আলফা কণা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আলফা কণা
Alpha Decay.svg

গঠন ২টি প্রোটন, ২টি নিউট্রন
পরিসংখ্যান Bosonic
প্রতীক α, α2+, He2+
ভর

৬.64465676(29)×১০−২৭ kg[১]
৪.001506179125(62) u

৩.727379240(82) GeV/c2
ইলেকট্রিক চার্জ e
Spin 0[২]

আলফা কণা (ইংরেজীতেঃ Alpha particle) আসলে হিলিয়াম নিউক্লিয়াস। হিলিয়াম নিউক্লিয়াসে থাকে দুটি প্রোটন আর দুটো নিউট্রন। কোন নিউক্লিয়াস থেকে যদি একটা আলফা কণা বে হয়ে আসে তাহলে সেই পরমাণুর পারমাণবিক সংখ্যা কমবে দুই ঘর, নিউক্লিওন সংখ্যা কমবে চার ঘর। একটা নিউক্লিয়াসের ভেতর থেকে যখন একটা আলফা কণা বের হয়ে আসে তখন তার যথেষ্ট শক্তি থাকে এবং সেটা বাতাসকে তীব্র ভাবে আয়োনিত করতে পারে। অর্থাৎ এটা যখন বাতাসের ভিতর দিএ যায় তখন বাতাসের অণু-পরমাণুর সাথে যে সংঘর্ষ হয় সেই সংঘর্ষে সেগুলো আয়োনিত করতে পারে। আলফা কণার গতিপথ হয় সরল রেখার মতো-সোজাসুজি এগিয়ে যায়। তবে আলফা কণা যেহেতু হিলিয়ামের নিউক্লিয়াস তাই এটা পদার্থের ভেতর দিয়ে বেশি দূর যেতে পারে না-এটাকে থামিয়ে দেয়া সহজ। কোথাও আঘাত করলে ভেঙ্গে অনেক ক্ষতি করলেও আলফা কণা বেশি দূর যাবার আগেই থেকে যায়। আলফা কণা যাবার সময় অনেক ইলেকট্রন এবং আয়ন তৈরি করে, সেগুলো নানাভাবে নির্ণয় করা যায়। বর্তমানে ইলেকট্রনিক্সের অনেক উন্নতি হওয়ায় এই ধরনের আলফা কণার উপস্থিতি বের করা আরো সহজ হয়ে গেছে।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "CODATA Value: Alpha particle mass"NIST। সংগৃহীত 2011-09-15 
  2. Krane, Kenneth S. (1988)। Introductory Nuclear PhysicsJohn Wiley & Sons। পৃ: 246–269। আইএসবিএন 0-471-80553-X 
  3. পদার্থবিজ্ঞানের প্রথম পাঠ - মুহম্মদ জাফর ইকবাল