তুর্কমেনীয় ভাষা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
তুর্কমেনীয়
Türkmen dili
তুর্ক্মেন দিলি
দেশোদ্ভব তুর্কমেনিস্তান, ইরান, আফগানিস্তান, তুরস্ক
দেশীয় ভাষাভাষী প্রায় ৬০ লক্ষ  (তারিখ হারিয়ে গিয়েছে)
ভাষা পরিবার
আলতাই?
প্রাতিষ্ঠানিক মর্যাদা
সরকারি ভাষা তুর্কমেনিস্তান
ভাষা কোডসমূহ
আইএসও ৬৩৯-১ tk
আইএসও ৬৩৯-২ tuk
আইএসও ৬৩৯-৩ tuk
[[File:
TurkmenLg.png

Map showing location of Turkmen
|300px]]

তুর্কমেন ভাষা তুর্কীয় ভাষাপরিবারের অন্তর্গত একটি ভাষা যা তুর্কমেনিস্তানের রাষ্ট্রভাষা। তুর্কমেন ভাষাটিকে তুর্কীয় ভাষাসমূহের দক্ষিণ শাখার অন্তর্ভুক্ত করা হয়। তুর্কি ভাষা ও আজারবাইজানি ভাষা এই ভাষাটির ভ্রাতৃস্থানীয় ভাষা। প্রায় ৬০ লক্ষ লোক ভাষাটিতে কথা বলে। এর মধ্যে তুর্কমেনিস্তানে ৩৫ লক্ষ, ইরানে ২০ লক্ষ এবং আফগানিস্তানে ৫ লক্ষ বক্তা আছে। এছাড়া ইরাক, কাজাকিস্তান, কিরগিজিস্তান, পাকিস্তান, তাজিকিস্তান, তুরস্ক ও উজবেকিস্তানে তুর্কমেন ভাষাভাষী দেখতে পাওয়া যায়।

তুর্কীয় ভাষাভাষী কিছু লোকের দল মধ্য এশিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে ৫ম-৬ষ্ঠ শতকের দিকে অভিবাসী হয়। ১০ম শতকে মঙ্গোলিয়া থেকে ওঘুজ জাতির লোকেরা উরাল পর্বতমালা ও আরল সাগরের মধ্যবর্তী অঞ্চলে চলে আসে। ঐ সময়েই প্রথম তুর্কমেন শব্দটি ব্যবহার করা হয়। আঞ্চলিক বিভেদ সত্ত্বেও এই গোত্রগুলি নিজেদেরকে একটি একক তুর্কমেন জাতি হিসেবে গণ্য করা শুরু করে।

১৯৯০ সালে তুর্কমেনিস্তান স্বাধীনতা ঘোষণা করার পর রুশ ভাষার পাশাপাশি তুর্কমেন ভাষা জাতীয় ভাষার মর্যাদা লাভ করে। তুর্কমেনিস্তানের ৯০% লোকের মাতৃভাষা এই তুর্কমেন ভাষা। তবে প্রায় ৫০% লোক তুর্কমেন ও রুশ উভয় ভাষাতেই কথা বলতে পারে। বর্তমানে এটি সরকারী ও প্রশাসনিক কর্মকাণ্ডে ইংরেজি ও রুশ ভাষার পাশাপাশি ব্যবহৃত হয়। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলিতে তুর্কমেন ভাষাকে শিক্ষার মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করা হয়। বর্তমানে উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রেও এটিকে মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করার চেষ্টা চলছে। রেডিও টেলিভিশনে তুর্কমেন ভাষা ব্যবহার করা হয়। ভাষাটিতে অনেকগুলি সংবাদপত্র, ম্যাগাজিন এবং বহু বই প্রকাশিত হয়।

লিখন পদ্ধতি[সম্পাদনা]

তুর্কমেন ভাষার সাহিত্যের ইতিহাস ১৪শ শতক থেকে শুরু হয়। ১৮শ-১৯শ শতকে এসে ধ্রুপদী তুর্কমেন ভাষা লেখা সাহিত্য বিকাশ লাভ করে। ১৯১৭ সালের রুশ বিপ্লবের পর কথ্য তুর্কমেন ভাষার উপর ভিত্তি করে সাহিত্য রচিত হওয়া শুরু হয়। প্রায় ১৯৩০ পর্যন্ত ভাষাটি আরবি লিপি ব্যবহার করে লেখা হত। ঐ বছর তুর্কি ভাষার লিখন পদ্ধতি অনুসারে লাতিন বর্ণমালাভিত্তিক একটি লিপি প্রণয়ন করা হয়। কিন্তু ১৯৪০ সালে রুশীকরণ অভিযানের অংশ হিসেবে সিরিলীয় লিপি দিয়ে এটিকে প্রতিস্থাপন করা হয়। বর্তমানে আফগানিস্তানে তুর্কমেন ভাষা আরবি ও সিরিলীয় লিপিতে এবং ইরানে কেবল আরবি লিপিতে লেখা হয়।

১৯৯১ সালে স্বাধীন তুর্কমেনিস্তান প্রতিষ্ঠার পর লাতিন বর্ণমালা ভিত্তিক একটি লিপি প্রামাণ্য লিপি হিসেবে গ্রহণ করা হয়। এটি তুর্কি বর্ণমালার উপর ভিত্তি করে তৈরি এবং এতে ৩০টি বর্ণ আছে।