মাইকেল লুকাস (চিত্র পরিচালক)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মাইকেল লুকাস
[[File:Michael Lucas 2011.jpg|215px]]
২০১১ সালে লুকাস
জন্ম আন্দ্রেই ত্রেইভাস[১][২]
(১৯৭২-০৩-১০) ১০ মার্চ ১৯৭২ (বয়স ৪২)[১]
মস্কো, রাশিয়া এসএফএসআর[১]
অন্য নাম রামিজ কাইরফ
মিকেল লুকাস
মাইকেল লুকাস
বংশোদ্ভূত রাশিয়ান ইহুদি
উচ্চতা ৬ ফু ০ ইঞ্চি (১.৮৩ মি)
ওজন ১৮০ পা (৮২ কেজি)
ওয়েবসাইট
http://www.lucasblog.com/

মাইকেল লুকাস (ইংরেজি: Michael Lucas) (জন্মগত নাম আন্দ্রেই লাভোভিচ ত্রেইভাস (রুশ: Андрей Львович Трейвас), জন্ম ১০ই মার্চ, ১৯৭২ মস্কো, রাশিয়া)[১] মার্কিনি-ইসরায়েলি [৩] সমকামী পর্নোগ্রাফি অভিনেতা,[৪] চিত্র পরিচালক এবং লুকাস এন্টারটেইনমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা/সিইও। এই সংস্থাটি নিউ ইয়র্কের বৃহত্তম[২] গে-অ্যাডাল্ট-ফিল্ম কোম্পানি। ২০০৪ সালে লুকাস মার্কিন নাগরিক হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। বর্তমানে তিনি নিউ ইয়র্কে বাস করেন।[৫]

দ্য নিউ রিপাবলিক লুকাসকে "গে পর্ন’স নিওকন কিংপিন" আখ্যা দিয়েছে।[৬] নিউ ইয়র্ক সিটি মিডিয়া তাঁকে "লায়ন অফ চেলসা" ও "লাস্ট অফ দ্য নিউ ইয়র্ক পর্ন মুঘলস" আখ্যা দিয়ে থাকে।[২] তিনি দাবি করেন, তাঁর ছবি মাইকেল লুকাস’ লা ডোলসে ভিটা আজ পর্যন্ত নির্মিত গে পর্ন চলচ্চিত্রগুলির মধ্যে সবচেয়ে ব্যয়বহুল ছবি। ২৫০,০০০ মার্কিন ডলার ব্যয়ে নির্মিত এই ছবিটিতে অনেক সেলিব্রিটির ক্যামিও উপস্থিতি দেখা যায়।[২] ২০০৯ সালে "এ-লিস্ট চিত্র পরিচালক ও পারফর্মার হিসেবে তাঁর ভূমিকা"র জন্য তিনি গেভিএন হল অফ ফেমের অন্তর্ভুক্ত হন।[৭] ২০০৯ সালে নিউ ইয়র্ক ম্যাগাজিনে খুব কম সময়ে শহরে এসে নাম করা লোকেদের নিয়ে প্রকাশিত একটি ফিচারে তাঁর নাম উল্লেখ করা হয়।[৮]

লুকাস তাঁর প্রচার আন্দোলন ও স্পষ্টবাদিতার জন্য বিখ্যাত।[২][৬][৭] তিনি ড্রাগ ব্যবহারের সমালোচনা করেন এবং সমকামী সমাজে অরক্ষিত যৌনতার বিপদ সংক্রান্ত একটি জনস্বার্থ বিজ্ঞাপনী প্রচারকে স্পনসর করেন। এই জন্য হার্ভি ফিয়ারস্টেন দি অ্যাডভোকেট-এর জন্য তাঁর একটি সাক্ষাৎকার নেন।[৯] শৈশবে লুকাস সোভিয়েত ইউনিয়নের সেমিটিজম-বিরোধী আবহাওয়ায় বড় হন। এর ফলে নিজের ইহুদি পরিচয় ও ইসরায়েল রাষ্ট্রের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতা গড়ে ওঠে।[৬] এই যোগসূত্রটি এমন এক বৈশ্বিক দৃষ্টিভঙ্গির জন্ম দেয় যা বিতর্ক সৃষ্টি করে।[৬] তাঁর অতি-রক্ষণশীল ইহুদি ধর্মইসলাম বিষয়ক নিউ ইয়র্ক ব্লেড কলামগুলি ২০০৮ সালে স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে বিতর্কসভার আলোচ্য বিষয়বস্তু হয়। লুকাসকে ছাত্রদের সামনে বক্তৃতা দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণও জানানো হয়।[১০] ২০১০ সালে তিনি ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পিটার ট্যাটচেলস্যু স্যান্ডারসের সঙ্গে বিতর্কে অংশ নেন। বিতর্কের বিষয় ছিল সমকামী অধিকার আন্দোলনকে পারিবারিক মূল্যবোধ লঙ্ঘন করছে।[১১]

২০০৯ সালে লুকাসের মেন অফ ইসরায়েল ছবিটি মুক্তি পায়। তাঁর মতে, এটি তাঁর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছবি। দি অ্যাটলান্টিক, আউট ম্যাগাজিনইয়েডিওট আহারোনোট পত্রিকা ছবিটিকে একটি অগ্রণী চলচ্চিত্র বলে উল্লেখ করেছে। কারণ এটিই প্রথম পর্নোগ্রাফিক চলচ্চিত্র যার সব কলাকুশলীই ইসরায়েলি।[১২] ট্যাবলেট ম্যাগাজিনলস এঞ্জেলস টাইমস-এর মতে এই ছবিটিই প্রথম চলচ্চিত্র যার সকল কলাকুশলী ইহুদি[১২][১৩][১৪] এই চলচ্চিত্রের পর লুকাস ইসরায়েলে একটি গে ট্যুরে যান।[১৫]

লুকাস দি অ্যাডভোকেট পত্রিকার এক নিয়মিত কলামিস্ট।[১৬]

পশ্চাদপট[সম্পাদনা]

১৯৭২ সালে রাশিয়ার মস্কোয় লুকাসের জন্ম। তাঁর বাবা লেভ ব্রেগম্যান ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার এবং মা এলিনা ত্রেইভাস ছিলেন রাশিয়ান সাহিত্য শিক্ষিকা। ১৯৯৪ সালে তিনি মস্কো স্টেট ল অ্যাকাডেমি থেকে আইনে একটি ডিগ্রি অর্জন করেন।[৫][১৭] স্নাতক হওয়ার পর লুকাস ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত একটি ট্রাভেল এজেন্সি চালান। তারপর রাশিয়া ছেড়ে জার্মানির মিউনিখে চলে আসেন। পরের দুই বছর তিনি ফ্রান্সে অতিবাহিত করেন।[১৮] ১৯৯৭ সালে লুকাস নিউ ইয়র্ক সিটিতে চলে আসেন।[৫][১৯]

২০০৪ সালের ১২ নভেম্বর লুকাস মার্কিন নাগরিক হিসেবে শপথ নেন।[৫] ২০০৮ সালের অক্টোবরে লুকাস ঘোষণা করেন যে তিনি তাঁর আট বছরের পুরুষ বন্ধু রিচার্ড উইঙ্গারকে বিয়ে করেছেন।[২০] একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় যে, সমলিঙ্গ বিবাহ অধিকার আন্দোলনের সমর্থনেই তাঁরা বিয়ে করতে চেয়েছিলেন।[২০]

কেরিয়ার[সম্পাদনা]

অভিনেতা[সম্পাদনা]

লুকাস একটি জার্মান বিষমকামী পর্নোগ্রাফিক চলচ্চিত্রে তাঁর কেরিয়ার শুরু করেন।[১৯] ফ্রান্সে থাকাকালীন তিনি প্রভাবশালী ফরাসি চিত্র পরিচালক জিন-ড্যানিয়েল ক্যাডিনটের অধীনে কাজ করেন।[২১] ১৯৯৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত দু'টি পর্নোগ্রাফিক চলচ্চিত্রে তিনি "রামেজ কাইরফ" নামে অভিনয় করেন। ১৯৯৭ ও ১৯৯৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত পাঁচটি চলচ্চিত্রে "মাইকেল লুকাস" নাম নিয়ে তিনি একজন ফ্যালকন এক্সক্লুসিভ টপ হিসেবে অভিনয় করেন।[২২]

পরিচালক[সম্পাদনা]

লুকাস পরিচালিত প্রথম প্রোজেক্টটি ছিল ব্যাক ইন দ্য স্যাডল। ১৯৯৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই ছবিতে তিনি নিজেও অভিনয় করেন।[২৩] মাইকেল লুকাস' লা ডোলসে ভিটা ছবির জন্য সহ-পরিচালক টনি ডিমার্কোর সঙ্গে লুকাস ২০০৭ সালে শ্রেষ্ঠ পরিচালক বিভাগে গেভিএন অ্যাওয়ার্ড পান। ডিমার্কো ও লুকাস ২০০৮ সালে শ্রেষ্ঠ এলজিবিটি পরিচালক বিভাগে এক্সবিজ অ্যাওয়ার্ডও জয় করেন। "মাইকেল লুকাস ফাউন্ড ডেড"-এর জন্য লুকাস বেস্ট পাবলিসিটি স্টান্ট বিভাগে একটি পুরস্কারও পান।[২৪]

ব্যানানা গাইড লুকাস প্রযোজিত ছবিগুলিকে সর্বকালের সেরা ঝাঁ-চকচকে বিগ-বাজেট গে পর্ন চলচ্চিত্র বলে উল্লেখ করে। বিষয়টির প্রতি লুকাসের ভালবাসা ও তাঁর উঁচুদরের প্রযুক্তিগত কৃতকৌশলেরও উল্লেখ করা হয়।[২৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ ১.২ ১.৩ Photograph of Lucas' Soviet passport showing his birth information
  2. ২.০ ২.১ ২.২ ২.৩ ২.৪ Van Meter, William (October 30, 2006)। "The Lion of Chelsea"New York Movies। New York Magazine Holdings LLC। সংগৃহীত 2007-01-09 
  3. http://www.haaretz.com/news/can-gay-porn-save-israel-s-image-1.7471
  4. Bunder, Leslie (August 18, 2006), "Entertaining gay Israeli troops", retrieved from www.somethingjewish.co.uk on September 3, 2006.
  5. ৫.০ ৫.১ ৫.২ ৫.৩ Model profile at www.lucasentertainment.com, retrieved from www.lucasentertainment.com on September 5, 2006
  6. ৬.০ ৬.১ ৬.২ ৬.৩ Gay Porn's Neocon Kingpin, James Kirchick, The New Republic via CBSNews.com, March 20, 2006.
  7. ৭.০ ৭.১ GAYVN Announces 2009 Hall of Fame Inductees, Harker Jones, AVN, March 12, 2009.
  8. Waking Up to New York, New York Magazine, April 12, 2009.
  9. Kennedy, Sean (August 17, 2004)। "Porn star wants you...safe"। Advocate.com © Planet out Inc. 920 (37-39): 37–39। ISSN:0001-8996। 
  10. Adult film star’s remarks spark debate, Kelly Fong, February 14, 2008, The Stanford Daily.
  11. PORN ACTOR MICHAEL LUCAS TO SPEAK AT OXFORD UNIVERSITY
  12. ১২.০ ১২.১ Great Exxxpectations, Wayne Hoffman, Tablet Magazine, July 21, 2009.
  13. Gay-Porn Mogul Hopes to Arouse Interest in Israel, David Graham, Newsweek, September 23, 2009.
  14. First-Ever All-Israeli Gay Porn Movie, DNA magazine, May 9, 2009.
  15. Michael Lucas Wants to Take You To Israel
  16. Columns by Michael Lucas
  17. "Michael Lucas: The Gay Porn Blog Interview"। gaypornblog। June 19, 2005। সংগৃহীত 2007-01-10 
  18. Michael Lucas New York's Hardcore Porn Director From Russia Eats Ass in Private, Gert Jonkers, Butt Magazine
  19. ১৯.০ ১৯.১ Oswoski, Kevin (April 22, 2005), "Adult film producer fleshes out his 'fantasy' at tea", Yale Daily News, retrieved from www.yaledailynews.com on August 31, 2006.
  20. ২০.০ ২০.১ Gay Porn Impresario Michael Lucas, Married, Gawker.com, October 15, 2008.
  21. Dunn, Rick (April 27, 2005), "Down and Dirty With Michael Lucas", retrieved from www.edgeboston.com on January 16, 2007
  22. List of videos at the Falcon Studio online store with Michel Lucas in the cast. Adult images. Retrieved from www.falconstudios.com on September 3, 2006
  23. Lawrence, Doug, Editor (1998)। Adam Gay Video 1999 DirectoryLos Angeles, California: Knight Publishing Corp.। 
  24. X Biz Award Winners
  25. Review of Lucas Entertainement, The Banana Guide, June 2009.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]