আলাউদ্দিন আল আজাদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আলাউদ্দিন আল আজাদ
Alauddin Al Azad.jpg
জন্ম ৬ মে, ১৯৩২
মৃত্যু ৩ জুলাই, ২০০৯
জাতীয়তা বাংলাদেশী
বংশোদ্ভূত বাঙালি
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ Flag of Bangladesh.svg
যে জন্য পরিচিত ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক, কবি, নাট্যকার, গবেষক
পুরস্কার একুশে পদক, বাংলা একাডেমী পুরস্কার

আলাউদ্দিন আল আজাদ (জন্ম:৬ মে, ১৯৩২ - মৃত্যু:৩ জুলাই, ২০০৯) বাংলাদেশের খ্যাতিমান ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক, কবি, নাট্যকার, গবেষক। আশাবাদী সংগ্রামী মনোভাব তাঁর রচনার বৈশিষ্ট্য। বর্তমানে নাগরিক জীবনের বিকার উপস্থাপনে আগ্রহী।[১] তিনি ১৯৫২ এর ভাষা আন্দোলনের একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন। তাঁর প্রথম উপন্যাস তেইশ নম্বর তৈলচিত্র ১৯৬০ সালে ছাপা হয়।

জীবনী[সম্পাদনা]

আলাউদ্দিন আল আজাদ ১৯৩২ খ্রিস্টাব্দের ৬ মে নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার রামনগর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা : গাজী আব্দুস সোবহান; মাতা : মোসাম্মাৎ আমেনা খাতুন; স্ত্রী : জামিলা আজাদ। প্রবেশিকা : নারায়ণপুর শরাফতউল্লাহ উচ্চ ইংরেজি বিদ্যালয়, রায়পুরা (১৯৪৭)। উচ্চ মাধ্যমিক (কলা) : ইন্টারমিডিয়েট কলেজ (১৯৪৯) তিনি ১৯৫৩ ও ১৯৫৪ খ্রিস্টাব্দে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা বিভাগ থেকে অনার্স ও মাস্টার ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর তিনি সরকারি কলেজের অধ্যাপনা পেশায় যুক্ত হন। পাঁচটি সরকারি কলেজে অধ্যাপনা এবং পরবর্তীকালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। পেশাগত জীবনে মস্কোর বাংলাদেশ দূতাবাসে সংস্কৃতি উপদেষ্টা, শিক্ষা সচিব, সংস্কৃতিবিষয়ক বিভাগ ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়েও তিনি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দে লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি ঈশ্বরগুপ্তের জীবন ও কবিতা বিষয়ে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০০৯ এর ৩রা জুলাই শুক্রবার রাতে ঢাকার উত্তরায় নিজ বাসভবন রত্নদ্বীপে তিনি বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেন।

গ্রন্থ তালিকা[সম্পাদনা]

গল্প[সম্পাদনা]

  • জেগে আছি
  • ধানকন্যা
  • মৃগনাভি
  • অন্ধকার সিঁড়ি
  • উজান তরঙ্গে
  • যখন সৈকত
  • আমার রক্ত স্বপ্ন আমার

কবিতা[সম্পাদনা]

  • মানচিত্র
  • ভোরের নদীর মোহনায় জাগরণ
  • সূর্য জ্বালার স্বপন
  • লেলিহান পান্ডুলিপি

নাটক[সম্পাদনা]

  • এহুদের মেয়ে
  • মরোক্কোর জাদুকর
  • ধন্যবাদ
  • মায়াবী প্রহর
  • সংবাদ শেষাংশ

রচনাবলী[সম্পাদনা]

  • শিল্পের সাধনা

স্বাধীনতা যুদ্ধের ওপর লেখা বই[সম্পাদনা]

গ্রন্থসূত্র[সম্পাদনা]

  • বাঙলা একাডেমী লেখক অভিধান, ২০০৭, ঢাকা।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. রফিকুল ইসলাম, মোহাম্মদ আবু জাফর ও আবুল কাসেম ফজলুল হক সম্পাদিত; কবিতা সংগ্রহ; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়; জুলাই ১৯৯০; পৃষ্ঠা- ৪৮৩- ৪৮৪।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]