জলচর পাখি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জলচর পাখিদের পায়ের গঠন এদের পানিতে সহজে চলাচল করতে সহায়তা করে

জলচর পাখি (ইংরেজি: Water bird), জলজ পাখি বা জলার পাখি বলতে সেসব পাখিকেই বোঝায় যারা পানিতে বা পানির আশেপাশে বসবাস করে। জলে চরে বেড়ায় বলে এরা জলচর পাখি। এ সকল পাখি তাদের জীবনধারণের জন্য আংশিক বা পুরোপুরি পানির উপর নির্ভরশীল। পানি ছাড়া আসলে কোন প্রাণীই বাঁচতে পারে না; কিন্তু জলচর পাখিদের জীবনচক্রে পানি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বেশিরভাগ জলচর পাখিরা স্বাদুপানির জলাশয়ে বা তার আশেপাশে বিচরণ করে। লোনা পানিতে, অর্থাৎ সমুদ্র, মোহনা, খাঁড়ি ও সামুদ্রিক দ্বীপে বসবাসকারী পাখির পরিমান কম নয়। জলচর পাখিদের পানির উপর নির্ভরশীলতায় পার্থক্য দেখা যায়। এই পার্থক্য সৃষ্টি হয়েছে মূলত তাদের পরিবেশে পানির লভ্যতার উপর।

জলচর পাখির ঝাঁক

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

জলচর পাখিদের দৈহিক গঠন পানিতে বসবাসের উপযোগী। এদের পা, পায়ের পাতা, পালকের বিন্যাস ও গঠন পানি, জলজ পরিবেশ ও কাদায় চলাচলের উপযোগী। এদের ঠোঁট জলজ খাদ্য সংগ্রহ ও গলাধঃকরণের উপযোগী। এরা খুব সহজেই পানিতে ভেসে থাকতে পারে বা চলাফেরা করতে পারে; এমনকি পানিতে অনেকদূর ডুবও দিতে পারে। এসব ক্ষমতা প্রজাতিভেদে কমবেশি সব জলচর পাখিতেই দেখা যায়। খাদ্যের জন্য জলচর পাখিরা বহুলাংশে পানির উপর নির্ভরশীল। সে হিসাবে মাছমুরালসিন্ধুঈগলদেরও জলজ পাখি হওয়ার কথা। কিন্তু এদের বিশেষ দৈহিক গঠন ও স্বভাবের জন্য এরা জলজ পাখিদের আওতায় পড়ে না। এরা শিকারী পাখি

জলচর পাখিরা জীবনধারণের জন্য জলের উপর নির্ভরশীল। তাই বলে এরা যে সবসময়ই পানিতে থাকে তা নয়। বহু জলচর পাখি তাদের জীবনের বেশিরভাগ সময় ভূমিতে, গাছের ডালে বা আকাশে উড়ে উড়ে কাটিয়ে দেয়। বেশিরভাগ জলচর পাখি মাটিতে বা গাছে বাসা বানায়, ডিম পাড়ে, ছানা তোলে। বাসা অবশ্য পানির খুব কাছে হয়। খুব কম সংখ্যক জলজ পাখি পানিতে বাসা করে (যেমন: ডুবুরি)।

বিচরণস্থল[সম্পাদনা]

জলচর পাখিরা পানিতে বা পানির আশেপাশে বিচরণ করে। স্বাদুপানির জলচর পাখিরা ছোট ডোবা, মজা পুকুর, পাহাড়ী ঝর্ণা, খাল, দিঘী থেকে শুরু করে নদী, হাওর, বিল, হ্রদ সর্বত্র বিচরণ করে। এছাড়া জলাভূমি, মৌসুমী জলাশয়, বন্যা কবলিত এলাকা, বাঁধ, ড্যাম, কৃত্রিম জলাশয়, ব্যারেজ, জলপূর্ণ ক্ষেত, নদীর চর, নদীকূল প্রভৃতি এলাকায়ও এদের অবাধ বিচরণ। লোনাপানির জলচর পাখিরা মূলত সমুদ্রকে কেন্দ্র করে ঘুরে বেড়ায়। নদীর মোহনা, উপকূল, সামুদ্রিক খাঁড়ি, দ্বীপ, সমুদ্রবন্দর এমনকি মাঝসমুদ্র, অর্থাৎ সমুদ্রের সর্বত্র এদের বিস্তৃতি। উপযুক্ত পরিবেশ ও খাদ্যের প্রাচুর্য থাকা সাপেক্ষে স্বাদুপানির পাখিরা প্রায়শই লোনাপানিতে এসে আস্তানা গাড়ে। আবার উল্টোটিও ঘটতে দেখা যায়।

জলচর পাখিরা প্রায়ই পরিযায়ীঅনিয়মিত স্বভাবের হয়। খাদ্য আর উপযুক্ত আবাসের খোঁজে এরা দূর দূরান্তে পাড়ি জমায়। আবার জলচর পাখিদের একটি বড় অংশ স্থানিক স্বভাবের।

বিভিন্ন প্রকারের জলচর পাখি[সম্পাদনা]

জলচর পাখিরা পৃথিবীর মোট জীবিত পাখিদের একটি বড় অংশ জুড়ে রয়েছে। এদের কয়েকটি বর্গে বিভক্তকরা হয়েছে। সেগুলো হল:

অনেকক্ষেত্রে মাছরাঙাদেরও জলচর পাখি হিসেবে গণ্য করা হয়।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]