প্রোটিয়োমিক্‌স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

প্রোটিয়োমিক্‌স হল প্রোটিনসমূহের গঠন ও কাজ নিয়ে বৃহৎ মাত্রার গবেষণা। বিজ্ঞানের এই শাখার নামকরণ করা হয় জিনোমিক্‌স-এর সাথে মিল রেখে, এবং যদিও প্রোটিয়োমিক্‌স-কে জিনোমিক্‌স-এর পরবর্তী ধাপ হিসেবে গণ্য করা হয়, আদতে প্রোটিয়োমিক্‌স অনেক বেশি জটিল। জিনোম মোটামুটি ধ্রুব একটি সত্ত্বা (constant entity), কিন্তু প্রোটিয়োম কোষভেদে ভিন্ন হয় এবং জিনোম ও পরিবেশের সাথে প্রাণ-রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে নিয়ত পরিবর্তিত হয়। একই জীবদেহে অবস্থানভেদে, জীবনচক্রের পর্যায়ভেদে ও পরিবেশভেদে প্রোটিন এক্সপ্রেশন একেবারেই ভিন্ন হতে পারে।

প্রোটিয়োম বলতে কোন জীবদেহের সমস্ত জীবনচক্র জুড়ে বিদ্যমান সমস্ত রকমের প্রোটিনের সমষ্টিকে বোঝায়। যেহেতু প্রোটিনসমূহ একাটি জীবের জীবনে কেন্দ্রীয় ভূমিকা পালন করে, বায়োমার্কারসমূহের (বিশেষ করে যেগুলো কোন নির্দিষ্ট রোগকে নির্দেশ করে) আবিষ্কারে প্রোটিয়োমিক্‌স অসামান্য অবদান রাখতে পারে।

মানুষের জিনোমের একটি মোটামুটি খসড়া বিজ্ঞানীরা পেয়ে গেছেন; এখন বহু গবেষক পরীক্ষা করছেন কী ভাবে জিন ও প্রোটিন পারস্পরিক ক্রিয়ার মাধ্যমে অন্যান্য প্রোটিন গঠন করে। মনুষ্য জিনোম প্রকল্পের গবেষণায় একটি চমকপ্রদ তথ্য বেরিয়ে এসেছে যে মানুষের জিনোমে প্রোটিন কোড করে এমন জিনের সংখ্যা (~২২,০০০) মানবদেহের প্রোটিয়োমে প্রোটিনের সংখ্যার (~৪০০,০০০) তুলনায় অনেক কম।

মানবদেহের সমস্ত প্রোটিনের তালিকা তৈরি করা ও এদের কার্যপ্রণালী নির্ণয় করা বিজ্ঞানীদের জন্য এক দুরূহ চ্যালেঞ্জ। এ ব্যাপারে আন্তর্জাতিক সমন্বয়ের লক্ষ্যে গঠিত হয়েছে "হিউম্যান প্রোটিয়োম অর্গানাইজেশন" (HUPO)।