কুমির

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কুমির
সময়গত পরিসীমা: ৫৫–০Ma Eocene – বর্তমানকাল
Bazoule sacred crocodiles MS 6709cropped.JPG
Nile crocodile (Crocodylus niloticus)
Pangil Crocodile Park Davao City.jpg
Estuarine crocodile (Crocodylus porosus)
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
আদর্শ প্রজাতি
Crocodylus niloticus
Laurenti, 1768
Genera
Crocodylidae Distribution.png
Worldwide distribution of crocodiles

কুমির (ক্রোকোডাইল; ক্রোকোডিলাইন উপবর্গ, এরা ট্রু ক্রোকোডাইল নামে পরিচিত) হল একপ্রকাল জলচর চতুষ্পদ প্রাণী। এগুলিকে দেখা যায় আফ্রিকা, এশিয়া, উত্তর আমেরিকাদক্ষিণ আমেরিকা এবং অস্ট্রেলিয়া মহাদেশে।[১]

কুমির, অ্যালিগেটর ও ঘড়িয়ালরা সাধারণ দৃষ্টিতে একই রমক দেখতে হলেও, জীববিজ্ঞানের দৃষ্টিতে এরা পৃথক বর্গের অন্তর্গত। ঘড়িয়ালের মুখের ডগার কাছটি গোলাকার। তবে অ্যালিগেটর ও কুমিরকে পৃথক করা একটু কঠিন। বাহ্যিক দৃষ্টিতে কুমিরের মাথাটি সরু ও দীর্ঘ আকারের হয়। অ্যালিগেটরের মুখটি অনেকটা ইংরেজি ইউ (U) আকৃতিবিশিষ্ট এবং কুমিরের মুখটি ইংরেজি ভি (V) আকৃতিবিশিষ্ট হয়। কুমিরের উপরের ও নিচের চোয়াল দুটির প্রস্থ এক এবং নিচের চোয়ালের দাঁতগুলি মুখ বন্ধ থাকা অবস্থায় উপরের চোয়ালের দাঁতগুলির উপরে থাকে। ফলে দাঁতগুলি ওই অবস্থায় দেখা যায়। এই বৈশিষ্ট্য অ্যালিগেটরের নেই।[২] একই বর্গের অন্যান্য প্রাণীর তুলনায় কুমির অনেক বেশি উগ্র হয়।[৩]

সব ধরনের কুমিরই আকৃতি ও জীববিজ্ঞানের নিয়ম অনুসারে একই রকম। কিন্তু তাদের আকার, প্রকৃতি, আচরণ ও বাসস্থানের ধরন প্রজাতি অনুসারে বিভিন্ন হয়। যদিও এই সব ব্যাপারে তাদের মধ্যে বেশ কিছু মিলও দেখা যায়। সব কুমিরই অর্ধ-জলচর প্রাণী। এরা মূলত নদী, হ্রদ ও জলাভূমির মিষ্টি জলেই বাস করে। কোনো প্রজাতির কুমির অর্ধ-লবনাক্ত ও লবনাক্ত জলেও বাস করে। এরা মাংসাশী প্রাণী। প্রধানত মাছ, সরীসৃপ, পাখিস্তন্যপায়ী প্রাণীই এদের খাদ্য।

কুমির বিষুবীয় অঞ্চলে বাস করে। শীতল পরিবেশের প্রতি এরা সংবেদনশীল। প্রায় সাড়ে ৫ কোটি বছর আগে ইওসিন যুগে এরা অন্যান্য ক্রোকোডিলিয়ান প্রজাতির থেকে পৃথক হয়ে গিয়েছিল।[৪] ক্রোকোডাইলোমর্ফিয়ার অন্যান্য শাখার মতো এই শাখাটিও বিগত সাড়ে ২২ কোটি বছর ধরে নানা গণ-বিলুপ্তি সত্ত্বেও টিকে আছে। তবে এখন বাসস্থানের সমস্যা ও বেআইনি শিকারের ফলে কুমিরের অনেক প্রজাতিই বিপন্ন বা লুপ্তপ্রায়।

নাম[সম্পাদনা]

  • ভারতীয় কুমীর = মগর (Crocodylus palustris palustris)।
  • মকর = গঙ্গাদেবীর কুমীরের মত দেখতে পৌরাণিক বাহন।
  • সংস্কৃত "কুম্ভীর" শব্দটি থেকে "কুমীর" এসে থাকলেও "কুম্ভ" হয়তো ঘড়িয়ালের নাকের ডগার ঘড়া। সে অর্থে কুম্ভীর ঘড়িয়াল

অ্যালিগেটরকেইম্যান (অ্যালিগেটরিডে পরিবার) ও ঘড়িয়াল (গাভিয়ালিডে) হল কুমীরের (ক্রোকোডিলিডে পরিবার) জাতভাই -সবাই ক্রোকোডিলিয়া বর্গের অন্তর্গত।

এই বর্গ আর্কোসরিয়াদের একমাত্র জীবিত বংশধর- অন্যভাগ ডাইনোসররা বহুদিন অবলুপ্ত।

ক্রোকোডিলিয়া বর্গের বিশেষত্ব[সম্পাদনা]

  • পিঠের চামড়ার ভিতর হাড়ের মত শক্ত পাত (osteoderms)।
  • বড় তুণ্ড, চোয়াল সজোরে বন্ধ হয় কিন্তু খোলার পেশী তত জোরালো নয়।
  • ঘাড় বিশেষ বাঁকাতে পারেনা।
  • জিভ মুখের বাইরে বার করতে পারেনা। জিভের নিচে প্রধান লবন রেচন গ্রন্থি।
  • বিশাল লেজ পাশাপাশি চ্যাপ্টা- সাঁতারের প্রধান অঙ্গ, ও লড়াইয়ের অস্ত্র। পিঠে দুইসারি কাঁটা পায়ুর কাছাকাছি এসে একটি সারিতে পরিণত হয়।
  • চার পা, হাঁসের মত লিপ্তপদ (web footed)
  • ডুব দেবার সময় কান বন্ধ করতে পারে।
  • মুখবিবর ও নাসিকাপথ আলাদা করার জন্য দ্বিতীয় তালু (টাকরা/ secondary palate)- তাই মুখে খাবার নিয়েও সহজে শ্বাস নিতে পারে।
  • একমাত্র সরীসৃপ যার চারকক্ষ হৃৎপিণ্ড (ভ্রণাবস্থায় পুরো পৃথক হবার পর অলিন্দদ্বয়ের মধ্যের দেওয়ালে আবার সামান্য ফাঁক তৈরি হয়- ফোরামেন অফ প্যানিজ্জা। জলে ডুব দেবার সময় এটি খোলা হয়- তখন রক্ত ফুসফুসে যায়না।
  • একমাত্র সরীসৃপ যার দাঁত স্তন্যপায়ীদের মত হাড়ে শেকর-গাঁথা (thecodont dentition)।
  • নিকটতম জীবন্ত আত্মীয়রা সরীসৃপ নয়, পাখী।

কুম্ভীরাশ্রু[সম্পাদনা]

কুমীর কাঁদে না। কুম্ভীরাশ্রু (crocodile tears) শব্দটি কপট কান্না অর্থে ব্যবহৃত হয়।

প্রবাদবিখ্যাত[সম্পাদনা]

  • জলে কুমীর ডাঙায় বাঘ
  • টাকার কুমীর

টেমপ্লেট:সরীসৃপ

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Gatesy, Jorge; Amato, G.; Norell, M.; DeSalle, R.; and Hayashi, C. (2003)। "Combined support for wholesale taxic atavism in gavialine crocodylians"Systematic Biology 52 (3): 403–422। ডিওআই:10.1080/1063515035019703  |coauthors= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)
  2. "Crocodilian Biology Database - FAQ - What's the difference between a crocodile and an alligator"। Flmnh.ufl.edu। সংগৃহীত 2009-04-05 
  3. Guggisberg, C.A.W. (1972)। Crocodiles: Their Natural History, Folklore, and Conservation। Newton Abbot: David & Charles। পৃ: 195। আইএসবিএন 0-7153-5272-5 
  4. Buchanan, L.A. 2009. "Kambara taraina sp. nov. (Crocodylia, Crocodyloidea), a new Eocene mekosuchine from Queensland, Australia, and a revision of the genus". Journal of Vertebrate Paleontology 29 (2): 473–486.

অধিকতর পঠন[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]