আদি শামির

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ক্রিপ্টো ২০০৩ সম্মেলনে আদি শামির

আদি শামির (জন্ম ১৯৫২) একজন ইসরাইলি কম্পিউটার বিজ্ঞানী। তিনি আরএসএ এলগরিদম এর তিন উদ্ভাবকের একজন। এছাড়াও কম্পিউটার বিজ্ঞান ও ক্রিপ্টোগ্রাফীতে তাঁর অনেক অবদান রয়েছে।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

শামিরের জন্ম হয় তেল আভিভ শহরে। তিনি তেল আভিভ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৭৩ সালে গণিতশাস্ত্রে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি ওয়াইজম্যান ইন্সটিটিউট হতে ১৯৭৫ সালে মাস্টার্স এবং ১৯৭৭ সালে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। তাঁর পিএইচডি থিসিস এর শিরোনাম ছিলো "Fixed points of Recursive Programs"। একবছর ওয়ারউইক বিশ্ববিদ্যালয়ে পোস্টডক্টরেট গবেষণা করার পর তিনি এমআইটি তে ১৯৭৭ সাল থেকে ১৯৮০ সাল পর্যন্ত গবেষণা করেন। এর পর তিনি ওয়াইজম্যান ইন্সটিটিউটের গণিত ও কম্পিউটার বিজ্ঞানের অধ্যাপক হিসাবে যোগ দেন।

গবেষণা[সম্পাদনা]

আরএসএ ছাড়াও শামির ক্রিপ্টোগ্রাফীর উপরে বিস্তারিত গবেষণা করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে শামিরের গোপন শেয়ারিং পদ্ধতি, মার্কেল-হেলম্যান ক্রিপ্টোসিস্টেমকে জয় করার কৌশল, দৃশ্যমান ক্রিপ্টোগ্রাফী, এবং টুইর্ল ও টুইংকেল পূর্ণ সংখ্যা উৎপাদক তৈরির যন্ত্র। এলি বিহাম এর সাথে তিনি ডিফারেন্সিয়াল ক্রিপ্টানালাইসিস আবিষ্কার করেন, যার দ্বারা ব্লক সাইফার কে সহজেই আক্রমণ করা যায় (পরে অবশ্য জানা গেছে যে, এই পদ্ধতি আইবিএম এবং এনএসএ আগেই আবিষ্কার করেছিলো, কিন্তু পদ্ধতিটি গোপন রেখেছিলো)।

ক্রিপ্টোগ্রাফী ছাড়াও শামির কম্পিউটার বিজ্ঞানের অন্যান্য শাখায় তাঁর অবদান রেখেছেন। যেমন, তিনি কমপ্লেক্সিটি থিওরির পিস্পেস এবং ইন্টারেক্টিভ প্রমাণ ব্যবস্থা যে সমতূল্য, তা প্রমাণ করেন।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

ক্রিপ্টোগ্রাফীতে অবদানের জন্য রোনাল্ড রিভেস্টলিওনার্ড আডলেম্যান এর সাথে আদি শামির ২০০২ সালে এসিএম এর টুরিং পুরস্কার লাভ করেন। এছাড়াও শামির সি এম এর কান্নেলাকিস পুরস্কার, ইসরাইলি গণিত সোসাইটির এরদোশ পুরস্কার, আইইইই এর ডব্লু আরজি বেকার পুরস্কার, ইউএপি বিজ্ঞান পুরস্কার, ভ্যাটিকান এর পাইয়াস একাদশ পুরস্কার, এবং আইইইই এর কোজি কোবায়াশি কম্পিউটার ও কমিউনিকেশন পুরস্কার লাভ করেন।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]