দধীচি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

দধীচি ছিলেন প্রাচীন ভারতের রূপকথার একজন ঋষি। প্রাচীন ভারতের পৌরাণিক কাহিনীতে রয়েছে অসুরদের দৈত্য বৃত্তাসুর স্বর্গের দেবতাদের রাজা ইন্দ্রের কাছ থেকে তার স্বর্গরাজ্য কেড়ে নেয়। সে জানতে পেড়ে ছিল স্বর্গরাজ্য ফিরে পেতে হলে সাধারণ কোনো অস্ত্র দিয়ে নয় ধাতব অস্ত্র দিয়ে বৃত্তাসুরকে হত্যা করতে হবে। এই কথা শুনে দধীচি নামক একজন মহুমানি সাধক আত্মত্যাগ করতে রাজি হন। দধীচিকে হত্যা করা হয় এবং তার দেহের হাড় দিয়ে বৃত্তাসুরকে হত্যার জন্য অস্ত্র তৈরি করা হয়। যার নামকরণ করা হয় বজ্র। দেবতা রাজা ইন্দ্র এই বজ্র দিয়ে বৃত্তাসুরকে হত্যা করতে সক্ষম হন এবং স্বর্গরাজ্য ফিরে পান। প্রাচীন ভারতের লোকমুখে এই কাহিনী প্রচলিত ছিল। বিভিন্ন সময় দধীচিকে উদ্ধৃত করে নানা গল্প, উপন্যাস, কবিতা রচনা করা হয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]