নিকোলো পাগানিনি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নিকোলো পাগানিনি (১৮১৯)।

নিকোলো পাগানিনি (২৭ অক্টোবর ১৭৮২- ২৭ মে ১৮৪০) ছিলেন একজন ইতালিয়ান বেহালা বাদক, গিটারিস্ট এবং সুরকার। তিনি ছিলেন তার সময়কার ইতালির সর্বশ্রেষ্ঠ বেহালা বাদক এবং তার রচিত সুর ও পদ্ধতিগুলো আধুনিক যুগের বেহালা বাদকদের জন্য একটি অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে আছে। ক্যাপ্রিসি নং.২৪ ইন এ মাইনর হল পাগানিনির জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ কম্পোজিশন। এটি পরবর্তিতে অনেক বিশিষ্ট বেহালা বাদকদের অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

নিকোলো পাগানিনি ১৭৮২ সালে ইতালির জেনোয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা ছিলেন এন্টোনিয় পাগানিনি ও মা ছিলেন তেরেসা পাগানিনি। নিকোলো ছিলেন ছয় ভাইবোনের মধ্যে তৃতীয়। তার বাবা এন্টোনিও ছিলেন একজন ব্যবসায়ী যিনি কোন ব্যবসাতেই সুবিধা করে উঠতে পারেন নি। ব্যবসা থেকে লাভ না আসায় তিনি ম্যান্ডোলিন (গিটারের মত তারযুক্ত তবে ছোট এক ধরনের বাদ্যযন্ত্র) বাজিয়ে পরিবারের খরচ নির্বাহ করতেন। তার বাবার সহচর্যে থেকে নিকোলো চুব ছোটবেলা থেকেই সঙ্গীত সম্পর্কে ধারনা পান। মাত্র সাত বছর বয়সেই তার বেহালায় হাতেখড়ি হয়।

শেষ জীবন[সম্পাদনা]

নিকোলো জীবনভর বিভিন্ন ধরনের দীর্ঘস্থায়ী রোগে ভুগেছেন যা তার সঙ্গিতচর্চাকে ব্যাহত করেছে।[১][২] উপরন্তু ঘন ঘন কনসার্ট করা এবং অনিয়মতান্ত্রিক জীবন তার রোগব্যধিকে আরও উসকে দিয়েছে। কনসার্টে অংশ নেওয়ার জন্য নিকোলো পুরো ইউরোপজুড়ে ঘুরে বেড়িয়েছেন। ১৮৩৪ সালের দিকে তিনি কনসার্ট করা একেবারে ছেড়ে দেন এবং তার পৈত্রিক নিবাস ইতালির জেনোয়ার ফেরত যান তবে ক্যাসিনো ব্যবসা ফাঁদার খাতিরে তিনি ১৮৩৬ সালের দিকে প্যারিসে চলে আসেন। অসুস্থতাজনিত কারণে ১৮৪০ সালে প্যারিসেই তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

হোয়াইট হাউজের একটি সংগীত সন্ধ্যায় পাগানিনির ক্যান্তাবিলে বাজানো হচ্ছে।

বেল এবং ইসবেন – শুধুমাত্র অডিও ভার্শন

জন এবং মাইকেল

এই ফাইলসমূহ শুনতে অসুবিধা? মিডিয়া সাহায্য দেখুন।

কম্পোজিশন[সম্পাদনা]

নিকোলো পাগানিনির বিখ্যাত কম্পোজিশনের মধ্যে ক্যাপ্রিসি নং.২৪ ইন এ মাইনর অন্যতম। এই কম্পোজিশনটি খুব সম্ভবত ১৮০৫ থেকে ১৮০৯ সালের মধ্যে রচিত।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Myron R. Schoenfeld, MD (2 January 1978)। "Nicolo Paganini, January 2, 1978, Schoenfeld 239 (1): 40 – JAMA"। Jama.ama-assn.org। সংগৃহীত 12 November 2011 
  2. "Paganini's left hand"। Violinist.com। সংগৃহীত 12 November 2011 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]