কমনওয়েলথ গেমস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কমনওয়েলথ গেমস
Commonwealth Games Federation Logo.svg
২০০১ সালে কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশনের সীলমোহর গ্রহণ করা হয়।
নীতিবাক্য মানবতা – সমতা – লক্ষ্য
সদর দফতর ইংল্যান্ড লন্ডন, ইংল্যান্ড
সভাপতি মালয়েশিয়া প্রিন্স টুঙ্কু ইমরান
ওয়েবসাইট কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশন

কমনওয়েলথ গেমস (ইংরেজি: Commonwealth Games) একটি আন্তর্জাতিক এবং বহু-ক্রীড়া বিষয়ে কমনওয়েলথভূক্ত দেশসমূহের অংশগ্রহণকারী ক্রীড়াবিদদের প্রতিযোগিতাবিশেষ। প্রতি চার বৎসর অন্তর এ প্রতিযোগিতাটি সর্বপ্রথম ১৯৩০ সালে প্রবর্তিত হয়। শুরুর দিকে এটি ব্রিটিশ এম্পায়ার গেমস নামে পরিচিত ছিল। ১৯৫৪ সালে ব্রিটিশ এম্পায়ার ও কমনওয়েলথ গেমস নামধারণ করে প্রতিযোগিতাটি। পুণরায় ১৯৭০ সালে ব্রিটিশ কমনওয়েলথ গেমস নাম পরিবর্তন করে অবশেষে ১৯৭৮ সালে এর স্থায়ী নাম হিসেবে কমনওয়েলথ গেমস ধারণ করে অদ্যাবধি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশন (সিজিএফ) কমনওয়েলথ ক্রীড়া পরিচালনা করে থাকে। এছাড়াও সংস্থাটি ভবিষ্যতের ক্রীড়া পরিকল্পনা এবং স্বাগতিক শহর নির্ধারণ করে। প্রতিটি প্রতিযোগিতায় স্বাগতিক শহর নির্ধারণ করা হয়। এ পর্যন্ত ৭টি দেশের ১৮টি শহরে কমনওয়েলথ গেমস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অলিম্পিক ক্রীড়ায় অন্তর্ভূক্ত বিভিন্ন ক্রীড়া বিষয় অন্তর্ভূক্তসহ এ প্রতিযোগিতায় কমনওয়েলথভূক্ত দেশগুলোয় প্রচলিত ক্রীড়া স্থান পেয়েছে। লন বোলস্, রাগবি সেভেন্‌স এবং নেটবলের ন্যায় অপ্রচলিত ক্রীড়াও এ প্রতিযোগিতায় স্থান পেয়েছে।[১] মাত্র ৬টি দেশের ক্রীড়াবিদগণ অদ্যাবধি নিয়মিতভাবে কমনওয়েলথ গেমসে অংশ নিয়েছে। দেশগুলো হলো - অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, স্কটল্যান্ড এবং ওয়েলস। অস্ট্রেলিয়া পদকসংখ্যাসহ সবচেয়ে বেশী ১১বার শীর্ষস্থান দখল করেছে।

৫৪-সদস্যবিশিষ্ট কমনওয়েলথভূক্ত দেশসহ ৭১টি দল কমনওয়েলথ গেমসে অংশ নেয়। তন্মধ্যে - ব্রিটিশ উপনিবেশ, দ্বীপপুঞ্জগুলো তাদের নিজস্ব পতাকা নিয়ে অংশ নিয়েছে। যুক্তরাজ্য থেকে - ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ওয়েলস এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড স্বতন্ত্রভাবে দল প্রেরণ করেছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৯১ সালে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যভূক্ত দেশগুলোতে একত্রিত করার প্রথম প্রস্তাবনা আনেন রেভারেন্ড অ্যাশলে কুপারদ্য টাইমসে প্রকাশিত একটি নিবন্ধে তিনি প্যান-ব্রিটানিক-প্যান-অ্যাঙ্গলিকান প্রতিযোগিতা এবং উৎসব প্রতি চার বছর পরপর আয়োজনের কথা তুলে ধরেন। এর মাধ্যমে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের মধ্যে পারস্পরিক সম্মান এবং বোঝাপড়া আরো বৃদ্ধি পাবে বলে মত প্রকাশ করেন।

১৯১১ সালে যুক্তরাজ্যের রাজা ৫ম জর্জের রাজ্য অভিষেক উপলক্ষ্যে লন্ডনে সম্রাটের উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। উৎসবের অংশ হিসেবে আন্তঃসাম্রাজ্য চ্যাম্পিয়নশীপ অনুষ্ঠিত হয়। এতে অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং যুক্তরাজ্যের ক্রীড়া প্রতিযোগীগণ বক্সিং, কুস্তি, সাঁতার এবং দৌড় খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

১৯২৮ সালে কানাডা'র মেলভিল মার্ক্স রবিনসনকে প্রথম ব্রিটিশ এম্পায়ার গেমস আয়োজনের দায়িত্ব দেয়া হয়। ১ম ক্রীড়া প্রতিযোগিতাটি ১৯৩০ সালে কানাডা'র অন্টারিও প্রদেশের হ্যামিল্টনে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ১৯৫৪ সালে এর নাম পরিবর্তন করে ব্রিটিশ এম্পায়ার ও কমনওয়েলথ গেমস রাখা হয়। পুণরায় ১৯৭০ সালে ব্রিটিশ কমনওয়েলথ গেমস এবং ১৯৭৮ সালে সর্বশেষ কমনওয়েলথ গেমস নামে পরিবর্তিত হয়ে অদ্যাবধি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।[২]

১৯৩০ সালেরপ্রতিযোগিতায় মহিলা ক্রীড়াবিদগণ শুধুমাত্র সাঁতার বিষয়েই অংশ নিয়েছিলেন।[৩] ১৯৩৪ সাল থেকে মহিলারাও অন্যান্য কিছু দৌড় বিষয়ে অংশ নিয়েছেন।

কমনওয়েলথ গেমসের পাশাপাশি শারীরিকভাবে অক্ষম, পোলিও আক্রান্ত ক্রীড়াবিদদের জন্য কমনওয়েলথ প্যারাপলেজিক গেমস ১৯৬২ থেকে ১৯৭৪ সাল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছিল।[৪] প্রচলিত কমনওয়েলথ গেমসে শারীরিকভাবে অক্ষম ক্রীড়াবিদদেরকেও প্রদর্শনী বিভাগে দৌড়ের জন্য প্রথমবারের মতো অন্তর্ভূক্তি করা হয়। ১৯৯৪ সালে কানাডার ভিক্টোরিয়ায় অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমসে এটি প্রবর্তিত হয়।[৫] ২০০২ সালের কমনওয়েলথ গেমসের ম্যানচেস্টার আসরে আন্তর্জাতিক পর্যায়ের বহু-ক্রীড়া বিষয়ে প্রতিবন্ধীরা পূর্ণাঙ্গ সদস্য রাষ্ট্রের ক্রীড়াবিদ হিসেবে অন্তর্ভূক্ত হন। এর ফলে পদক গণনা করা হবে যদি তারা জয়ী হন।[৬]

সনাতন ধারা[সম্পাদনা]

  • ১৯৩০ থেকে ১৯৫০ সাল পর্যন্ত একজন মাত্র পতাকা বহনকারী কর্তৃক ইউনিয়ন ফ্ল্যাগ নিয়ে সদস্য রাষ্ট্রগুলো প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতেন।
  • ১৯৫৮ সাল থেকে কুইন'স ব্যাটন রীলে বাকিংহ্যাম প্রাসাদ থেকে প্রতিযোগিতা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নেয়া হয়ে থাকে। ব্যাটন বা ক্ষুদ্র লাঠি দণ্ড বহনের পাশাপাশি রাণী ২য় এলিজাবেথের বার্তাও দৌড়বিদ বহন করতেন। সাধারণতঃ ব্যাটন বহনকারী সর্বশেষ ব্যক্তি হিসেবে স্বাগতিক দেশের বিখ্যাত ক্রীড়াবিদ বহন করে থাকেন।
  • ইংরেজি আদ্যাক্ষর অনুযায়ী উদ্বোধনী দিনে দেশের প্রতিযোগীগণ স্টেডিয়াম প্রদক্ষিণ করেন। ব্যতিক্রম হিসেবে রয়েছে পূর্ববর্তী আসরের স্বাগতিক দেশ সকলের শুরুতে মাঠ প্রদক্ষিণ করেন এবং বর্তমান স্বাগতিক দেশ সকলের শেষে অংশগ্রহণ করেন। ২০০৬ সাল থেকে সকল দেশের প্রতিযোগীরা ভৌগোলিক অঞ্চল হিসেবে মার্চপাস্টে অংশ নিচ্ছেন।
  • স্টেডিয়ামস্থিত খুঁটিতে তিনটি দেশের জাতীয় পতাকা পদক বিতরণ অনুষ্ঠানে উড়ানো হয় । সেগুলো হলো - পূর্বের, বর্তমান এবং ভবিষ্যতের স্বাগতিক দেশের জাতীয় পতাকা
  • সামরিক বাহিনীর সদস্যরা অলিম্পিক গেমসের তুলনায় এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী দিনে আরও বেশী সক্রিয় থাকেন। প্রাচীন সাম্রাজ্যকে স্মরণপূর্বক ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর সনাতনী ধারায় এ সম্মান প্রদর্শন করা হয়।

আসর বিবরণ[সম্পাদনা]

কমনওয়েলথ গেমসের ১৯৩০ সালে অনুষ্ঠিত ব্রিটিশ এম্পায়ার গেমসের ১ম আসরে এগারটি দেশ অংশ নিয়েছিল। চার বৎসর অন্তর অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতা ২য় বিশ্বযুদ্ধের কারণে বাঁধাগ্রস্থ হয়। ১৯৪২ সালে এটি কানাডার মন্ট্রিলে অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল। এছাড়াও, ১৯৪৬ সালে এ প্রতিযোগিতা স্থগিত রাখতে হয়েছিল।[৭] প্রতিযোগিতাটি ১৯৫০ সাল পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে চলতে থাকে।

১৯৫৪ সালে নাম পরিবর্তিন করে ব্রিটিশ এম্পায়ার ও কমনওয়েলথ গেমস রাখা হয়।[২] ১৯৫৮ সালে প্রথমবারের মতো ৩০টি দেশের সহস্রাধিক প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিল।[৮]

উল্লেখযোগ্য প্রতিযোগী[সম্পাদনা]

স্কটল্যান্ডের লন বোলার উইলি উড একমাত্র প্রতিযোগী হিসেবে ১৯৭৪-২০০২ পর্যন্ত মোট ৭বার কমনওয়েলথ গেমসে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া, নিউজিল্যান্ডের গ্রেগ ইয়েলাভিচ ১৯৮৬-২০১০ পর্যন্ত ৭টি প্রতিযোগিতায় বন্দুক চালনা বিষয়ে ১২টি পদক লাভ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Harold, Perkin (September 1989)। "Teaching the nations how to play: sport and society in the British Empire and Commonwealth"। International Journal of the History of Sport 6 (2): pp. 145–155। ডিওআই:10.1080/09523368908713685  |month= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)
  2. ২.০ ২.১ "The story of the Commonwealth Games"। Commonwealth Games Federation। সংগৃহীত 20 January 2008 
  3. "1930 British Empire Games – Introduction"। Commonwealth Games Federation। সংগৃহীত 29 October 2009 
  4. DePauw, Karen P; Gavron, Susan J (2005)। Disability sport। Human Kinetics। পৃ: 102–। আইএসবিএন 978-0-7360-4638-1। সংগৃহীত 25 February 2012 
  5. Van Ooyen and Justin Anjema, Mark; Anjema, Justin (25 March 2004)। "A Review and Interpretation of the Events of the 1994 Commonwealth Games" (PDF)। Redeemer University College। সংগৃহীত 25 February 2012 
  6. "Para-sports for elite athletes with a disability"Commonwealth Games Federation website। সংগৃহীত 25 February 2012 
  7. High Achievers. Australian Commonwealth Games Association. Retrieved on 2010-04-05.
  8. Growth of the Commonwealth Games. Commonwealth Games Federation. Retrieved on 2010-04-05.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]