ভারতের নির্বাচন কমিশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ভারত নির্বাচন কমিশন
সাধারণ পরিচয়
প্রতিষ্ঠাকাল জানুয়ারি ২৫ ১৯৫০
এখতিয়ার ভারত ভারত সরকার
সদর দপ্তর নয়া দিল্লী
সংস্থার নির্বাহী কর্মকর্তাs নবীন চাওলা, মুখ্য নির্বাচন কমিশনার
 
এস. ওয়াই. কুরাইশি, নির্বাচন কমিশনার
 
ভি. এস. সম্পথ, নির্বাচন কমিশনার
ওয়েবসাইট
http://www.eci.nic.in

ভারত নির্বাচন কমিশন (ইংরেজিঃElection Commission of India) ভারতের একটি স্বশাসিত সংস্থা যেটি দেশটির সকল নির্বাচন পরিচালনা করে থাকে।

উদ্দেশ্য ও কার্যাবলি[সম্পাদনা]

  1. সীমানা পুনর্নির্ধারণ আইন, ১৯৫২ অনুসারে প্রতি দশ বছর অন্তর আয়োজিত জনগণনা অনুযায়ী নির্বাচন কেন্দ্রগুলির সীমা পুনর্নির্দেশ ও ভোটদাতার পরিধির পুনর্বিন্যাস।
  2. ভোটদাতাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করা।
  3. রাজনৈতিক দলগুলিকে স্বীকৃতি দেওয়া।
  4. রাজনৈতিক দল ও নির্দল প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রতীক ঠিক করা।
  5. নির্বাচন প্রক্রিয়ার অনুকূলে নিরপেক্ষ পরিবেশ সৃষ্টি করা।
  6. অবৈধ কিছু ঘটলে নির্বাচন প্রক্রিয়াকে স্থগিত বা বাতিল করা।
  7. কোনো নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি অযোগ্য বিবেচিত হলে এই সংক্রান্ত সুপারিশ ক্ষেত্রবিশেষে রাজ্যপাল বা রাষ্ট্রপতিকে পাঠানো।
  8. ভোটপ্রার্থী ও রাজনৈতিক দলগুলির অবশ্যপালনীয় কর্তব্যের তালিকা ও বিধিনিষেধ (যা নির্বাচনী আচরণবিধি নামে পরিচিত) রচনা ও প্রয়োগ।
  9. আকাশবাণী ও দূরদর্শনে ভোটপ্রার্থীদের প্রচারের সময় বণ্টন।
  10. প্রার্থীপিছু নির্বাচনজনিত ব্যয়ের সীমা নির্ধারণ করা।
  11. প্রযুক্তিগত বিষয়ে (যেমন বৈদ্যুতিন ভোটযন্ত্রের ব্যবহার) ভোটদাতাদের সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

গঠন, নিয়োগ ও অপসারণ[সম্পাদনা]

ভারতীয় সংবিধানের ৩২৪ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ নির্বাচন প্রক্রিয়া পরিচালনা করার জন্য ভারতের নির্বাচন কমিশন একটি স্বাধীন সংবিধান-স্বীকৃত কর্তৃপক্ষ।

ভারতের রাষ্ট্রপতি মুখ্য নির্বাচন কমিশনারকে নিযুক্ত করেন। প্রয়োজনে একাধিক নির্বাচন আধিকারিককে মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের সহকারী হিসেবেও নিয়োগ করা যেতে পারে। ভারতে নির্বাচন কমিশন প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৫০ সালে। এর পর ১৯৮৯ সালের অক্টোবর মাস পর্যন্ত মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে দু’জন অতিরিক্ত নির্বাচন কমিশনার ছিলেন। ১৯৯০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে এই দুটি অতিরিক্ত পদ অবলুপ্ত করা হয়। অবশ্য ১৯৯৩ সালের ১ অক্টোবর পুনরায় দু’জন অতিরিক্ত নির্বাচন কমিশনার নিযুক্ত করা হয় এবং এই সংক্রান্ত আইনটি সংশোধনও করা হয়। সংশোধিত আইন অনুযায়ী, বর্তমানে ভারতে তিন জন নির্বাচন কমিশনার বহাল রয়েছেন। এঁদের সংখ্যাগরিষ্ঠের সিদ্ধান্তই নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত হিসেবে বলবৎ হয়। ভারতীয় সংসদের আইন অনুযায়ী, নির্বাচন কমিশনারদের মেয়াদ স্থির করা হয়।

মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের অপসারণ ভারতের সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অপসারণের নিয়মের অনুরূপ। অবশ্য মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের সুপারিশ অনুযায়ীও রাষ্ট্রপতি অপর নির্বাচন কমিশনারকে অপসারিত করতে পারেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]