বারগার্ল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বারগার্ল হচ্ছে এমন একজন নারী যিনি অতিথি সেবিকা যা নর্তকী হিসেবে কাজ করেন এবং পৃষ্ঠপোষকদের সঙ্গ ও যৌনসেবা দিয়ে থাকেন। এ সেবার প্রকৃত প্রকৃতি নির্ভর করে বারের প্রকারভেদ ও অঞ্চলের ওপর। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে পুরুষরাই গ্রাহক হয়ে থাকেন, অনেক সময় আবার মহিলারাও গ্রাহক হয়ে থাকেন। এসব বারের প্রকারের মধ্যে আছে অতিথি সেবক বার যা পূর্ব এশিয়াতে বেশি দেখা যায়, গো গো বার,বিয়ার বার, ড্যান্স বার যা ভারতে বেশি দেখা যায়। বারমেইডের সাথে এ বিষয়কে এক করা যায় না, যেখানে বারমেইড শুধুমাত্র পানীয় পরিবেশন করে ও তার কাছ থেকে কোন ধরনের যৌন সেবা আসা করা যায় না। অনেক বার তাই বারগার্ল রাখে যারা যৌন সেবা দিয়ে থাকে।

সেবাসমূহ[সম্পাদনা]

থাইল্যান্ডফিলিপাইনে এ ধরনের সেবা বেশি দেখা যায়। সেখানে অনেক বারগার্ল যৌনকর্মী হিসেবে কাজ করে গণিকালয়ে। বারগার্লরা কমিশন পায় খদ্দেরের কাছে পানীয় নিয়ে গেলে ও মাঝে মাঝে মুক্ত করা টাকার অংশ পায় যখন খদ্দের তাকে বারের বাইরে নিয়ে যেতে চায়। তাদের জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণের পানীয় বরাদ্দ রাখা হয়। অনেক বারগার্ল খদ্দেরকে আলাদাভাবে সেবা দেয়। গো গো বারে তাদের থেকে করা যায় মঞ্চে নাচ করা, কখনো বিকিনি পরে বা অর্ধেক নগ্ন হিসেবে অথবা পুরো নগ্ন হয়ে।

বার ফাইন[সম্পাদনা]

যখন খদ্দের বারের কোন কর্মী বা অতিথি সেবিকা বা নর্তকীকে বাইরে নিয়ে যেতে চায় বিনোদনের জন্য তখন যে টাকা তারা বার কর্তৃপক্ষকে দিয়ে থাকে তাকেই বলে বার ফাইন। এখানে ঐ কর্মী তাড়াতাড়ি তার কাজ থেকে ছুটি পায় ও খদ্দেরের সাথে বারের বাইরের ছোট রুমে বা বাইরে যে কোন জায়গায় চলে যেতে পারে কিছু সময়ের জন্য। থাইল্যান্ড ও ফিলিপাইনের গো গো বারে এ ধরনের সেবা পাওয়া যায়।

পতিতাবৃত্তি[সম্পাদনা]

বারগার্লরা পতিতা হিসেবেও কাজ করে। অনেকে পশ্চিমাদের মতো এক দিনে যত বেশি খদ্দের পাওয়া যায় তার সন্ধাম করে। তারা মূলত সংক্ষিপ্ত সময় দিতে পারে খদ্দেরকে। অনেকে আবার সারা রাতের হিসেবে খদ্দের নেন। এটা আবার কয়েকদিনের জন্যও হতে পারে। দীর্ঘ সময়ের জন্য বেশি দাম দিতে হয় স্বল্প সময়ের চেয়ে।

অবস্থা[সম্পাদনা]

অঞ্চলভেদে বারগার্লদের অবস্থা পরিবর্তিত হয়ে থাকে। অনেকে একা থাকেন ও ভালো অর্থ পান বার থেকে। অনেককে আবার বারেই থাকতে হয় ছোট রুমে এবং তার উপার্জনও বেশি হয় না। অনেক সময় তারা সহিংস ঘটনার স্বীকার হন যেমন-ধর্ষণ ও হত্যা। আবার অনেক বারগার্ল যৌনতা বাহিত রোগ যেমন এইডসে আক্রান্ত হয়ে থাকেন।[১]

আইনগত অবস্থান[সম্পাদনা]

অনেক দেশে পতিতাবৃত্তিকে নিদারুণ অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। যেমন- ফিলিপাইনে এটাকে বলা ব্যবসা বিরোধী ব্যাক্তিগত আইনের আড়ালে চালানো হয়। থাইল্যান্ডে বার ফাইন জাতীয় পতিতাবৃত্তি নিষিদ্ধ হলেও এটা সহ্য করা হয। আমেরিকান সৈন্যদের জন্য বারফাইন নিষিদ্ধ সামরিক আইন অনুযায়ী।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.hawaii.edu/hivandaids/Determinants%20of%20Extramarital%20Sex%20in%20the%20Philippines.pdf

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]