কুরিল দ্বীপপুঞ্জ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মানচিত্রে জাপানের হোক্কাইদো ও রাশিয়ার কামচাটকার মাঝে কুরিল দ্বীপপুঞ্জ

কুরিল দ্বীপপুঞ্জ (রুশ: Кури́льские острова́, আ-ধ্ব-ব: [kuˈrʲilskiɪe əstrʌˈva]) রাশিয়ার পূর্ব উপকূলের কাছে অবস্থিত ৫৬টি ছোট-বড় আগ্নেয় দ্বীপ নিয়ে গঠিত দ্বীপপুঞ্জ। এটি ওখট্‌স্ক সাগরকে প্রশান্ত মহাসাগর থেকে পৃথক করেছে। দ্বীপগুলি জাপানের উত্তর-পূর্বের হোক্কাইদো দ্বীপ থেকে শুরু হয়ে রাশিয়ার কামচাটকা উপদ্বীপ পর্যন্ত প্রসারিত।[১] কুরিল দ্বীপপুঞ্জের দ্বীপগুলি ঘন অরণ্যে আবৃত। এগুলিতে অনেক সক্রিয় আগ্নেয়গিরি আছে। শিকার, মাছ ধরা, ও সালফার খনন এখানকার অধিবাসীদের প্রধান উপজীবিকা। ১৮শ শতকে রুশ এবং জাপানি উভয় দেশের লোকেরাই এই দ্বীপগুলিতে বসতি স্থাপন করে।

১৮৭৫ সালে জাপান নিকটবর্তী সাখালিন দ্বীপের বিনিময়ে কুরিল দ্বীপপুঞ্জের পূর্ণ দখল পায়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইয়াল্টা সম্মেলনের এক চুক্তি অনুসারে সোভিয়েত ইউনিইয়নকে দ্বীপগুলি ফেরত দেয়া হয়। যুদ্ধের পরে জাপান সর্বদক্ষিণের দ্বীপগুলির উপর নিয়ন্ত্রণ রেখে দেয়। এগুলির অধিকার সংক্রান্ত বিবাদের কারণে দেশ দুইটি কোন শান্তি চুক্তিতে উপনীত হতে পারেনি। ১৯৯০-এর দশকে জাপান রাশিয়াকে দ্বীপগুলি ফেরত দিতে কূটনৈতিক চাপ দেয়।[২] ফলে এটি জাপান ও রাশিয়ার মধ্যে দ্বন্দ্বের একটি বিষয়ে পরিণত হয়। ১৯৯০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়ে দেশ দুইটি আলোচনা শুরু করে। এসময় রুশ প্যাট্রোল বোট এবং জাপানি মাছ ধরা নৌকার মধ্যে বেশ কিছু সংঘর্ষ হয়। কুরিল দ্বীপপুঞ্জ বর্তমানে রাশিয়ার সাখালিন ওবলাস্তের অন্তর্গত। ১৯৯৪ সালে সমুদ্র তলদেশের এক ভয়াবহ ভূমিকম্পে এখানকার প্রায় ১৬ জনের মৃত্যু হয়। দ্বীপগুলির আয়তন ১৬,০০০ বর্গকিলোমিটার।

  1. GSE
  2. Japan’s Russian Dilemma