মার্টিন নাইমোলার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মার্টিন নাইমোলার
Timbre Allemagne 1992 Martin Niemoller obl.jpg
১৯৯২ সালে মুদ্রিত একটি পোস্ট স্ট্যাম্পে মার্টিন নাইমোলারের ছবি।
জন্ম ফেড্রিখ গুস্তাভ এমিল মার্টিন নাইমোলার
১৪ জানুয়ারি ১৮৯২
;ইপস্ট্যাড, জার্মান সম্রাজ্য
মৃত্যু ৬ মার্চ ১৯৮৪(১৯৮৪-০৩-০৬) (৯২ বছর)
পশ্চিম জার্মানি
উপাধি ওরডিয়েন্ট প্যাস্টর

ফেড্রিখ গুস্তাভ এমিল মার্টিন নাইমোলারবা মার্টিন নাইমোলার (ইংরেজি: Friedrich Gustav Emil Martin Niemöller) (জন্ম:১৮৯২ - মৃত্যু: ১৯৮৪) ছিলেন জার্মানির একজন নাৎসিনাৎসিবিরোধী ধর্মযাজক, কবি ও গ্রন্থকার। জীবনের প্রথম দিকে তিনি ছিলেন ন্যাশনাল কনজার্ভেটিব দল এবং এডলফ হিটলারের সমর্থক।[১] তবে পরবর্তীতে তিনি ছিলেন কনফেশনাল চার্চের প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম যা জার্মান প্রটেস্ট্যান্ট চার্চগুলোর নাৎজিকরনের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিল। এছাড়া তিনি নাৎজিদের আরিয়ান প্যারাগ্রাফের অন্যতম বিরোধী ছিলেন । ১৯৫০ সাল পর্যন্ত তিনি শান্তিবাদি ও যুদ্ধ বিরোধী হিসেবে সমাজের বিভিন্ন স্তরে কাজ করেন। তিনি ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময় হো চিন মিনের সাথে দেখা করেন এবং পারমানবিক অস্ত্রের অপসারণের ক্যাম্পেইনের সাথে যুক্ত হন।

বিখ্যাত কবিতা[সম্পাদনা]

তাঁর "ওরা প্রথমতঃ এসেছিল" (ইংরেজি: First They Came) শীর্ষক কবিতাটি বিশ্বের সর্বত্র জনপ্রিয়। কবিতাটির প্রথম কয়েক লাইন এ রকম :

ওরা এসেছিল ট্রেড ইউনিয়নপন্থীদের ধরবে বলে

আমি প্রতিবাদ করিনি, কেননা আমি ট্রেড ইউনিয়নের সদস্য নই

ওরা এলো ইহুদিদের ধরতে

আমি প্রতিবাদ করিনি, কেননা আমি ইহুদি নই

ওরা এসেছিল জিপসিদের ধরতে

আমি প্রতিবাদ করিনি, কেননা আমি জিপসি নই

তার পর ওরা এলো আমাকে ধরতে কিন্তু আমার হয়ে প্রতিবাদ করার মতো তখন কেউ অবিশিষ্ট ছিল না।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

১৯৮৪ খৃস্টাব্দে তাঁর মৃত্যু হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Stein, Leo (May 1941)। "NIEMOELLER speaks! An Exclusive Report By One Who Lived 22 Months In Prison With The Famous German Pastor Who Defied Adolf Hitler"। The National Jewish Monthly। পৃ: 284–5, 301–2।  |month= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)