বরুড়া উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(বরুরা উপজেলা থেকে পুনর্নির্দেশিত)

বরুড়া বাংলাদেশের কুমিল্লা জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

অবস্থান[সম্পাদনা]

বরুড়া উপজেলা জেলা সদর থেকে ২৬ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এ উপজেলার উত্তরে বুড়িচং উপজেলা, দক্ষিণে লাকসাম, পূর্বে কুমিল্লা সদর এবং পশ্চিমে চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলা।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

বরুড়া থানা ২৪ মার্চ, ১৯৪৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ২৪ মার্চ, ১৯৮৩ সালে উপজেলায় রূপান্তরিত হয়। বরুড়া উপজেলায় ১টি পৌরসভা ও ১৬টি ইউনিয়ন বিদ্যমান। পৌরসভার নাম বরুড়া পৌরসভা এবং ইউনিয়নগুলো হলঃ আগানগর, ভাউকসার, ভবানীপুর, খোশবাস (উত্তর), খোশবাস (দক্ষিণ), দেওড়া, ঝলম, চিতড্ডা, শাকপুর, শিলমুড়ি (উত্তর), শিলমুড়ি (দক্ষিণ), গালিমপুর, আড্ডা, আদ্রা, পয়ালগাছা এবং লক্ষীপুর ইউনিয়ন।

আয়তন ২৪২ বর্গ কিলোমিটার
জনসংখ্যা ৪,০৫,৬১১ জন
জনসংখ্যার ঘনত্ব ১,৪৩৫ জন
পৌরসভা ১ টি
ইউনিয়ন ১৬ টি
গ্রাম ৩৩৫ টি

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বৌদ্ধদের ধর্মীয় খেতাব বড়ুয়া। এছাড়াও এ অঞ্চলে অধিকাংশ স্থানে পান চাষ করা হত যা এখনও বিদ্যমান। যারা পান চাষ করে তাদেরকে বারই বলে এবং চাষকৃত জমিকে (বরজ) আঞ্চলিক ভাষায় বর বলা হয়। ফলে ধর্মীয় প্রভাব এবং সংস্কৃতিক ঐতিহ্য এ দুটি বিষয়কে সমন্বয় করে বরুড়া উপজেলার নামকরণ করা হয়েছে।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

বরুড়া উপজেলাধীন গালিমপুর ইউনিয়নের ভাউকসার নামক স্থানে নবাব ফয়জুন্নেসা জমিদার বাড়ি ও ভাউকসার কেন্দ্রীয় মসজিদ, ঐতিহাসিক দর্শনীয় স্থান হিসাবে পরিচিত এবং লগ্নসার আনন্দ বৌদ্ধ বিহার, লগ্নসার রোহিতগিরি তপোবন বৌদ্ধ বিহার।

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

বিবিধ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

এক নজরে বরুড়া
দর্শনীয় স্থান
বরুড়া উপজেলার পটভূমি

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


কুমিল্লা জেলা Flag of Bangladesh.svg
উপজেলা: হোমনা | লাকসাম | মুরাদনগর | দেবীদ্বার | বরুড়া | দাউদকান্দি | বুড়িচং | চান্দিনা | চৌদ্দগ্রাম | নাঙ্গলকোট | ব্রাহ্মণপাড়া | কুমিল্লা সদর | সদর দক্ষিণ | মেঘনা | মনোহরগঞ্জ | তিতাস