অবিচ্ছিন্নতার নীতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

অবিচ্ছিন্নতার নীতি (ইংরেজি ভাষায়: Law of Continuity) একটি আবিষ্করণী বা হিউরিস্টিক নীতি যার মূলকথা হচ্ছে প্রকৃতির সকল কিছুই অবিচ্ছিন্ন, প্রকৃতিতে কোন বিচ্ছিন্নতা বা ফাঁক নেই।[১] ইয়োহানেস কেপলার এবং কুসার নিকোলাস তাদের মত করে অবিচ্ছিন্নতা সম্পর্কে কিছু আলোচনা করলেও গট‌ফ্রিড লাইব‌নিৎস প্রথম একে একটি মৌলিক নীতি হিসেবে গড়ে তোলেন। এজন্যই লাইবনিৎস এটিকে নিজের আবিষ্কার মনে করতেন।

১৬৮৭ সালে বায়েলকে লেখা একটি চিঠিতে তিনি নীতিটা এভাবে বর্ণনা করেছিলেন, "in any supposed transition, ending in any terminus, it is permissible to institute a general reasoning in which the final terminus may be included"। এই উক্তি থেকে মনে হয় লাইবনিৎস সকল ট্রানজিশন বা স্থানান্তর বা রূপান্তরকেই অবিচ্ছিন্ন মনে করতেন। অন্তত জ্যামিতি ও প্রাকৃতিক প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে যে তিনি একে ধ্রুব সত্য মানতেন তাতে কোন সন্দেহ নেই। তিনি মনে করতেন, অবিচ্ছিন্নতার নীতি সত্য বলেই জ্যামিতি ও ইনফিনিটেসিমাল ক্যালকুলাসের নিয়মগুলো পদার্থবিজ্ঞানে প্রয়োগ করা যায়। আর এই নীতি আছে বলেই তিনি কখনো বস্তুবাদী পরমাণুবাদ গ্রহণ করতে পারেননি।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Marc Bobro, Leibniz on Causation, স্ট্যানফোর্ড এনসাইক্লোপিডিয়া অফ ফিলোসফি
  2. John L. Bell, "Continuity and Infinitesimals", স্ট্যানফোর্ড এনসাইক্লোপিডিয়া অফ ফিলোসফি