বব উলমার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বব উলমার
Bob Woolmer.JPG
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম রবার্ট অ্যান্ড্রু উলমার
জন্ম (১৯৪৮-০৩-১৪)১৪ মার্চ ১৯৪৮
কানপুর, ইউনাইটেড প্রভিন্স (উত্তর প্রদেশ), ভারত অধিরাজ্য (ভারত)
মৃত্যু ১৮ মার্চ ২০০৭(২০০৭-০৩-১৮) (৫৮ বছর)
কিংসটন, জ্যামাইকা
ডাকনাম উলি
উচ্চতা ৬ ফুট ০ ইঞ্চি (১.৮৩ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরণ ডানহাতি
বোলিংয়ের ধরণ ডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকা অল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক (ক্যাপ ৪৬৩) ৩১ জুলাই ১৯৭৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট ২ জুলাই ১৯৮১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক (ক্যাপ ১৬) ২৪ আগস্ট ১৯৭২ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই ২৮ আগস্ট ১৯৭৬ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছর দল
১৯৬৮-১৯৮৪ কেন্ট
১৯৮১-১৯৮২ ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স
১৯৭৩-১৯৭৬ নাটাল
কর্মজীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৯ ৩৫০ ২৯০
রানের সংখ্যা ১০৫৯ ২১ ১৫৭৭২ ৪০৭৮
ব্যাটিং গড় ৩৩.০৯ ৫.২৫ ৩৩.৫৫ ২০.৩৯
১০০/৫০ ৩/২ ০/০ ৩৪/৭১ ১/১৭
সর্বোচ্চ রান ১৪৯ ২০৩ ১১২*
বল করেছে ৫৪৬ ৩২১ ২৫৮২৩ ১৩৪৭৩
উইকেট ৪২০ ৩৭৪
বোলিং গড় ৭৪.৭৫ ২৮.৮৮ ২৫.৮৭ ২০.৬৪
ইনিংসে ৫ উইকেট ১২
ম্যাচে ১০ উইকেট n/a n/a
সেরা বোলিং ১/৮ ৩/৩৩ ৭/৪৭ ৬/৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১০/– ৩/– ২৩৯/১ ৯৮/–
উত্স: ক্রিকেটআর্কাইভ.কম, ২২ আগস্ট ২০০৭

রবার্ট অ্যান্ড্রু উলমার (ইংরেজি: Robert Andrew Woolmer; জন্ম: ১৪ মে, ১৯৪৮ - মৃত্যু: ১৮ মার্চ, ২০০৭) একাধারে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার, পেশাদার ক্রিকেট কোচ ও পেশাদার ক্রিকেট ধারাভাষ্যকার ছিলেন। ইংল্যান্ড দলের পক্ষ হয়ে ১৯টি টেস্ট ও ৬টি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেন। পরবর্তীকালে দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়ারউইকশায়্যারপাকিস্তান দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ভারতের উত্তর প্রদেশের কানপুরে উলমার জন্মগ্রহণ করেন। ক্লেরেন্স উলমার ছিলেন তাঁর বাবা। রঞ্জি ট্রফিতে তাঁর বাবা খেলতেন। দশ বছর বয়সে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে হানিফ মোহাম্মদের অবিস্মরণীয় ৪৯৯ রানের বিশ্বরেকর্ডের ইনিংসটি দেখেছিলেন উলমার।[১] এর প্রায় ৩৫ বছর পর ওয়ারউইকশায়্যারের কোচের দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে হানিফের রানটি অতিক্রমণকারী ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানকাউন্টি’র ব্যাটসম্যান ব্রায়ান লারা’র অপরাজিত ৫০১ রানের নতুন বিশ্বরেকর্ডীয় ইনিংসটিরও দর্শক ছিলেন তিনি।[১]

১৯৭০-এর দশকে পাকিস্তানী ব্যাটসম্যান মুশতাক মোহাম্মদ রিভার্স সুইপের সাহায্যে নিয়মিতভাবে ব্যাটিং করতেন। তাঁর ভাই হানিফ মোহাম্মদকে মাঝে-মধ্যে রিভার্স সুইপের আবিষ্কারক হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। কিন্তু বব উলমান এ ধরণের স্ট্রোককে জনপ্রিয় করতে উদ্যোগী ভূমিকা পালন করেন।[২][৩]

দেহাবসান[সম্পাদনা]

১৮ মার্চ, ২০০৭ তারিখে বব উলমার আকস্মিকভাবে জ্যামাইকায় মৃত্যুবরণ করেন। ২০০৭ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে আয়ারল্যান্ডের কাছে পাকিস্তানের অপ্রত্যাশিত পরাজয়ের অল্প কয়েক ঘন্টা পর এ ঘটনাটি ঘটে। এর পরপরই জ্যামাইকার পুলিশ এ মৃত্যুর তদন্ত করতে শুরু করে। নভেম্বর, ২০০৭ তারিখে জ্যামাইকার বিচারকমণ্ডলী জানান যে, অপর্যাপ্ত প্রামাণ্য দলিলের ফলে এ ঘটনাটি অপরাধ আইন কিংবা স্বাভাবিক কারণ হিসেবে চিহ্নিত হয়ে রয়েছে।[৪]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

১৯৭৬ সালে তিনি উইজডেন কর্তৃক বর্ষসেরা পাঁচজন ক্রিকেটারের একজনরূপে মনোনীত হন। পাকিস্তানের ক্রিকেটে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখায় সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার সিতারা-ই-ইমতিয়াজ (মরণোত্তর) পদকে ভূষিত করা হয়।[৫] তাঁর স্মরণে লাহোরের ক্রিকেট একাডেমীর নাম পরিবর্তন করে ‘বব উলমার ন্যাশনাল ইনডোর ক্রিকেট একাডেমী লাহোর’ রাখা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Wikinewspar2