উয়েফা ইউরোপা লীগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(উয়েফা কাপ থেকে ঘুরে এসেছে)
উয়েফা ইউরোপা লীগ
UEFA cup logo.png
সংস্থাপিত ১৯৭১ (২০০৯ সাল থেকে বর্তমান রীতিতে)
অঞ্চল উয়েফা (ইউরোপ)
দলের সংখ্যা ৪৮ (গ্রুপ পর্ব)
+৮ চ্যাম্পিয়নস লীগের গ্রুপ পর্বের পর যোগদান করে[১]
১৬০ (মোট)
বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড চেলসি (১ম শিরোপা)
সর্বাধিক সফল দল(সমূহ) ইতালি জুভেন্তাস
ইতালি ইন্তারনাজিওনালে
ইংল্যান্ড লিভারপুল
(৩টি শিরোপা)
টেলিভিশন সম্প্রচার মাধ্যম সম্প্রচারকদের তালিকা
ওয়েবসাইট দাপ্তরিক ওয়েবসাইট
২০১৩–১৪ উয়েফা ইউরোপা লীগ

উয়েফা ইউরোপা লীগ (পূর্বে উয়েফা কাপ নামে পরিচিত ছিল) ইউরোপের ক্লাবগুলোকে নিয়ে অনুষ্ঠিত একটি ফুটবল প্রতিযোগিতা যেটি পরিচালনা করে ইউনিয়ন অব ইউরোপীয়ান ফুটবল এসোসিয়েশন (উয়েফা)। সম্মানের দিক দিয়ে এটি ইউরোপীয়ান ক্লাব ফুটবলে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের পরই অবস্থান। এই কাপের জন্য ক্লাবগুলো নির্বাচিত হয় ঘরোয়া লীগ ও কাপের ফলাফলের উপর ভিত্তি করে।

১৯৭১ সালে প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছিল ইন্টার-সিটিস ফেয়ার্স কাপ এর বদলী হিসেবে। ১৯৯৯ সালে কাপ উইনার্স কাপকে বিলুপ্ত ঘোষনা করে সেটিকে উয়েফা কাপের সাথে একীভূত করা হয়। যদিও ইন্টার-সিটিস ফেয়ার্স কাপকে উয়েফা কাপের পূর্বসূরী বিবেচনা করা হয় এবং ফেরার্স কাপের রেকর্ডকে উয়েফা কাপের রেকর্ড হিসেবে ধরা হয়, তবে কাপ উইনার্স কাপকে উয়েফা কাপের পূর্বসূরী বলা হয় না।

শাখতার ডানেস্ক বর্তমান উয়েফা কাপের শিরোপাধারী। সর্বশেষ উয়েফা কাপ ফাইনালে শাখতার ডানেস্ক জার্মানীর ওয়ার্ডার ব্রেমেন দল্কে পরাস্ত করে। খেলাটি অনুষ্ঠিত হয় ২০০৯ সালের ২০ মে তারিখে।

বিজয়ীদের তালিকা[সম্পাদনা]

ক্লাব বিজয়ী রানার-আপ বিজয়ের সাল রানার-আপের সাল
ইতালি জুভেন্তাস ১৯৭৭, ১৯৯০, ১৯৯৩ ১৯৯৫
ইতালি ইন্তারনাজিওনালে ১৯৯১, ১৯৯৪, ১৯৯৮ ১৯৯৭
ইংল্যান্ড লিভারপুল ১৯৭৩, ১৯৭৬, ২০০১
জার্মানি বরুসিয়া মানচিংলাদবাখ ১৯৭৫, ১৯৭৯ ১৯৭৩, ১৯৮০
ইংল্যান্ড টটেনহাম হটস্পার ১৯৭২, ১৯৮৪ ১৯৭৪
নেদারল্যান্ডস ফেয়েনুর্দ ১৯৭৪, ২০০২
সুইডেন ইএফকে ইয়তেবোরিয়ে ১৯৮২, ১৯৮৭
স্পেন রিয়াল মাদ্রিদ ১৯৮৫, ১৯৮৬
ইতালি প্রামা ১৯৯৫, ১৯৯৯
পর্তুগাল পোর্তো ২০০৩, ২০১১
স্পেন সেভিয়া ২০০৬, ২০০৭
স্পেন আতলেতিকো মাদ্রিদ ২০১০, ২০১২
বেলজিয়াম আন্দারলেশ্ত ১৯৮৩ ১৯৮৪
নেদারল্যান্ডস পিএসভি আইন্দোভেন ১৯৭৮
জার্মানি এইনট্রাখৎ ফ্রাঙ্কফুর্ট ১৯৮০
ইংল্যান্ড ইপসউইচ টাউন ১৯৮১
জার্মানি বায়ার লেভারকুজেন ১৯৮৮
ইতালি নাপোলি ১৯৮৯
নেদারল্যান্ডস আয়াক্স ১৯৯২
জার্মানি বায়ার্ন মিউনিখ ১৯৯৬
জার্মানি শালকে ০৪ ১৯৯৭
তুরস্ক গালাতাসারাই ২০০০
স্পেন ভালেন্সিয়া ২০০৪
রাশিয়া সিএসকেএ মস্কো ২০০৫
রাশিয়া জেনিত সাঙ্কৎ পিতারবুর্গ ২০০৮
ইউক্রেন শাখতার দোনেৎস্ক ২০০৯
ইংল্যান্ড চেলসি ২০১৩

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. প্রতিটি গ্রুপের শীর্ষ দুইটি দল ১৬ দলের পর্বে অংশগ্রহণের সুযোগ পায়, সেখানে তাদের সাথে যোগ দেয় চ্যাম্পিয়নস লীগের গ্রুপ পর্বের প্রতিটি গ্রুপের তৃতীয় স্থানে থাকা দল।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]