নানচিনের গণহত্যা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

নানচিনের গণহত্যা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় সংঘটিত জাপানি যুদ্ধাপরাধগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি সাড়া জাগানো ঘটনা। মার্কো পোলো সেতু ঘটনার পর চীন-জাপান যুদ্ধ শুরু হয়ে যায় এবং ১৯৩৭ সালের ১৩ই ডিসেম্বর, বহুদিন অবরোধের পর, প্রায় দেড় লাখ জাপানি সৈন্য চীনা শহর নানচিনের দখল নেয়। এর পর প্রায় কয়েক সপ্তাহ ধরে শহরটিতে এক অবিশ্বাস্য মাত্রার গণহত্যা সংঘটিত হয়। জাপানি সৈন্যরা কখনও পরিকল্পিতভাবে, কখনও কেবল আনন্দের উদ্দেশ্যে অনির্দিষ্টভাবে শহরটির চীনা লোকদেরকে হত্যা ও ধর্ষণ করা শুরু করে। সম্ভবত ৪,০০,০০০ (চার লাখ) চীনাকে হত্যা করা হয়, আর সেই সাথে ধর্ষিত হন নানচিনের হাজার হাজার নারী। গণহত্যার এই ঘটনা সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ পাওয়ার পরও জাপানি সেনাবাহিনীর নেতৃত্ব ও সম্রাট হিরোহিতো এর বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেন নি। যুদ্ধ শেষ হবার পর এই গণহত্যার সাথে জড়িত বেশির ভাগ সামরিক নেতার কোন বিচার বা শাস্তি হয়নি।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]