পার্সোনা নন গ্রাটা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
স্যার নিকোলাস থ্রগমর্টন, ফ্রান্সে ইংল্যান্ডের অন্যতম কূটনীতিক। ১৫৬০ সালে তিনি ফ্রান্স কর্তৃক পার্সোনা নন গ্রাটা ঘোষিত হয়েছিলেন।

পার্সোনা নন গ্রাটা (লাতিন: Persona non grata) শব্দের আক্ষরিক অর্থ অবাঞ্চিত বা অগ্রহণযোগ্য ব্যক্তিকূটনীতিতে পার্সোনা নন গ্রাটা বলতে এমন বহির্দেশীয় ব্যক্তিকে বোঝায় যার নির্দিষ্ট কোন একটি রাষ্ট্রে অবস্থান ও প্রবেশ ঐ রাষ্ট্রের সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সংক্ষেপে পার্সোনা নন গ্রাটা বলতে এমন ব্যক্তিকে বোঝায় যিনি গ্রাহক রাষ্ট্র কর্তৃক অগ্রহণযোগ্য ও অবাঞ্চিত ঘোষিত হয়েছে। এ ধরনের ব্যক্তি অবাঞ্চিত বলে ঘোষিত হলেই ঐ দেশ থেকে "প্রত্যাহারযোগ্য" বলে বিবেচিত হবে।

কূটনৈতিক ব্যবহার[সম্পাদনা]

১৯৬১ সালের কূটনৈতিক সম্পর্ক বিষয়ক ভিয়েনা কনভেনশনের ৯ নম্বর অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে যে, গ্রাহক রাষ্ট্র প্রেরক রাষ্ট্রকে যেকোন সময়ে এই মর্মে নোটিশ প্রদান করতে পারে যে, মিশন-প্রধান, কোন কূটনৈতিক কর্মচারী বা অন্য কাজে নিয়োজিত কর্মচারীকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়েছে। এ একতরফা নোটিশ প্রদানের জন্য গ্রাহক রাষ্ট্রকে কোন কারণ দর্শাতে হবে না।[১] গ্রাহক রাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে পৌঁছাবার পূর্বে কোন ব্যক্তিকে পার্সোনা নন গ্রাটা ঘোষণা করা যাবে।

এসব ক্ষেত্রে প্রেরক রাষ্ট্র সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে প্রত্যাহার করবে অথবা উক্ত মিশনের সাথে তার সম্পর্কচ্ছেদ ঘটাবে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "G. R. Berridge website"। Grberridge.diplomacy.edu। সংগৃহীত 2012-01-09 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]