহন করেন। কেঞ্জি তোকিশো বলেন, মুসাশীর গ্রহনযোগ্য জন্ম সাল ১৫৮৪ ভুল ও এটি গো রিন নো স্যু বইয়ের ভূমিকা থেকে লোকজন ভুলভাবে ধারণা করেছেন। তিনি যখন এটি লিখেন সম্ভবত তার বয়স তখন ৬০-এর কাছাকাছি ছিলো।

তরবারি বিদ্যায় ট্রেনিং[সম্পাদনা]

মুসাশি নামটি সম্ভবত নেওয়া হয়েছে একজন বিখ্যাত যুদ্ধা মুসাশিবু বেনকেই থেকে যিনি মিনামোতো নো ইয়োশিসোনির অধীন কর্মরত ছিলেন কিন্তু এটি নিশ্চিত নয়।

এটা বলা হয়ে থাকে যে তিনি ইয়োশিকা রেউ ডুজু বিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করেছেন যদি এ তথ্যটিও খুবই অনিশ্চিত। তিনি ৭ বছর বয়স পর্যন্ত তার পিতার কাছ থেকে বা তার চাচার কাছ থেকে প্রাথমিক ট্রেনিং গ্রহন করেছিলেন।

প্রথম ডুয়েল[সম্পাদনা]

আমি আমার শৈশব থেকেই কলাকৌশলগুলো রপ্ত করেছি ও ১৩ বছর বয়সে আমি দ্বৈত লড়েছি। আমার প্রতিপক্ষের নাম ছিলো আরিমা কিহেই ও আমি তাকে পরাজিত করি। ১৬ বছর বয়সে আমি একজন শক্তিশালী তরবারি কুশলীকে পরাজিত করিযনি তাজিমা প্রদেশ থেকে এসেছিলেন। ২১ বছর বয়সে আমি কেয়োটোতে এসেছিলাম ও এখানকার কয়েকটি বিদ্যালয়ের পক্ষে দ্বৈত লড়ি কিন্তু কোনটিতেই আমি পরাজিত হইনি।--মিয়ামোতো মুসাশি, গো রিন নো স্যু

দ্য বুক অফ ফাইভ রিংস বইয়ের ভূমিকায় মিয়ামোতো লিখেন তার প্রথম সফল দ্বৈত হলো ১৩ বছর বয়সে এবং তার প্রতিপক্ষ ছিলেন আরিমা কিহেই নামে একজন সামুরাই যিনি সুকাহারা বুকোদেন (জন্ম. ১৪৮৯-মৃত্যু. ১৫৭১) প্রতিষ্ঠিত মার্শাল স্টাইল কাশিমা শিন্তো-রেউ ধারা ব্যবহার করতেন। এই দ্বৈতের সারাংশ হলো:


১৫৯৬ সালে মুসাশী ১৩ বছর বয়স্ক ছিলেন ও আরিমা কিহেই যিনি সম্মানের জন্য বিভিন্ন জায়গায় ভ্রমণ করে লোকজনকে দ্বৈত লড়ার জন্য আহবান করতেন। মুসাশি এই প্রতিযোগিতায় তার নাম অন্তর্ভুক্ত করেন। একজন বার্তাবাহক দুরিনের মন্দিরে যেখানে মুসাশি বসবাস করতেন সেখানে এসে জানায় তার নাম আরিমা গ্রহন করেছেন। মুসাশীর চাচা দুরিন তার ভাতিজার বয়সের কথা চিন্তা করে এই দ্বৈত না লড়ার জন্য প্রার্থনা করেন কিন্তু আমিরা বলেন তিনি একটি মাত্র শর্তেই এই প্রতিযোগিতা বাতিল করতে পারেন যদি মুসাশি তার কাছে এসে ক্ষমা চান। যখন প্রতিযোগিতা ঘনিয়ে আসে ও প্রতিযোগিতার সময় আরিমা ওয়াকিজাশি ধারায় লড়তে শুরু করেন কিন্তু মুসাশি তাকে ভূমিতে ফেলে দেন। যখন তিনি উঠার চেষ্ঠা করেন তখন মুসাশি তার দুই চোখের মাঝখানে মারতে শুরু করেন। আরিমা মূলত ছিলেন উদ্ধত ও খেলার জন্য সবসময় প্রস্তুত কিন্তু তিনি কখনোই তরবারি বিদ্যায় প্রতিভাবান ছিলেন না।--উইলিয়াম স্কট উয়িলসন, দ্য লোন সামুরাই[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Toyota Masataka. "Niten Ki (A Chronicle of Two Heavens)", in Gorin no Sho, ed. Kamiko Tadashi (Tokyo: Tokuma-shoten, 1963), 239.
  2. Miyamoto Musashi. "Go Rin No Sho," in Gorin no Sho, ed. Kamiko Tadashi (Tokyo: Tokuma-shoten, 1963), 13.
  3. Toyota, p. 239
  4. Miyamoto, p. 18ff.
  5. Miyamoto, 13.
  6. Miyamoto, p. 18ff
  7. Miyamoto, p. 17ff.
  8. William Scott Wilson. (2004)। The Lone Samurai। Kodansha International। আইএসবিএন 4-7700-2942-X 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

কল্পকাহিনী[সম্পাদনা]

প্রবন্ধ[সম্পাদনা]

প্রামাণিক সাক্ষ্য[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]