পটারমোর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পটারমোর
PottermoreLogo.jpg
ইউআরএল pottermore.com
সাইটের ধরন হ্যারি পটার ওয়েবসাইট
উপলব্ধ ভাষা ইংরেজি, জার্মান, স্পেনীয়, ফরাসি, ইতালীয়
মালিক জে কে রাউলিং
চালুর তারিখ ৩১ জুলাই ২০১১[১] (প্রথম এক মিলিয়ন নিবন্ধঙ্কারীর জন্য)
০১ অক্টোবর ২০১১[১] (সকলের জন্য)

পটারমোর (ইংরেজিতে Pottermore) জে কে রাউলিং, TH_NK এবং সোনি এর যৌথ উদ্যোগে নির্মিত একটি আসন্ন ওয়েবসাইট।[২][৩] ওয়েবসাইটটি মূলত হ্যারি পটার উপন্যাস সিরিজের সাতটি বইয়ের ই-বুক এবং অডিওবুক সংস্করণ বিক্রি করবে, পাশাপাশি হ্যারি পটারের জাদু দুনিয়ায় উল্লেখিত স্থান, কাল, চরিত্র ও অন্যান্য বিষয়ের জন্য রাউলিং লিখিত প্রায় ১৮০০০ শব্দবিশিষ্ট অতিরিক্ত তথ্য, ব্যাকগ্রাউন্ড ও সেটিংস প্রভৃতি বিষয় অন্তর্ভুক্ত করবে, যা পূর্বে কখনো প্রকাশিত হয় নি।[১][৪] ওয়েবসাইটটি ৩১ জুলাই ২০১১ (রাউলিং এবং তার সৃষ্ট চরিত্র হ্যারি পটারের জন্মদিন) নিবন্ধীকরণ সম্পন্ন করা প্রথম এক মিলিয়ন ভক্তদের জন্য এবং ১ অক্টোবর ২০১১ সকলের জন্য উন্মুক্ত করা হবে।[১][৫]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ঘোষণা[সম্পাদনা]

২০১১ সালের জুন মাসে সর্বপ্রথম একটি ওয়েবপেজে প্রকল্পটি ঘোষিত হয়।[৬] ওয়েবপেজে ইউটিউব চ্যানেলের একটি লিঙ্ক সংযুক্ত করা হয় যেখানে ওয়েবসাইটটির জন্য কাউন্টডাউন দেখানো হয়।[২][৭] ২৩ জুন রাউলিং একটি ইউটিউব ভিডিওর মাধ্যমে সাইটটির কিছু বিবরণ প্রকাশ করেন।[১][৭]

ফিচার[সম্পাদনা]

ব্যবহারকারীরা ভিন্ন আঙ্গিকের পঠন অভিজ্ঞতা অথবা "মুহূর্ত"- এর সঙ্গে অংশগ্রহণ করতে পারবে যার সূচনা হবে প্রথম বই হ্যারি পটার অ্যান্ড দ্য ফিলোসফার্স স্টোন দিয়ে।[৮] একটি ব্যবহারকারী নাম নির্বাচনের মাধ্যমে, ব্যবহারকারীরা সাইটটির অধ্যায়সমূহে হ্যারিকে "অনুসরণ" করার অভিজ্ঞতা লাভ করতে পারবে।[৮] অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে, ব্যবহারকারীর ডায়াগন অ্যালি ভ্রমণ করতে পারবে, যে কোন একটি হগওয়ার্টস হাউজের সদস্য হতে পারবে এবং বিভিন্ন জাদুমন্ত্র শিখতে সক্ষম হবে।[৮] কিভাবে এসব ওয়েবসাইটটিতে অন্তর্ভুক্ত হবে তা এখনও অজানা।[৯] তবে এধরনের অনলাইন বই পাঠের অভিজ্ঞতার যৌক্তিকতার ব্যাপারে অনলাইন বই বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান যেমন আমাজন তাদের উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।[১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ ১.২ ১.৩ ১.৪ Cooke, Sonia Van Gilder (2011-06-19)। "'Pottermore' Secrets Revealed: J.K. Rowling's New Site is E-Book Meets Interactive World"Time। সংগৃহীত 2011-06-10 
  2. ২.০ ২.১ "New Rowling mystery project spellbinds"Sydney Morning Herald। 2011-06-17। সংগৃহীত 2011-06-23 
  3. "J.K. Rowling announces Pottermore"। TH_NK। 2011-06-23। সংগৃহীত 2011-06-24 
  4. Solon, Olivia (2011-06-23)। "J.K. Rowling's Pottermore reveal: Harry Potter e-books and more"Wired UK (Ars Technica)। সংগৃহীত 2011-06-24 
  5. "Pottermore Press Release" (PDF)। Pottermore.com। 2011-06-23। সংগৃহীত 2011-06-23 
  6. "More ‘Harry’: Pottermore website raises fan hopes"Toronto Star। 2011-06-16। সংগৃহীত 2011-06-23 
  7. ৭.০ ৭.১ "J.K. Rowling has mysterious new Potter website"The Sacramento Bee। 2011-06-16। সংগৃহীত 2011-06-23 
  8. ৮.০ ৮.১ ৮.২ "Pottermore website launched by JK Rowling as 'give-back' to fans"। 2011-06-23। সংগৃহীত 2011-06-28 
  9. "New Pottermore Website Will Offer Interactive Reading Experience and Harry Potter Ebooks"। 2011-06-23। সংগৃহীত 2011-06-28 
  10. "Harry Potter And "Pottermore" Could Force Amazon To Open Up The Kindle"। 2011-06-23। সংগৃহীত 2011-07-02 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]