আই-লিগ দ্বিতীয় ডিভিশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

আই-লিগ দ্বিতীয় ডিভিশন ভারতীয় ফুটবল পিরামিডের দ্বিতীয় স্তর। এই স্তর থেকে প্রথম দুইটি দল আই-লিগ প্রথম ডিভিশনে উত্তীর্ণ হয়। এই লিগটি পুরোনো ন্যাশনাল ফুটবল লিগের দ্বিতীয় ডিভিশনের জায়গায় ভারতীয় ফুটবলের মানোন্নয়নের জন্য আরম্ভ করা হয়েছে। আই-লিগ দ্বিতীয় ডিভিশনের প্রথম ম্যাচটি মহমেডান স্পোর্টিং এবং আমেথি ইউনাইটেডের মধ্যে ২৫ মার্চ ২০০৮-এ খেলা হয়েছিল। প্রথম আই-লিগ দ্বিতীয় ডিভিশনের প্রথম চারটি দল আই-লিগ প্রথম ডিভিশনে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে।

২০০৯ সালের আই-লিগ দ্বিতীয় ডিভিশনের দলগুলো[সম্পাদনা]

ক্লাব শহর / রাজ্য স্টেডিয়াম ধারণক্ষমতা
ভিভা কেরালা কোচি,কেরালা মিউনিসুপাল করপোরেশন স্টেডিয়াম, কোচি ৩৫,০০০
সালগাওকর স্পোর্টস ক্লাব গোয়া জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়াম, মারগাও ৩৫,০০০
ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্ক ফুটবল ক্লাব চেন্নাই,তামিলনাড়ু জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়াম (চেন্নাই) ৪০,০০০
এফ সি ওএনজিসি মুম্বাই,মহারাষ্ট্র কুপারেজ স্টেডিয়াম ১২,০০০
আমেটি ইউনাইটেড ফুটবল ক্লাব গুরগাঁও,হরিয়ানা দেবীলাল স্টেডিয়াম, গুরগাঁও ১২,০০০
হিন্দুস্তান এরোনটিকস লিমিটেড স্পোর্টস ক্লাব ব্যাঙ্গালোর, কর্ণাটক ব্যাঙ্গালোর স্টেডিয়াম ১৫,০০০
অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেড স্পোর্টস ক্লাব দুলিয়াজান, আসাম জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়াম (গুয়াহাটি) ২৫,০০০
নিউ দিল্লী হিরোস এফসি নয়াদিল্লী আম্বেদকর স্টেডিয়াম, নয়াদিল্লী ১৫,০০০
পুনে এফসি পুনে,মহারাষ্ট্র
স্টেট ব্যাংক অফ ট্রাভাংকোর এফসি তিরুবনন্তপুরম,কেরালা চন্দ্রশেখর নায়ার স্টেডিয়াম ৬০,০০০

ভিভা কেরালা এবং সালগাওকর স্পোর্টস ক্লাব ২০০৭-০৮ এর আই-লিগ প্রথম ডিভিশন থেকে দ্বিতীয় ডিভিশনে নেমে যায় এবং ২০০৯ সালে আই-লিগ দ্বিতীয় ডিভিশনে খেলবে।