ভিসেন্তে দেল বস্ক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Corona de marqués 2.svg
ভিসেন্তে দেল বস্ক
Vicente del Bosque Euro 2012 final.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম ভিসেন্তে দেল বস্ক গঞ্জালেজ
জন্ম (১৯৫০-১২-২৩) ২৩ ডিসেম্বর ১৯৫০ (বয়স ৬৩)
জন্ম স্থান সালামাঙ্কা, স্পেন
উচ্চতা ১.৮৪ মিটার (৬–০)
মাঠে অবস্থান ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব স্পেন (ম্যানেজার)
তারূণ্যের কর্মজীবন
১৯৬৬-১৯৬৮ সালমানটিনো
১৯৬৮-১৯৬৯ রিয়াল মাদ্রিদ
বলিষ্ঠ কর্মজীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
১৯৬৯-১৯৭০ প্লাস আল্ট্রা ১১ (৫)
১৯৭০-১৯৮৪ রিয়াল মাদ্রিদ ৩১২ (১৪)
১৯৭০-১৯৭১ কাস্তেলন (ধারকৃত) ১৩ (৪)
১৯৭১-১৯৭২ করডোবা (ধারকৃত) ১৯ (১)
১৯৭২-১৯৭৩ কাস্তেলন (ধারকৃত) ৩০ (৫)
মোট ৩৮৫ (২৯)
জাতীয় দল
১৯৬৯ স্পেন অনূর্ধ্ব-১৮ (০)
১৯৭০-১৯৭৬ স্পেন সৌখিন (০)
১৯৭৫-১৯৮০ স্পেন ১৮ (১)
দলসমূহ পরিচালিত
১৯৮৭-১৯৯০ রিয়াল মাদ্রিদ বি
১৯৯৪ রিয়াল মাদ্রিদ
১৯৯৬ রিয়াল মাদ্রিদ
১৯৯৯-২০০৩ রিয়াল মাদ্রিদ
২০০৪-২০০৫ বেসিকতাস
২০০৮– স্পেন
* পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে।
† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

ভিসেন্তে দেল বস্ক গঞ্জালেজ, প্রথম মার্কেস্সেত অব দেল বস্ক (স্পেনীয় উচ্চারণ: [biˈθente ðel ˈβoske ɣonˈθaleθ]; স্পেনীয়: Vicente del Bosque González; জন্ম: ২৩ ডিসেম্বর, ১৯৫০) স্পেনের সাবেক ফুটবল খেলোয়াড়স্পেনের জাতীয় ফুটবল দলে খেলেছেন। এছাড়াও তিনি লা লিগায় রিয়াল মাদ্রিদ, কর্ডোবা এবং ক্যাসেলনের পক্ষ হয়েও মাঠে নেমেছেন। বিশ্ব ফুটবল অঙ্গনে তিনি দেল বস্ক নামেই পরিচিত ব্যক্তিত্ব। বর্তমানে তিনি স্পেনের জাতীয় ফুটবল দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত দেল বস্ক মারিয়া দে লা সান্তিজিমা ত্রিনিদাদ লোপেজকে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে দুই পুত্র এবং এক কন্যা সন্তান রয়েছে। তন্মধ্যে একটি পুত্র স্নায়ুবৈকল্যে ভুগলেও সুস্থই রয়েছে।[১]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

স্পেনিশ ফুটবল লীগ পদ্ধতি লা লিগায় মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে দেল বস্ক ৪৪১টি খেলায় অংশগ্রহণ করে ৩০ গোল করেন। খেলোয়াড়ী জীবনে কাস্তিলা সিএফ, কর্ডোবা, কাস্তেলন এবং রিয়াল মাদ্রিদে খেলেছেন তিনি। ঘরোয়া ফুটবলে লা লিগায় পাঁচবার ১৯৭৪-৭৫, ১৯৭৫-৭৬, ১৯৭৭-৭৮, ১৯৭৮-৭৯, ১৯৭৯-৮০ মৌসুমে এবং কোপা দেল রেতে চারবার ১৯৭৩-৭৪, ১৯৭৪-৭৫, ১৯৭৯-৮০, ১৯৮১-৮২ মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড় হিসেবে শিরোপা বিজয়ে অংশ নেন।

আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্পেন জাতীয় ফুটবল দলের পক্ষ হয়ে ১৮টি খেলায় অংশ নেন। তন্মধ্যে একবার গোল করতে সমর্থ হয়েছিলেন তিনি।[২] স্পেনের পক্ষ হয়ে উয়েফা ইউরো ১৯৮০-তে অংশ নিয়েছিলেন বস্ক।[৩] কিন্তু স্পেন দলটি গ্রুপ পর্বেই প্রতিযোগিতা থেকে বাধ্য হয়েছিল।

স্পেন জাতীয় ফুটবল দল[সম্পাদনা]

১১ মার্চ, ২০০৮ সালে দেল বস্ক ঘোষণা দেন যে তিনি স্পেন দলের কোচের দায়িত্ব পালন করবেন। পরবর্তীতে ১৫ জুলাই, ২০০৮ সালে নিশ্চিত করা হয় যে তিনি লুইস আরাগোনেজের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন।[৪][৫]

স্পেন ২০১০ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলের বাছাই-পর্বে উয়েফা অঞ্চলের গ্রুপ-৫ থেকে সফলভাবে উত্তীর্ণ হয় এবং ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান দখল করে। এ পর্যায়ে তারা বসনিয়া ও হারজেগোভিনা, আর্মেনিয়া, সার্বিয়া - এ তিনটি দলের বিপক্ষে জয়লাভ করেছিল। তন্মধ্যে তিনি সার্বিয়া দলের বিপক্ষে অতিরিক্ত খেলোয়াড় হিসেবে বোজান ক্রিককে অভিষেক ঘটিয়েছিলেন। পরবর্তী পর্বে এস্তোনিয়াবেলজিয়ামকে হারিয়ে শতভাগ জয় নিয়ে ফিফা বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে ঠাঁয় পায় দলটি।

১৬ জুন বিশ্বকাপ ফুটবলে স্পেনের বিপক্ষে সুইজারল্যান্ড ১-০ গোলে জয় পায়।[৬] এরপর স্পেন গ্রুপ-এইচ থেকে পরের দুই খেলায় জয়ী হয়ে নক-আউটভিত্তিক ১৬ দলে পৌঁছে। পর্তুগালকে ১-০ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে প্যারাগুয়েকে ১-০ ব্যবধানে হারায়। ৭ জুলাইয়ের সেমি-ফাইনালে জার্মানিকে ১-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ফাইনাল নিশ্চিত করে।[৭] টোটাল ফুটবলের দেশ নেদারল্যান্ডকে চূড়ান্ত খেলার অতিরিক্ত সময়ে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা‎‎'র জয়সূচক গোলে ২০১০ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলের নতুন চ্যাম্পিয়ন হয়।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. «Reportaje: el triunfo del hombre bueno. Del Bosque o la línea recta» elpais.com, 18-7-2010. (in Spanish)
  2. "The only goal scored by Del Bosque with Spain" ((স্পেনীয়) ভাষায়)। Rtve.es। 2010-04-15। সংগৃহীত 2012-07-02 
  3. Spanish Squad for Euro 1980, Haisma, Marcel (28 March 2007)। "European Championship 1980 (Details)"RSSSF। সংগৃহীত 8 January 2009 
  4. "Del Bosque gets Spain coach's job"BBC Sport। 17 July 2008। সংগৃহীত 8 January 2009 
  5. "Spain appoint Del Bosque"। Sky Sports। 17 July 2008। সংগৃহীত 8 January 2009 
  6. Sheringham, Sam (16 June 2010)। "Spain 0–1 Switzerland"BBC Sport (BBC)। সংগৃহীত 17 June 2010 
  7. "Puyol heads Spain into final"ESPNsoccernet (ESPN)। 7 July 2010। সংগৃহীত 8 July 2010 
  8. "Iniesta sinks Dutch with late strike"ESPNsoccernet (ESPN)। 11 July 2010। সংগৃহীত 13 July 2010 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]